• শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯, ৮ চৈত্র ১৪২৫  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন

কটেনিয়াস হর্ন : শিং গজাতে পারে আপনার মাথায়ও!

  অধিকার ডেস্ক    ০৭ মার্চ ২০১৯, ১১:৫০

কটেনিয়াস হর্ন
কটেনিয়াস হর্নে আক্রান্ত একজন বৃদ্ধা (ছবি : ইন্টারনেট)

ছোটবেলায় শোনা কুসংস্কারগুলোর মধ্যে একটি হলো কারও মাথায় মাথায় একবার ঠোকা লাগলেই নাকি শিং গজায়। আর তাইতো একবার ঠোকা লাগলে নিজে আরেকবার ঠুকে নেন। এমনটাই নিয়ম হয়ে গেছে আরকি। তা না হলে যে কপালে গজাবে শিং! 

ঠোকা লাগলে শিং গজানোর ব্যাপারটি কুসংস্কার হলেও মানুষের মাথায় কিন্তু সত্যিই শিং গজাতে পারে। সেই শিং এর দৈর্ঘ্য হতে পারে ২ ইঞ্চি থেকে শুরু করে ৫ ইঞ্চিও। কিন্তু কেন গজায় শিং? এর পেছনে রহস্য কী? চলুন জেনে নেওয়া যাক- 

একটি বিশেষ চর্মরোগের কারণে মানুষের দেহেও গরু, ছাগল বা হরিণের ন্যায় শিং গজাতে পারে। চিকিংসা বিজ্ঞানের ভাষায় এই সমস্যাকে ‘কটেনিয়াস হর্ন’ বলা হয়। চিকিৎসকদের মতে এটি এক ধরনের স্কিন টিউমার। 

এই রোগের নির্দিষ্ট কারণ বিজ্ঞানীরা এখনও উদ্ধার করতে পারেননি। তবে অনেকের মতে আমাদের শরীরে নখ, চুল গঠনকারী প্রোটিন কেরাটিনের মাত্রাতিরিক্ত ক্ষরণের ফলে এই ‘কটেনিয়াস হর্ন’ হয়ে থাকে। সূর্যের অতিরিক্ত বিকিরণের ফএল এ রোগ হয়ে থাকে। এছাড়াও, অস্বাভাবিক হারে আঁচিল বৃদ্ধির হার থাকলেও এটি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। 

মার্কিন গবেষকদের মতে ‘কটেনিয়াস হর্ন’ মূলত এক ধরনের ত্বকের ক্যানসার কিংবা ক্যানসারের পূর্ববর্তী ক্ষত। ত্বকের যে স্থানে এ সমস্যা হয় সেখানে জ্বালা বা যন্ত্রণা হতে পারে, মারাত্মক রক্তক্ষরণ হওয়ার সম্ভাবনাও থাকে। 

‘কটেনিয়াস হর্ন’ সমস্যার কোনো চিকিৎসা এখনও আবিষ্কৃত হয়। অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে শরীরে গজানো শিং কেটে ফেলা যায়। অনেকসময় ওষুধের মাধ্যমে পুড়িয়ে এর বৃদ্ধির গতি কমানো হয়। কিছুকিছু ক্ষেত্রে থেরাপির সাহায্যও নেওয়া হয়। কেবল কপাল বা মাথা হয়, কটেনিয়াস হর্নের কারণে কান, ঘাড়, হাঁটু কিংনা কনুইয়েও শিং গজাতে পারে। 

নিজের দেহের খেয়াল রাখুন। কখনো কোনো প্রকার অসঙ্গতি দেখা দিলে ডাক্তারের পরামর্শ নিন। 
 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড