• শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ১ পৌষ ১৪২৬  |   ১৮ °সে
  • বেটা ভার্সন

আজ ডিম দিবস, কেন খাবেন ডিম?

  অধিকার ডেস্ক    ১২ অক্টোবর ২০১৮, ১৩:১৪

নানা উপায়ে খাওয়া যায় ডিম (ছবি : সংগৃহীত)

বিশ্ব ডিম দিবস আজ। প্রতি বছর ১২ অক্টোবর প্রাণিজ আমিষের চাহিদা পূরণ, স্বাস্থ্যবান ও মেধাবী জাতি গঠন, সর্বোপরি ডিমের গুণাগুণ সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধি করতে এই দিবস পালন করা হয়ে থাকে। 

আপনি কি ডিমের উপকারিতাগুলো জানেন? চলুন জেনে নেওয়া যাক কেন ডিমকে এত উপকারি বলা হয়- 

উপকারি কোলেস্টেরলের মাত্রা বৃদ্ধি- 

একাধিক গবেষণায় দেখা যায় নিয়মিত ডিম খাওয়ার ফলে দেহের অভ্যন্তরে উপকারি কোলেস্টেরলের মাত্রা বৃদ্ধি পায়। যার ফলে কমে যায় হার্টের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা। 

দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে- 

ডিমে রয়েছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, লুটিন এবং জিয়েক্সসেনথিন এর মতো উপকারি অনেক উপাদান যা দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। চোখে ছানি পড়ার আশঙ্কাও কমায় এটি। 

কর্মদক্ষতা বৃদ্ধি- 

দিনের শুরুতে শক্তিসমৃদ্ধ খাবার গ্রহণ করা আবশ্যক। একটি সেদ্ধ ডিম খেয়ে দিন শুরু করুন। ক্লান্তি তো দূর হবেই, সেই সঙ্গে বাড়বে কর্মদক্ষতা। ডিমে থাকা স্বাস্থ্যকর ফ্যাট এবং অন্যান্য পুষ্টিকর উপাদান মানবদেহের প্রয়োজনীয় জ্বালানির চাহিদা পূরণে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখে। 

প্রোটিন ও ভিটামিনের চাহিদা মেটাতে- 

নিয়মিত একটি করে ডিম খেলে দেহের অভ্যন্তরের প্রোটিন এবং ভিটামিনের চাহিদা পূরণ হয়। সেই সঙ্গে দূর হয় ফসফরাস, সেলেনিয়াম, ক্যালসিয়াম এবং জিঙ্কের ঘাটতিও। 

পেশির গঠনে- 

ডিমে রয়েছে অ্যালবুমিন নামে এক ধরনের প্রোটিন যা পেশির গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। তাই পেশির ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে নিয়মিত ডিম খান। 

বুদ্ধি বাড়াতে- 

বুদ্ধি বাড়াতে চান, ডিম খাওয়ার অভ্যাস করুন। ডিমে এমন সব পুষ্টিকর উপাদান রয়েছে যা বাড়িয়ে দেবে আপনার মস্তিষ্কের ক্ষমতা। নিয়মিত ডিম খাওয়ায় ফলে বিকাশ ঘটে বুদ্ধির। পাশাপাশি বৃদ্ধি পায় স্মৃতিশক্তি ও মনোযোগও। 

ওজন কমাতে-

অনেকেই ভাবেন, ডিম খেলে ওজন বাড়ে। এই ধারণাটি একদমই ভুল। ডিম খাওয়ার ফলে ওজন তো বাড়েই না, বরং কমে! পেনিংটন বায়োমেডিকাল রিসার্চ সেন্টারের করা এক গবেষণায় এ বিশয় প্রমাণিত যে প্রতিদিন সকালে একটি সেদ্ধ ডিম খেয়ে দুপুর পর্যন্ত বিনা ক্ষুধায় পার করা যায়। ফলে খাবার গ্রহণের প্রবণতা কমে আসে। 

এখন থেকে তবে নিয়মিত ডিম খাওয়ায় অভ্যাস করুন আর থাকুন সুস্থ, সবল। 
 

স্বাস্থ্য-ভোগান্তি, নতুন পরিচিত অসুস্থতার কথা জানাতে অথবা চিকিৎসকের কাছ থেকে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত পরামর্শ পেতেই-মেইলকরুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব এবং সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্য সমস্যার পরামর্শ দেবার প্রচেষ্টা থাকবে আমাদের।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড