• রবিবার, ২৬ মে ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন

ডায়রিয়ার যত খুঁটিনাটি

  সাদিয়া ইসলাম বৃষ্টি ১০ জানুয়ারি ২০১৯, ০৯:৩৮

ডায়রিয়া
ছবি : প্রতীকী

ডায়রিয়াকে আমরা অনেকেই খুব সাধারণ আর ছোট্ট সমস্যা বলে মনে করি। বাস্তবে ব্যাপারটি মোটেও তা নয়। একটা সময় ডায়রিয়ার আক্রান্ত হয়ে অসংখ্য মানুষ মৃত্যুবরণ করেছে। বর্তমানে মানুষ অনেকটাই এই অসুখটিকে নিজের কাবুতে আনতে পেরেছে। তবে এখনও ডায়রিয়ার কারণে সৃষ্ট মানুষের ভোগান্তি কমেনি। মৃত্যুহার কমেছে, ভোগান্তি নয়।

তাই, অন্যান্য সমস্যার মতো ডায়রিয়া সম্পর্কেও আমাদের জানা প্রয়োজন এবং এর ফলাফল সম্পর্কে সতর্ক থাকা প্রয়োজন। চলুন, আজ জেনে নেওয়া যাক এই অসুখের খুঁটিনাটি প্রয়োজনীয় তথ্যগুলো।

ডায়রিয়া কী?

মলত্যাগ আমাদের প্রাত্যাহিক জীবনের একটি অতি স্বাভাবিক আর জরুরি প্রক্রিয়া। এই মলে যখন তারল্য বেড়ে যায়, মলের পরিমাণ এবং মলত্যাগের পরিমাণ অস্বাভাবিকভাবে বেড়ে যায়, তখন সেটাকে ডাক্তারি ভাষায় ডায়রিয়া বলা হয়।

ডায়রিয়ার মোট দুটো ভাগ আছে। একটি হলো- অ্যাকিউট ডায়রিয়া এবং অন্যটি ক্রনিক ডায়রিয়া। আমরা সাধারণত যে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হই, সেটাকে অ্যাকিউট ডায়রিয়া বলে। মানুষের মধ্যে এই ডায়রিয়ার আধিক্য দেখতে পাওয়া যায়। অন্যদিকে, ক্রনিক ডায়রিয়ার উপস্থিতি তুলনামূলকভাবে অনেকটা কম।

অ্যাকিউট ডায়রিয়া ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া ইত্যাদির মাইক্রোঅরগানিসমের মাধ্যমে হয়ে থাকে। হঠাৎ করে শুরু হয়ে এই ডায়রিয়া কয়েকদিন পর্যন্ত থাকে। ক্রনিক ডায়রিয়া সাধারণত বড় কোনো শারীরিক সমস্যার ফলাফল হিসেবে হয়ে থাকে। এটি এক মাসেরও বেশি সময় ধরে চলতে থাকে।

ডায়রিয়া

ডায়রিয়ার কারণগুলো কী?

অন্যান্য অসুখের মতো ডায়রিয়ারও বেশ কিছু কারণ আছে। চলুন দেখে নেওয়া যাক সেগুলো-

১। খাবারের মাধ্য্যমে শরীরে প্রবেশ করা ব্যাকটেরিয়া

২। কোনো ভাইরাস সংক্রমণ

৩। দূষিত পানি

৪। কিছু নির্দিষ্ট ওষুধ, যেমন- অ্যান্টিবায়োটিকস

৫। খাবারে অ্যালার্জি

৬। ডায়াবেটিস, থাইরয়েডের সমস্যা ইত্যাদি প্রকট সমস্যা

এর বাইরে যে কোনো কারণ থাকতে পারে না ডায়রিয়ার পেছনে তা না। তবে সাধারণত এই কারণগুলোই ডায়রিয়ার পেছনে বেশি কাজ করে।

ডায়রিয়ার লক্ষণ :

ডায়রিয়ার মূল লক্ষণগুলো তো জানাই আছে আপনার। তবে, চলুন জেনে নেওয়া যাক মলত্যাগের তারতম্য ছাড়াও এই অসুখের আরও কিছু লক্ষণ-

১। পেটে অসম্ভব ব্যথা।

২। পেটে নড়াচড়া অনুভব করা।

৩। সর্দি।

৪। বমিভাব।

৫। জ্বর।

৬। ওজন কমে যাওয়া।

৭। পানিশূন্যতা ইত্যাদি।

ডায়রিয়া

ডায়রিয়া খুব সাধারণ একটি সমস্যা হলেও, এই রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিকে দ্রুত চিকিৎসা প্রদান করুন। যদি ডায়রিয়া অনেকদিন পরেও না থামে, তাহলে চিকিৎসকের সাথে যোগাযোগ করুন। কারণ, এটি এমনিতে খুব সাধারন ব্যাপার হলেও, বড় অসুখের প্রথম ধাপ হিসেবে যে কয়েকটি লক্ষণ দেখা যায়, ডায়রিয়া তার মধ্যে একটি।

বিশেষ করে আপনার শিশু যদি ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয় তাহলে তাকে দ্রুত যথাযথ চিকিৎসা প্রদান করুন। শিশু স্বাস্থ্যের জন্য ডায়রিয়া বেশ ক্ষতিকর। শিশুকে মৃত্যুর দিকেও নিয়ে যেতে পারে এই সামান্য সমস্যাটি।

ডায়রিয়া প্রতিরোধ করুন :

ডায়রিয়া প্রতিরোধ করতে হলে কিছু দিকে খেয়াল রাখুন, এই যেমন-

পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখুন।

খাবার খাওয়ার আগে এবং পরে, বাথরুম ব্যবহারের পর এবং অন্যান্য সময় হাত পরিষ্কার রাখুন।

খাবার গ্রহণের ক্ষেত্রে খাদ্যমান সম্পর্কে নিশ্চত হয়ে নিন।

বিশুদ্ধ পানি পান করুন এবং,

অতিরিক্ত মশলা বা চর্বিযুক্ত খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকুন।

তবে আপনার ডায়রিয়া যদি না থামে এবং একইসাথে-

মলের সাথে রক্তপাত হয়

জ্বর থাকে

প্রস্রাবের রং গাঢ় হয়

মাথাব্যথা থাকে

কোনো পানীয়ই ভালোভাবে গ্রহণ না করতে পারেন

পেটব্যথা হয় এবং হৃদস্পন্দন বেড়ে যায়

শরীরে পানিশূন্যতা কাজ করে তাহলে দ্রুত চিকিৎসকের সাথে দেখা করুন।

অসুখ ছোট হতেই পারে। তবে সঠিক সময়ে নিরাময় না করলে এই ছোট্ট অসুখই প্রাণনাশক কিছু হিসেবে কাজ করতে পারে। তাই দেরি না করে দ্রুত ডায়রিয়ার চিকিৎসা গ্রহণ করুন।

মূল লেখক- ডক্টর জ্যারড লী, মাউন্ট এলিজাবেথ হসপিটাল।

স্বাস্থ্য-ভোগান্তি, নতুন পরিচিত অসুস্থতার কথা জানাতে অথবা চিকিৎসকের কাছ থেকে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত পরামর্শ পেতেই-মেইলকরুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব এবং সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্য সমস্যার পরামর্শ দেবার প্রচেষ্টা থাকবে আমাদের।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড