• সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ৪ ভাদ্র ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন

মিথ্যা বললে ধরা যাবে সহজেই : গবেষণা

  ভিন্ন খবর ডেস্ক

১০ আগস্ট ২০১৯, ১৯:৩০
মিথ্যা
মিথ্যা বললে ধরে ফেলা যাবে চোখের নড়াচড়া দেখেই। (ছবি : প্রতীকী)

জীবন ধারণের জন্য মানুষকে নানা রকম কাজ করতে হয়। এসব কাজ করতে গিয়ে একজনের সাথে আরেকজনের সংযোগ স্থাপিত হয়। দৈনন্দিন নানা কাজে বলা হয়ে থাকে অনেক কথা। এসব কথা বলতে গিয়ে মানুষ অনেক ক্ষেত্রে মিথ্যাও বলে থাকে। বলা হয়ে থাকে পৃথিবীতে মানুষ ছাড়া অন্য কোন প্রাণী মিথ্যা বলে না। মানুষের মিথ্যার ধরন দেখে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই বোঝা যায় না এটি মিথ্যা না সত্য। মিথ্যা বলাকে এক প্রকার মানসিক রোগ বলে অভিহিত করেছেন মনোবিজ্ঞানীরা।

কেউ যদি আপনার কাছে এসে মিথ্যা কথা বলে তাহলে কেমন করে বুঝবেন? দীর্ঘদিন থেকেই এ নিয়ে গবেষণা করে আসছেন বিজ্ঞানীরা। মিথ্যা বলার সময় ধরে ফেলার বেশ কিছু উপায়ও বের করে ফেলেছেন তারা। সম্প্রতি তেমনি একটি গবেষণার ফল প্রকাশ করা হলো।

স্কটল্যান্ডের একটি গবেষণা প্রতিষ্ঠানের করা এই গবেষণাটিতে গবেষকরা মিথ্যা শনাক্ত অরার একটি পদ্ধতিও আবিষ্কার করেছেন বলে জানা গেছে। এই পদ্ধতিতে মানুষের চেহারা চেনার বিষয়ে মিথ্যা বললে তা ধরা সম্ভব হবে। স্কটল্যান্ডের স্টার্লিং বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা কম্পিউটার স্ক্রিনে দেখানো ছবির সঙ্গে চোখের নড়াচড়া পর্যবেক্ষণ এই পদ্ধতিতে মিথ্যা শনাক্ত করতে পেরেছেন বলে জানিয়েছেন।

কনফেস নামক এই গবেষণা প্রকল্পটির নেতৃত্ব দিয়েছেন স্টার্লিং বিশ্ববিদ্যালয়ের সাইকোলজির গবেষক অ্যালিসা মিলেন। তিনি জানান, " অপরাধীর পরিচয় শনাক্ত করার সময় অনেকেই নিজেকে বাঁচাতে মিথ্যা কথা বলে থাকেন। এই ক্ষেত্রে ই পদ্ধতিটি বেশ কাজে দেবে।"

নানা ধরনের অপরাধের ক্ষেত্রে অপরাধীর ছবি শনাক্তের প্রয়োজন পড়ে পুলিশের। এটি খুবই স্বাভাবিক একটি প্রক্রিয়া। কিন্তু যাদের দিয়ে অপরাধী শনাক্ত করা হয় অনেকক্ষেত্রেই দেখা যায় তারা মিথ্যা বলে আসল অপরাধীকে পাড় করে দিতে। নিজেকে বাঁচাতে কিংবা বাড়তি ঝামেলা এড়াতে এমনটা করেন তারা। এই পদ্ধতিটি কাজে লাগালে এই ধরনের কাজ একদম কমে আসবে বলে জানিয়েছেন গবেষকরা।

কনসিলড ইনফরমেশন টেস্ট (সিআইটি) নামের এই পদ্ধতি প্রয়োগ করে জাপানের একদল পুলিশ এরই মধ্যে সাফল্যও পেয়েছেন। চোখের নড়াচড়া দেখে তথ্য লুকানোর বিষয়টি ধরে ফেলা যায় খুব সহজেই। মিথ্যা চিহ্নিত করার আর যে সব উপায় আছে তার চেয়ে এটি বেশ কার্যকর বলে জানিয়েছেন গবেষকরা।

ওডি/এসএম

আপনার চোখে পড়া অথবা জানা অন্যরকম অথবা ভিন্ন স্বাদের খবরগুলোও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। তাই সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড