• শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন

সাধারণ এই খাবারগুলোও কি অ্যালার্জির কারণ হতে পারে?

  সাদিয়া ইসলাম বৃষ্টি

১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১০:১৬
অ্যালার্জি
ছবি : প্রতীকী

কোন কোন খাবারের কারণে অ্যালার্জি হয়? প্রশ্নটা শুনেই নিশ্চয় মাথায় ইলিশ মাছ, চিংড়ি মাছ, বেগুন ইত্যাদি খাবারের নাম চলে এসেছে। মজার ব্যাপার হচ্ছে, আমাদের শরীরের অ্যালার্জির জন্য শুধু নির্দিষ্ট এই খাবারগুলোই নয়, যেকোনো খাবারই দায়ী হতে পারে। অ্যালার্জিক রিঅ্যাকশন একজন মানুষের শরীরে সামান্য র‍্যাশ তৈরি থেকে শুরু করে আরও অনেক ক্ষতিকর প্রভাবও রাখতে পারে। আমাদের দৈনন্দিন জীবনে গ্রহণ করা এমন কিছু অতি সাধারণ, অথচ অ্যালার্জিক রিঅ্যাকশন সৃষ্টিকারী খাবারকে নিয়েই আজকের এই আয়োজন। 

বাদাম- 

বাদাম এমনিতে দেখতে খুব সাধারণ আর শরীরের জন্য উপকারী মনে হলেও, বাস্তবে এটি অ্যালার্জিক রিঅ্যাকশন তৈরি করতে পারে। বাদাম গ্রহণ করার কারণে আপনার মধ্যে-

● চামড়ার চুলকানি
● চামড়ায় লালচে দাগ
● সর্দি
● বমি বমি ভাব
● নিঃশ্বাসে সমস্যা
● ডায়রিয়া ইত্যাদি লক্ষণ দেখা দিতে পারে। সাধারণত একটা বাদাম বা কাঠবাদাম খেলেই এই সমস্যার ভুক্তোভোগী ৪০ শতাংশ মানুষের মধ্যে এই সমস্যা দেখা যায়। তবে গবেষণানুসারে, বাদাম থেকে অ্যালার্জিতে ভুগে থাকেন যারা, তাদের মধ্যে শতকরা ২০ শতাংশ মানুষ পরবর্তীতে এই সমস্যা থেকে বেরিয়ে আসেন। 

ডিম- 

আমাদের শরীর যখন ডিমের সাদা অংশের প্রোটিনের প্রতি সেন্সেটিভ হয়ে যায়, তখন ডিম খেলে শরীরে অ্যালার্জিক রিঅ্যাকশন দেখা যেতে পারে। এক্ষেত্রে-
● সর্দি
● বমি বমি ভাব ও
● পেটব্যথার মতো সমস্যাগুলো দেখা যেতে পারে।

কর্ন- 

কর্ন খাবারে গ্রহণ করলে এটিও অ্যালার্জির সমস্যা তৈরি করতে পারে। সাধারণত, কর্ন থেকে যে অ্যালার্জি হচ্ছে সেটা চিহ্নিত করা বেশ কঠিন একটি ব্যাপার। কারণ এটির মাধ্যমে হওয়া অ্যালার্জির লক্ষণের সাথে খাদ্যশস্যের মাধ্যমে হওয়া অ্যালার্জির লক্ষণ অনেকটাই মিলে যায়। তাই আপনার ঠিক কোন কারণে সমস্যা হচ্ছে তা বুঝতে একটি একটি করে খাবার খাদ্যতালিকা থেকে বাদ দিয়ে ফলাফল দেখুন। কর্ন খাওয়ার ফলে আপনার মধ্যে অ্যালার্জি হলে নিচের লক্ষণগুলো দেখা দিতে পারে-

● চামড়ার চুলকানি
● চামড়ায় লালচে দাগ
● সর্দি
● বমি বমি ভাব
● হাঁচি
● মাথাব্যথা
● হাঁপানি ইত্যাদি।

মাছ- 

মাছ খেলে অ্যালার্জি হয়? নিশ্চয় আপনি খুব নির্দিষ্ট কিছু মাছের কথা ভাবছেন। ব্যাপারটি মোটেও এরকম নয়। টুনা, স্যামনসহ আরও নানা ধরনের মাছ থেকেই অ্যালার্জি দেখা দিতে পারে। 

● চামড়ায় লালচে দাগ
● পেটব্যথা
● সর্দি
● বমি বমি ভাব
● মাথাব্যথা
● হাঁপানি ইত্যাদি লক্ষণ এই মাছের কারণে অ্যালার্জি ঘটে থাকলে তাতে দেখা যায়। 

দুধ- 

দুধকে পুষ্টিকর খাবার মনে করা হলেও দুধ থেকে অ্যালার্জি তৈরি হতে পারে। এর কারণে প্রথমে ত্বকে লালচে দাগ, সর্দি, বমিভাব ইত্যাদি দেখা গেলেও পরবর্তীতে কোনো ব্যবস্থা না নিলে ফুসফুসে সমস্যা, কফ, ব্যথার সমস্যা ইত্যাদি দেখা দিতে পারে। আপনার মলেও অ্যালার্জির প্রভাব পড়তে পারে। 

খাবার ছাড়াও নানারকম ওষুধ, এই যেমন- পেনিসিলিন, অ্যাসপিরিন ইত্যাদি গ্রহন করলেও অ্যালার্জির সমস্যা দেখা দিতে পারে। 

অ্যালার্জিক রিঅ্যাকশন দেখা দিলে কী করবেন?

যদি আপনার মধ্যে অ্যালার্জিক রিঅ্যাকশন দেখা যায় বা যদি আপনি পাশের কারো মধ্যে এই সমস্যা দেখতে পান, সেক্ষেত্রে দ্রুত নিচের কাজগুলো করুন- 

১। সমস্যা অতিরিক্ত বলে মনে হলে অ্যাম্বুলেন্সকে ডাকুন।
২। যদি সাথে এপিনেফিন অটোইঞ্জেক্টর থাকে, তাহলে রিঅ্যাকশন স্বাভাবিক পর্যায়ে রাখতে সেটি ব্যবহার করুন।
৩। রোগীকে চিত করে শুইয়ে রাখুন।
৪। রোগীর শরীরে আঁটসাঁট কোনো কাপড় থাকলে সেটি সরিয়ে নিন। পুরো শরীর কম্বল দিয়ে ঢেকে দিন।
৫। রোগীকে কোনোরকম পানি পান করতে দিবেন না। যদি গলায় কিছু আটকে যাওয়ার ভাব হয়, তাহলে তাকে একপাশ করে শুইয়ে পিঠে হালকা আঘাত করুন। 
৬। শ্বাস যদি না চলে তাহলে সিপিআর শুরু করুন এবং দ্রুত ব্যবস্থা নিন।

অ্যালার্জিক রিঅ্যাকশনের ফলাফল খুব ভয়ংকর কিছুও হতে পারে। তাই, এই ধরনের সমস্যা থেকে দূরে থাকতে চিকিৎসকের কথা মেনে চলুন এবং নিয়মিত চিকিৎসকের সাথে যোগাযোগ রাখুন। আর যাই হোক, অ্যালার্জিক রিঅ্যাকশনকে অবশ্যই অবহেলা করবেন না।

মূল লেখক- ডক্টর চিউ হাক চিন, মাউন্ট এলিজাবেথ নভেনা হসপিটাল। 
 

স্বাস্থ্য-ভোগান্তি, নতুন পরিচিত অসুস্থতার কথা জানাতে অথবা চিকিৎসকের কাছ থেকে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত পরামর্শ পেতেই-মেইলকরুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব এবং সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্য সমস্যার পরামর্শ দেবার প্রচেষ্টা থাকবে আমাদের।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড