• বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন

রান্না নয়, 'সেলাই' করে খাবার বানান তিনি!

  অধিকার ডেস্ক

১১ জুলাই ২০১৯, ১০:৩৬
বুনন শিল্প কেট জেনকিন্স
বুনন শিল্পী কেট জেনকিন্স (ছবি: কেট জেনকিন্সস্টুডিও)

মাটি দিয়ে তৈরি বিভিন্ন ধরনের ফলমূল, সবজি বা আরও নানা খাবারের দৃশ্য বেশ পরিচিত। শো-পিস হিসেবে ভিন্ন ধরনের বানানো এই জিনিসগুলো ঘরের শোভাবর্ধন বাড়ায়। আবার অনেকের কাছে নিতান্তই জমাতে ভালো লাগে বলে সংগ্রহে রাখেন। তবে উদ্দেশ্য যাই হোক না কেন সুন্দর এই জিনিসগুলো কিন্তু চাইলেই খাওয়া যায় না। এই পরিচিত দৃশ্যের বাইরে ভিন্ন ধরনের দৃশ্য হচ্ছে এই প্রতিটি খাবারই সেলাই দিয়ে অনন্য এক রূপে তুলে ধরেছেন শিল্পী! তিনি সুতা দিয়ে খাবার বুনন করেন। তার বানানো খাবারের তালিকায় আছে রুটি-কেক-পেস্ট্রি থেকে শুরু করে সামুদ্রিক মাছ পর্যন্ত।

কেট

কেটের তৈরি সুতা দিয়ে বানানো অসাধারণ শিল্পকর্ম (ছবি: কেট জেনকিন্স আর্ট)  

'সেলাই' করা খাবারের এ বুনন শিল্পীর নাম কেট জেনকিন্স। তার বসবাস ব্রিটেনের ব্রাইটন শহরে। তিনি সেখানেই কাজ করেন। তার কাজের মূল বৈশিষ্ট্য হচ্ছে বিভিন্ন খাদ্যকে শৈল্পিক ও কৌতূকের সঙ্গে তুলে ধরা। 

কেট

কেটের তৈরি সুতা দিয়ে বানানো অসাধারণ শিল্পকর্ম (ছবি: কেট জেনকিন্স আর্ট)  

রুচিশীল পরিবেশনা ও প্রায় নিখুঁত আকার-আয়তনের কারণে খাবারগুলো দেখে বোঝার কোনো উপায় নেই যে সেগুলো মোটেই আসল নয়। তার স্টুডিওতে রয়েছে প্রায় সব ধরনের, সব রঙের সুতা ও উল। কাজ নিয়ে কেটের মতামত হচ্ছে, মাথায় যদি কোনো আইডিয়া আসে তবে সেটা কার্যকর না করা পর্যন্ত সেটি তৈরির কাজ অব্যাহত থাকে। আসলে একটা সুতাকে বাস্তবসম্মত কোনো একটা জিনিস বানিয়ে ফেলার এই যে পুরো প্রক্রিয়া এটাই আমাকে উজ্জীবিত রাখে।

কেট  

কেটের তৈরি সুতা দিয়ে বানানো অসাধারণ শিল্পকর্ম (ছবি: কেট জেনকিন্স আর্ট)  

ভিন্নধর্মী আর সেই সাথে অসাধারণ এই কাজটি সবাইকে সরাসরি দেখানোর জন্য কেট অংশ নিয়েছিলেন বার্সেলোনা শহরের এক শিল্পমেলায়। সেখানে তিনি তার হাতে বুনন করা রুটি, কেক, পেস্ট্রি, নানা ধরণের সামুদ্রিক মাছসহ আরও অনেক কিছু নিয়ে উপস্থিত হয়েছিলেন। সেখানে তার স্টলের নাম ছিল, 'কেটস বক্স'। 

কেট

কেটের তৈরি সুতা দিয়ে বানানো অসাধারণ শিল্পকর্ম (ছবি: কেট জেনকিন্স আর্ট)  

মেলায় কুরুশশিল্পী কেট বলেন, একদম সত্যিকারের পাউরুটি সুতা দিয়ে তৈরি করা বেশ কঠিন কাজ। শুধু রুটি তৈরি করাই আমার প্রথম চ্যালেঞ্জ ছিল। তারপর বিভিন্ন ধারার বেকিং কেক নিয়ে গবেষণা করতে গিয়ে দুটি ধারাকে একসাথে করার একটা প্রয়াস নিলাম। আর মেলায় পাউরুটির পাশাপাশি বেকিং কাউন্টার রেখে দুটোর একসাথে মেলবন্ধন ঘটানোর চেষ্টা করলাম। আর এ কাজে তিনি বেশ সফলই হয়েছেন বলা যায়। কারণ তার তৈরি শিল্পকর্ম দেখে বার্সেলোনার মেলায় আসা দর্শনার্থীরা এক কথায় মুগ্ধ! তার এই মুগ্ধতা এখন ছড়িয়ে যাবে আন্তর্জাতিক গণ্ডিতেও। 

কেট

কেটের তৈরি সুতা দিয়ে বানানো অসাধারণ শিল্পকর্ম (ছবি: কেট জেনকিন্স আর্ট)  

যে শহরে তিনি বড় হয়েছেন সেখানকার রুক্ষ সমুদ্রতট ও সুস্বাদু মাছ তার ভীষণ পছন্দ। এই বিষয় থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে কেট আয়োজন করেছিলেন এওটি একক প্রদর্শনীরও। আর তাতেও তিনি সফল হয়েছিলেন দর্শকদের নতুন চমক দিতে। সে স্টল জুড়ে ছিল নানা ধরনের সী-ফুড। 

কেট

কেটের স্টুডিও (ছবি: কেট জেনকিন্স আর্ট)  

কাজ নিয়ে কেট বলেন, আমি নানা ধরনের জিনিস নিয়ে পরীক্ষা চালাই। কাজ করতে গিয়ে খেয়াল করলাম দুটি ভিন্ন সুতা একসঙ্গে বুনলে খুব সুন্দর আর বাস্তবসম্পন্ন একটা জিনিস বানিয়ে ফেলা যায়। পাউরুটি বানানোর সময় আমি লক্ষ্য রাখি বাদামি বিভিন্ন শেইড ব্যবহার করতে। নইলে সঠিক এফেক্ট বসানো কঠিন হয়ে যায়। 

কেট

কেটের তৈরি সুতা দিয়ে বানানো অসাধারণ শিল্পকর্ম (ছবি: কেট জেনকিন্স আর্ট)  

সেলাই করার বিষয়ে কেট বলেন, সঠিক স্টিচের জন্য আমি খুব সূক্ষ্ম সুঁই বেছে নিই। তারপর ছোট্ট এক ধরনের রাস্পবেরি তৈরি করে সেটি হাতে সেলাই করে কেকের উপর ঠিক জায়গায় বসিয়ে দেই। 

কেট

কেটের তৈরি সুতা দিয়ে বানানো অসাধারণ শিল্পকর্ম (ছবি: কেট জেনকিন্স আর্ট)  

কেক বানানোর বর্তমান প্রকল্প নিয়ে বেশ মেতে আছেন কেট। আর এ জন্য একটি বেকারিতে নিয়মিত যাতায়াত করছেন তিনি। বিশেষ করে পাউরুটি আর কেকের দোকানগুলোতে সব ধরনের সম্ভাব্য পণ্যের খোঁজ তিনি নিয়মিত চালিয়ে যান। 

খুব দ্রুত কেটের এই কাজ পরিচিতি পেতে চলেছে আন্তর্জাতিক স্তরে। এই কাজ করতে গিয়ে কেটের সবচেয়ে ভালো লাগে যে বিষয় সেটি হচ্ছে, এই খাবারগুলো কখনো পুরনো বা বাসি হয় না। সব সময় প্রথম দিনের মতই নতুন থাকে। 

তথ্যসূত্র: ডয়েচে ভেলে 

ওডি/এএন 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড