• বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০১৯, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন

পিরামিডে সন্ধান মিলল ৪৫০০ বছর পুরাতন কবরের

  জুবায়ের আহাম্মেদ ০৬ মে ২০১৯, ০৯:৫৮

পিরামিড
মিশরের গিজার পিরামিডের দক্ষিণ পূর্ব পাশে খননকাজে ৪৫০০ বছর আগের দুটি প্রাচীন কবরের সন্ধান পেয়েছে মিশরের প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর (ছবি: লাইভসায়েন্স)

মিশরের পিরামিড নিয়ে গল্প আর লোককথা যেন কোনভাবেই শেষ হবার নয়। মমি তৈরি, পিরামিডের আকার বা আয়তন, স্থাপত্য শৈলি সব মিলিয়ে পিরামিড রহস্য ছিল, রহস্য আছে, হয়ত থেকে যাবে ভবিষ্যতেও। পিরামিডের সামনে থাকা সিংহ মূর্তি স্ফিংস নিয়েও আছে জল্পনা কল্পনা। অনেকেই এখান থেকেই খুঁজে পেতে চান এলিয়েন সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তরগুলোও। এতকিছুর ভীড়ে সম্প্রতি আরেক খবর হাজির করেছে মিশরের প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর। মিশরের বিশ্বখ্যাত গিজার পিরামিডের দক্ষিণ পূর্ব পাশে খননকাজে নতুন করে দুটি প্রাচীন কবরের সন্ধান পেয়েছে দেশটি। গত ৪ তারিখ এ ব্যাপারে সংবাদমাধ্যমে বিস্তারিত জানায় দেশটির সরকার।

নতুন করে এই আবিষ্কার কেবল যে দুটি কবরের মাঝেই সীমাবদ্ধ তা অবশ্য নয়। বেশ কিছু প্রাচীন মন্দির এবং সমাধি একই সাথে মাটির নিচ থেকে তাদের অস্তিত্ব এ দফায় জানান দিয়েছে। এর মাঝে সবচেয়ে পুরাতন ধারণা করা মন্দিরের সাথে পাওয়া গিয়েছে প্রাচীন দুই কবরের সন্ধান। এতে আছে আলাদা দুটি নামও। ‘বেনুই-কা’ এবং ‘নাউই’ নামের দুটি নাম কবরের গায়ে পাওয়া গিয়েছে বলে সরকারী গণমাধ্যমে প্রকাশ করা হয়েছে। দুটি সমাধিক্ষেত্রেই মমি এবং প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী নকশার পূর্ণ নিদর্শন এখন পর্যন্ত অক্ষত আছে বলেই ধারণা করছেন গবেষকরা। যদিও এ ব্যাপারে বিস্তারিত এখন পর্যন্ত জানা হয়নি তবে মন্দিরের গঠন এবং হায়ারোগ্লিফিক নিদর্শন অনুযায়ী কবর দুটির বয়স আজ থেকে ৪৫০০ বছর আগের মিশরের ৫ম রাজবংশের সময়কালের বলে নিশ্চিত হচ্ছেন প্রত্নতাত্ত্বিক গবেষকরা। এবং ততদিনে মিশরের বুকে মাথা তুলে দাঁড়িয়েছিল গিজার বিখ্যাত পিরামিড।

সমাধি দুটির গায়ে খোদাই করা শিলালিপি থকে দুজনের পরিচয়ও উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে মিশরের প্রত্নতাত্ত্বিক গবেষকদল। ‘বেনুই-কা’ এর সমাধিতে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী তিনি ছিলেন মূলত একজন যাজক এবং বিচারক। মিশরের ফারাও কর্তৃক তিনি বেশ কিছু উপাধিও পেয়েছিলেন। এর মাঝে সবচেয়ে বড় উপাধি হিসেবে লেখা ছিলো, ‘মহান রাজা কাফরি, উসারকাফ এবং নুসেইরির ধর্মযাজক।’ ঐতিহাসিক সূত্র মতে কাফরিই ছিলেন সেই ফারাও যার নির্দেশে গিজায় প্রথমবারের মত পিরামিডের নির্মাণ শুরু হয়। অন্যদিকে উসারকাফ এবং নুসেইরি দুজনেই মিশরের ৫ম রাজবংশের ফারাও হিসেবে মিশরের শাসনকাজ পরিচালনা করেছিলেন।

একই রকমের বর্ণনা মিলেছে ‘নাউই’ এর সমাধিতেও। তার সমাধিতে হায়ারোগ্লিফিতে লিখিত আছে ‘মহান রাজ্যের প্রধান রক্ষক’ এবং ‘রাজা কাফরি এর ধর্মযাজক’। যদিও এসব শিলালিপি কতটা বিশ্বাসযোগ্য এবং এর মূল অর্থ কি তা নিয়ে এখনো গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন গবেষকরা। দুই সমাধিমিলিয়ে বিপুল পরিমাণ প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনের সন্ধান পেয়েছেন গবেষকরা। এর মাঝে আছে একটি মূর্তি যা ‘বেনুই-কা’ কিংবা ‘নাউই’ এর যেকারো বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

প্রত্নতাত্ত্বিকদের বিশ্বাস মূল সমাধি দুটি ৪৫০০ বছরের পুরাতন হলেও প্রায় ২৬০০ বছর আগে এর পুনঃব্যবহার ঘটেছিল। সেসময় আরো কিছু মানুষকে সেখানে সমাধিস্থ করা হয় বলে নিশ্চিত করেছে একাধিক সূত্র। অবশ্য এ নিয়ে খুব বেশি চিন্তা করছেন না গবেষকরা। অন্তত প্রাচীন মিশরে এমন ঘটনা যেহেতু একেবারেই সাধারণ একটি ব্যাপার ছিলো।

সদ্যপ্রাপ্ত এই দুই সমাধির পাশেই রয়েছে গিজার পিরামিড নির্মাণে যুক্ত একাধিক ফারাও এর সমাধি যা এই দুই সমাধির ব্যাপারে মিশরকে আরো আগ্রহী করে তুলেছে বলে মন্তব্য করেছেন সরকারের প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের সাবেক মন্ত্রী জাহি হায়াস। মিশরের প্রত্নতাত্ত্বিক গবেষণার সর্বোচ্চ কর্মকর্তা প্রত্নতাত্ত্বিক মোস্তফা ওয়াজিরির নেতৃত্বে পুরো খননকার্য পরিচালিত হয়। এ নিয়ে আরো গবেষণা চালিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন ওয়াজিরি।

তথ্যসূত্র: লাইভ সায়েন্স

ওডি/এএন

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড