• সোমবার, ২৭ মে ২০১৯, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন

স্কুলে আপনার শিশুর যে অসুখগুলো হতে পারে!

  সাদিয়া ইসলাম বৃষ্টি ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:৩৪

অসুস্থতা
ছবি : সংগৃহীত

ঋতু পরিবর্তনের সময় চলছে এখন। ঠান্ডা-জ্বর যেন লেগেই আছে। এই সময়টায় সবচাইতে বেশি ঝুঁকিতে থাকে শিশুরা। শরীরের রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা তুলনামূলকভাবে অন্যদের চাইতে কম হওয়ায় সহজেই ভাইরাসজনিত রোগের শিকার হয় তারা।

বিশেষ করে, বিদ্যালয়ে শিশুরা প্রচুর মানুষের সাথে মেশার সুযোগ পায়। সংক্রামক রোগগুলো পরিবাহিত হয় সেখানেই। আপনার শিশুটিও কি বিদ্যালয়ে নিয়মিত যাচ্ছে? তাহলে চলুন, জেনে নেওয়া যাক স্কুলগামী শিক্ষার্থীদের এই মৌসুমে হওয়া খুব সাধারণ কিছু অসুখ ও এর সমাধান সম্পর্কে।

সাধারণ ঠান্ডা-

হঠাৎ গরম, হঠাৎ খুব বেশি ঠান্ডা- এমন আবহাওয়ার মধ্যে শিশুর ঠান্ডা লেগে যাওয়াটা খুব স্বাভাবিক। এক্ষেত্রে তার হালকা জ্বর আসতে পারে, সর্দি, কফ ইত্যাদি ঠান্ডাজনিত নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে।

তবে এই সমস্যা যদি ৫ দিনের বেশি স্থায়ী হয় এবং জ্বর যদি না কমে, সেক্ষেত্রে চিকিৎসকের সাথে কথা বলুন। এই ঠান্ডা থেকে দূরে থাকতে আপনার সন্তানকে নিয়মিত হাত পরিষ্কার রাখতে বলুন। হাত দিয়ে বারবার চোখ, মুখ ধরতে মানা করুন। চেষ্টা করুন তাকে স্বাস্থ্যসম্মত খাবার ও প্রচুর পরিমাণ পানি করানোর।

ইনফ্লুয়েঞ্জা-

হুট করেই আপনার শিশুর শরীর প্রচণ্ড গরম হয়ে গিয়েছে? সাধারণত, ফ্লু’র কারণে হওয়া জ্বর খুব দ্রুত অনেকটা বেশি পরিমাণে হতে দেখা যায়। শুধু জ্বর নয়, একইসাথে শরীরে চুলকানি, কফ, ডায়রিয়া এবং বমিভাবের মতো লক্ষণও দেখা যেতে পারে। সাধারণ জ্বরের চাইতে একটু আলাদা এই অসুখে জ্বর, মাথাব্যথা ইত্যাদি বেশি দেখা যায়।

সাধারণত, ইনফ্লুয়েঞ্জার প্রতিরোধক হিসেবে টিকা ৯০ শতাংশ পর্যন্ত কার্যকরী ভূমিকা রাখতে পারে। আপনার শিশুকে বলুন তার হাত পরিষ্কার রাখতে। এছাড়া শিশুর মধ্যে ফেস মাস্ক ব্যবহার করার অভ্যাস গড়ে তুলুন।

পিংক আই-

হুট করেই আপনার শিশুর চোখ অনেক বেশি চুলকাচ্ছে? চোখের রং পরিবর্তিত হচ্ছে এবং অনবরত পানি পড়ছে? এই সমস্যাগুলো দেখতে পেলে তাকে পিংক আই সমস্যার জন্য চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান। অনেকসময় এই সমস্যা অ্যালার্জির কারণেও হতে পারে। ঠিক কী কারণে সমস্যাটি তৈরি হয়েছে সেটা সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে নিন। কারণ, পিংক আই যদি খুব বেশি সময় ধরে চলতে থাকে, তাহলে সেটি শিশুর চোখের উপরে স্থায়ীভাবে বাজে প্রভাব রাখতে পারে।

সাধারণত, চিকিৎসক সাধারণ কিছু ড্রপ, ওষুধ ইত্যাদি দেবেন এই অসুখ দূর করতে। তবে পিংক আই প্রতিরোধ করতে আপনার শিশুকে নিজের হাত দিয়ে বারবার চোখ ধরতে মানা করুন। আপনার শিশুর যদি পিংক আই হয়েই যায় সেক্ষেত্রে তাকে বিদ্যালয়ে যাওয়া থেকে কিছুদিনের জন্য বিরত রাখুন। অন্যথায়, এই সমস্যা আপনার শিশুর কাছ থেকে অন্যদের কাছেও চলে যেতে পারে।

রোগটি ছোঁয়াচে। আপনি সতর্ক না থাকলে পিংক আই আপনার শিশুর কাছ থেকে আপনারও হয়ে যেতে পারে। তাই, খুব সতর্কতার সাথে পিংক আইয়ের চিকিৎসা করুন।

এইচএফএমডি-

এইচএফএমডি বা হ্যান্ড, ফুড, মাউথ ডিজিজ শিশুদের জন্য বেশ স্বাভাবিক একটি অসুখ। শিশুদের অসুখের এবশিরভাগটাই আসে হাত, মুখ ও খাবার থেকে। জ্বর, পেটে সমস্যা, ত্বকের সমস্যা- এমন অনেক সমস্যাই দেখা যেতে পারে এই কারণে।

সাধারণত খুব বেশি সমস্যা এটি তৈরি না করলেও চিকিৎসা না চললে বড় কোনো ক্ষতিকর প্রভাবও ফেলতে পারে এই ছোটখাটো সমস্যাগুলো। এই অসুখ হলে আপনার শিশুকে নিয়মিত প্রচুর পরিমাণ পানি পান করান। চিকিৎসকের কথানুসারে ওষুধ খাওয়ান। তবে এই রোগকে প্রতিরোধ করতে আপনার শিশু খাবার, পানি ইত্যাদির দিকে খেয়াল রাখুন।

কী ভাবছেন? শিশুকে বিদ্যালয়ে যেতে দেওয়া ঠিক হবে কিনা? অবশ্যই আপনার শিশু বিদ্যালয়ে যাবে। কিন্তু সেইসাথে আপনি যদি খানিকটা সতর্কতা অবলম্বন করেন, তাহলে তার উপরে বর্ণিত অসুখগুলো কোনোটিই হবে না। তাই সতর্ক থাকুন, শিশুকে সুস্থ রাখুন!

মূল লেখক- ডক্টর লিওং হো নাম, মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতাল।

স্বাস্থ্য-ভোগান্তি, নতুন পরিচিত অসুস্থতার কথা জানাতে অথবা চিকিৎসকের কাছ থেকে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত পরামর্শ পেতেই-মেইলকরুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব এবং সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্য সমস্যার পরামর্শ দেবার প্রচেষ্টা থাকবে আমাদের।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড