• মঙ্গলবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ৪ পৌষ ১৪২৬  |   ১৯ °সে
  • বেটা ভার্সন

সর্বশেষ :

শিরোনাম :

থেরেসা মে : ব্রেক্সিট ইস্যুতে ব্রিটিশ পার্লামেন্টে ভোট জানুয়ারিতে||'নির্বাচনে জনগণের অধিকার নিশ্চিত করতে ব্রিটিশ সরকারের পদক্ষেপ আহ্বান'||রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রস্তাব আলোচনা বর্জন করেছে চীন ও রাশিয়া||৩০০ কোটি টাকায় দুটি রুশ হেলিকপ্টার কিনছে বিজিবি||বরখাস্ত ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কোচ হোসে মরিনহো||সু চি’কে দেওয়া পুরস্কার প্রত্যাহার করল দক্ষিণ কোরিয়া||নির্বাচনি পরিবেশ স্বাভাবিক, লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডও বিদ্যমান : সিইসি||জামায়াতের ২২ নেতার ‘ধানের শীষ’ বাতিলে আদালতে রুল||যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠকে বসেছে বিএনপি   ||প্রতিশোধের রাজনীতি বন্ধের অঙ্গীকার করল বিএনপি 

দুনিয়া শাসিয়ে বেড়ানো সেরা পাঁচ শাসক

  ফারিয়া এজাজ ২৯ অক্টোবর ২০১৮, ১৫:৫৪

সেরা শাসক
ছবি : সম্পাদিত

যুগে যুগে কতশত শাসক পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে তাদের শাসন চালিয়েছেন। তাদের একেক জনের শাসনের ধারা ও ইতিহাস একেক রকম। আজকের লেখায় ইতিহাসে সর্বাধিক সমাদৃত কয়েকজন শাসকের কথা তুলে ধরা হল- 

১। ওডিসিইয়াস- 

গ্রিক পৌরাণিক কাহিনীতে, ওডিসিয়াস ইথাকা এর গ্রিক রাজা ছিলেন এবং তাঁর কৃতিত্ব এতটাই যে, তিনি হোমরের মহাকাব্য দ্য ওডিসিতে অমর হিসেবে জায়গা করে নিয়েছেন। ওডিসিইয়াসের সুপরিচিত বুদ্ধিমত্তা ও দক্ষতা তার রণশীল নৈপুণ্য বা কারিগরিতে সম্পূরক হিসেবে কাজ করেছে। ওডিসিয়াস ট্রোজান যুদ্ধে (বিখ্যাত প্রাচীন নগরী ট্রয়ের যুদ্ধ) বেশ কৌশলে একটি কাঠের ঘোড়া বানিয়ে সেখানে সৈনিকদের লুকিয়ে রেখেছিলেন। যখন ট্রোজানরা সেই ঘোড়াটিকে তাদের শহরে নিয়ে যায়, ঠিক তখনই ট্রয় নগরীর অভেদ্য দেয়ালের পাশ থেকে গ্রিকরা চলে যায়। এছাড়াও ওডিসিয়াস স্বার্থপর অত্যাচারীদের হাত থেকে তার ইথাকা রাজ্য ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছিল এবং নিজে একাই তার পুরো রাজ্যকে রক্ষাও করেছিল। 

২। সিযার- 

সিযার অগাস্টাস্‌ নামেও বেশ সুপরিচিত। তিনি রোমান সাম্রাজ্যের প্রথম সম্রাট হয়েছিলেন এবং ২৭ খ্রিস্টপূর্ব থেকে তার গুপ্তহত্যা ১৪ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত এই সাম্রাজ্য শাসন করেছেন। তার শাসনামলে এক ধরনের অজানা শান্তি এবং স্থিরতার যুগ তৈরি হয়েছিল যা প্যাক্স রোমানা হিসেবে পরিচিত। এটি ছিল এমন এক রকমের কৌশল বা কৃতিত্ব যা আগে কখনো সম্পন্ন করা হয়নি। সিযার সম্পূর্ণ ক্ষমতা অর্জন করার চেষ্টা করত। তবে এর জন্য তাকে কখনোই তার পূর্ববর্তী কোনো শাসকদের মতো মিথ্যা প্রতিশ্রুতি করতে বা মিথ্যা বলতে হয়নি। 

৩। রানী প্রথম এলিজাবেথ- 

রানী প্রথম এলিজাবেথ ১৫৫৮ সাল থেকে তার মৃত্যু পর্যন্ত ইংল্যান্ড ও আয়ারল্যান্ডের রানী ছিলেন। তার ছিল নানান রকমের ডাকনাম। আর সেগুলোর মধ্যে সবচাইতে বেশি জনপ্রিয় ডাকনামটি ছিল ‘ভার্জিন কুইন’। কারণ তিনি কখনোই কোনো রাজার ওপর নির্ভরশীল না হয়ে নিজেই একা হাতেই পুরো রাজ্য শাসন করেছিলেন এবং বেশ ভালভাবেই এই কাজটি সম্পাদন করেছিলেন। 

সে সময়ে রানী প্রথম এলিজাবেথ একজন নারী শাসক হিসেবে আদর্শ হিসেবে বিবেচিত হয়েছিলেন। শুধু তাই নয়, তিনি ইতিহাসের সবচাইতে সফল নারী শাসকদের মধ্যে একজন। তার শাসনামলের আগে, বেশিরভাগ নারীদেরই খুব একটা উপযুক্ত বা মানানসই হিসেবে মনে করা হতো না এবং তারা ছিলেন পুরুষ শাসকদের অধীনে। রানী প্রথম এলিজাবেথ নিজেকে পুরুষদের সমকক্ষ হিসেবে এবং শাসক হিসেবে পুরুষদের চাইতেও বিচক্ষণতার প্রমাণ দিতে সফল হয়েছে। 

৪। জোসেফ দ্বিতীয়- 

১৭৬৫ থেকে ১৭৯০ সাল পর্যন্ত জোসেফ দ্বিতীয় ছিল রোমের সম্রাট। তিনি হাউজ অব লরেনের অস্ট্রিয়ান শাসকদের মধ্যে প্রথম শাসক ছিলেন। জোসেফ দ্বিতীয় সম্ভবত ইতিহাসের সবচাইতে নিঃস্বার্থ শাসকদের মধ্যে একজন ছিলেন। ক্ষমতার চরম শিখরে থেকেও যে কেউ দুর্নীতির ধরা ছোঁয়ার একেবারে বাইরে থাকতে পারে, তা জোফেস দ্বিতীয়কে না জানলে বোঝা অসম্ভব। তিনি সত্যিকার অর্থে, তাই চাইতেন যা তার রাজ্যের মানুষদের জন্য ভালো। এমনকি তিনি দাসত্ব এবং ভূমি দাসত্বেরও অবসান ঘটিয়েছেন। 

৫। নেপোলিয়ান- 

ফ্রান্সের নেপোলিয়ান প্রথম পরবর্তী সময়ে সম্রাট নেপোলিয়ান হিসেবে পরিচিতি পায়। তিনি ছিলেন ফ্রান্সের সেনাবাহিনীর বিশিষ্ট সদস্য এবং রাজনৈতিক নেতা। আর উনবিংশ শতাব্দীর প্রথমদিকে তিনি ইউরোপের রাজনীতিতে বেশ গভীর প্রভাব ফেলেছিলেন। তিনি মূলত মহাদেশীয় ইউরোপকে তার বিশেষ সামরিক কৌশল ও বুদ্ধিমত্তা দিয়ে শাসন করেছিলেন। ১৮১২ সালে রাশিয়ার ওপর ফ্রান্সের আক্রমণ হওয়া অবধি তার এই সমৃদ্ধি অব্যাহত ছিল এবং পরবর্তী সময় ক্রমাগত এর পতন ঘটে। 

এদের মধ্য থেকে কোন শাসক সম্পর্কে জেনে আপনার ভালো লাগল? 

তথ্যসূত্র : টপটেনজ 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড