• শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ক্রিম, ফোম নাকি জেল- শেভ করার জন্য কোনটি ভালো?

  সাদিয়া ইসলাম বৃষ্টি

০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৮:১৭
ছবি : সম্পাদিত

শেভ করার সময় পুরুষেরা জেল, ক্রিম ও ফোম— এই সবটাই ব্যবহার করে থাকেন। মূলত, নারীদের তুলনায় পুরুষের ত্বক বেশি শুষ্ক হয়ে থাকে। ফলে শেভ করতে গেলে এই অতিরিক্ত শুষ্কতা সমস্যার সৃষ্টি করে। ত্বক কেটে যাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতেই শেভ করার সময় কেবল পানি নয়, সেইসাথে ত্বকের উপরে একটা পিচ্ছিলভাব তৈরি করতে যেকোন একটি লুব্রিকেন্ট বা পিচ্ছিলকারক পদার্থ ব্যবহার করার প্রয়োজন পড়ে।

এই লুব্রিকেন্টগুলোর মধ্যেই সবচেয়ে জনপ্রিয় হল ফোম, জেল এবং ক্রিম। তবে হ্যাঁ, প্রত্যেকের কাজ এক হলেও কিন্তু এদের প্রভাব ত্বকের উপরে ভিন্নভাবে পড়ে। সেটা কীভাবে? চলুন, দেখে নেওয়া যাক।

ফোম বনাম ক্রিম-

ফোম ও ক্রিমের মধ্যে পার্থক্য খুব বেশি নেই। ফোম আগে থেকে তৈরি করা থাকে বিধায় এর ভেতরে বাতাসের পরিমাণ অনেক বেশি থাকে। ফলে ফোম ব্যবহার করে শেভ করার পর ত্বকে এক ধরণের জ্বলুনি বোধ হয়। অন্যদিকে, ক্রিমের ক্ষেত্রে এই সমস্যাটি থাকে না।

জেল কেন ব্যবহার করবেন?

ফোম ও ক্রিম ব্যবহার করে শেভ করলে অনেকেই নিজেদের ত্বককে বুঝতে পারেন না। অনেকের ত্বক বেশি প্রতিক্রিয়াশীল হওয়ায় হুট করে রেজর ত্বকের গভীরে চলে যেতে পারে, ফুসকুড়ি বা এ ধরণের সমস্যা তৈরি করতে পারে। এতে করে ব্যবহারকারীর দাড়ির যদি নির্দিষ্ট কোন আকৃতি থাকে সেটাকেও সঠিকভাবে রাখা সম্ভব হয় না।

এদিক দিয়ে জেল ব্যবহার করলে ব্যবহারকারী দেখতে পারেন যে রেজর কীভাবে কাজ করছে এবং কোন সমস্যা সৃষ্টি করছে কিনা। ফলে, ত্বকের নানারকম সমস্যা থেকেও মুক্তি পাওয়া যায়।

ক্রিম, ফোম নাকি জেল- কোনটি বেশি ভালো?

এই তিনটি লুব্রিকেন্টের প্রত্যেকটিই ভালো। আর কে ব্যবহার করছেন তার উপরেই মূলত নির্ভর করে যে, আদতে জিনিসটি ভালো নাকি নয়। একেক ব্যবহারকারীর কাছে ক্রিম, জেল ও ফোম ব্যবহারে একেকরকম অনুভূতি কাজ করে।

ফোমের ভেতরে তুলনামূলকভাবে বেশি অ্যালকোহল থাকে। তাই, যদি এটি আপনার ত্বকের সাথে না যায় তাহলে এটি ব্যবহার না করাই ভালো। ফোমের একটি পাত্রে বেশিরভাগটাই বাতাস দিয়ে ভর্তি থাকে। তাই, খুব কম সময় আপনি এটি ব্যবহার করতে পারবেন। ফোমে কোনো তেল না থাকায় এটি ত্বকে কাটা-ছেঁড়ার ঝুঁকি বাড়িয়ে তুলে। আপনি যদি খুব তাড়াহুড়োয় থাকেন, তাহলে ফোম কার্যকর হলেও, এটি ব্যবহারে অনেকগুলো সমস্যার মুখোমুখি হবেন আপনি।

অন্যদিকে, আপনার ত্বক যদি অনেক বেশি প্রতিক্রিয়াশীল হয়ে থাকে, সেক্ষেত্রে জেল ব্যবহার করাই বেশি ভালো। কেবল জেলের স্বচ্ছভাবের কারনেই নয়, এক্ষেত্রে জেল ত্বকে অনেক বেশি ময়েশ্চারাইজার উৎপাদন করে। তবে, জেল ব্যবহারের সময় চেষ্টা করুন টিউব জেল কিনতে। কারণ, ক্যানে ভর্তি জেল ত্বকের উপরে বাজে প্রভাব রাখে। জেল ব্যবহারের মাধ্যমে কেবল আপনি শেভ করতে পারবেন না, একইসাথে আপনার ত্বক পরিষ্কার হয়ে যাবে।

অন্যদিকে, তুলনামূলকভাবে ক্রিমে কম অ্যালকোহল থাকে। অনেক ব্যবহারকারীই সরাসরি টিউব থেকে বের করে ক্রিম ব্যবহার করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। এছাড়াও, এতে প্রচুর পরিমাণ গ্লিসারিন থাকায় সেটি ত্বকে অনেকটা সময়ের জন্য থেকে যায়। সহজেই কোনো কাজের জন্য, বাইরে যাওয়ার জন্য যারা নিজেদের প্রস্তুত রাখতে চান, তাদের ক্ষেত্রে শেভিং ক্রিম বেশি ভালো ফলাফল দেয়।

জেল, ক্রিম বা ফোম- কোনটা ব্যবহার করা ভালো বা সঠিক সেটা এর ব্যবহারকারীই বলতে পারবেন। ত্বক এবং অভ্যাসের উপরে ভিত্তি করে এই মতামত ভিন্ন হয়। তবে তার মানে এই নয় যে, এদের কোনটা অন্যটার চাইতে বেশি ভালো। তাই, প্রথমে নিজে ব্যবহার করে নিন। তারপর বাছাই করুন যে, ঠিক কোন লুব্রিকেন্টটি ব্যবহার করতে আপনার বেশি ভালো লাগছে।

সূত্র- মেনজএক্সপি

স্বাস্থ্য-ভোগান্তি, নতুন পরিচিত অসুস্থতার কথা জানাতে অথবা চিকিৎসকের কাছ থেকে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত পরামর্শ পেতেই-মেইলকরুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব এবং সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্য সমস্যার পরামর্শ দেবার প্রচেষ্টা থাকবে আমাদের।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড