• শুক্রবার, ০৩ জুলাই ২০২০, ১৯ আষাঢ় ১৪২৭  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ফোনে ৫ মিনিটের বেশি কথা নয় : ডা. মনিলাল

  নিজস্ব প্রতিবেদক

০৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ২০:৩০
মনিলাল আইচ লিটু
নাক কান গলা বিশেষজ্ঞ ডা. মনিলাল আইচ লিটু (ছবি : সংগৃহীত)

মোবাইল ফোন প্যান্টের পকেটে রাখলে পুরুষ-নারী উভয়েরই প্রজনন ক্ষমতা কমে যায়। বিশেষ করে পুরুষের ওপর খুব বেশি প্রভাব পড়ে। উত্তর আমেরিকা, ইউরোপ, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের পুরুষদের ওপর করা ৪০ বছরের গবেষণায় এ তথ্য মিলেছে।

গবেষণা দলের প্রধান ড. হ্যাগাই লেভিন বলেন, এভাবে স্পার্ম কাউন্ট কমতে থাকলে এক সময় মানুষ বিলুপ্ত হয়ে যেতে পারে।

এ সম্পর্কে রাজধানীর মুগদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের নাক কান গলা বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডাক্তার মনিলাল আইচ লিটু বলেন, মোবাইল ফোন রেডিয়েশন তৈরি করে। এ রেডিয়েশন শ্রবণ শক্তি নষ্ট করে। মোবাইল ফোনে একটানা ৫ মিনিটের বেশি কথা বলা ঠিক নয়। প্রয়োজনে ৫ মিনিট বিরতি দিয়ে কথা বলা উচিত। এতে যে রেডিয়েশন কানে বা মস্তিষ্কে যায় তা আবার স্বাভাবিক হয়। ফোনে কথা বলার ক্ষেত্রে এ পদ্ধতি মানা উচিত।

তিনি বলেন, সম্প্রতি গবেষণায় দেখা গেছে; মোবাইল রেডিয়েশনে মুখের লালাগ্রন্থি ক্যানসার হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়া হার্ট সমস্যা ও কানে কম শোনার প্রবণতা বাড়ছে। কানে শো শো শব্দ সমস্যা মোবাইল রেডিয়েশন থেকেই হচ্ছে।

ডা. মনিলাল আইচ বলেন, মোবাইল ফোন বুক পকেট বা প্যান্টের পকেটে রাখা যাবে না। বুকে রাখলে হার্টের ক্ষতি হবে। প্যান্টের পকেটে রাখলে পুরুষের প্রজনন ক্ষমতা বা শুক্রাণু উৎপন্ন কমে যাবে। নারীদেরও প্যান্টের পকেটে রাখা ঠিক নয়। কারণ তাদের ওভারি প্যান্টের পকেটের কাছেই থাকে। তাই তারাও সেই রেডিয়েশনের কবলে পড়বে।

ফোন ব্যবহারের ক্ষেত্রে হেড ফোন বা ব্লুটুথ ব্যবহার করা হলে রেডিয়েশনের প্রভাব থেকে অনেকটাই সুরক্ষা পাওয়া যাবে বলে জানান ডা. মনিলাল আইচ। তবে যোগাযোগের ক্ষেত্রে ফোন ব্যবহার না করে ল্যান্ডফোন ব্যবহার করাই সবচেয়ে ভালো বলে মনে করেন তিনি। ফোন হাতে বহন করা সবচেয়ে ভালো। সম্ভব হলে ফোন ব্যাগে নিতে পরামর্শ দেন এ ইএনপি বিশেষজ্ঞ।

লোকালয়ে মোবাইল ফোন টাওয়ার বসানো ইউরোপ আমেরিকায় আগে থেকেই নিষিদ্ধ। সম্প্রতি ভারতেও লোকালয়ে মোবাইল ফোন টাওয়ার বসানো নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এছাড়া উন্নত বিশ্বে এখন মোবাইল ফোন সেট বিক্রির সঙ্গে তার একটি ব্যবহার বিধিও দেওয়া হচ্ছে।

ওডি/এমআর

স্বাস্থ্য-ভোগান্তি, নতুন পরিচিত অসুস্থতার কথা জানাতে অথবা চিকিৎসকের কাছ থেকে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত পরামর্শ পেতেই-মেইলকরুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব এবং সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্য সমস্যার পরামর্শ দেবার প্রচেষ্টা থাকবে আমাদের।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড