• শনিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

স্ত্রীর মুখে হাসি ফোটাতে ৮ মাস পর হারানো আংটি উদ্ধার!

  ভিন্ন খবর ডেস্ক

০২ জুলাই ২০১৯, ০৯:২৭
আংটি
ছবি : প্রতীকী

ভালোবাসার মানুষের জন্য কত কিছুই না করে থাকি আমরা। প্রিয়জনের মুখে একটুখানি হাসি দেখবো বলে অসাধ্যও সাধন করতে প্রস্তুত থাকি আমরা। ভালোবাসার মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে মানুষ কী করতে পারে তারই নতুন উদাহরণ হলেন ড্রিউ হাস্কি। কিন্তু কী করেছেন তিনি? 

৮ মাস আগের কথা। মার্কিন দম্পতি ড্রিউ হাস্কি ও কিয়ান এমিলি ইয়াং ঘুরতে গিয়েছিলেন কানাডায়। সেখানে একটি সড়ক দুর্ঘটনায় নিজের বিয়ের আংটি বরফে হারিয়ে ফেলেন এমিলি, যার মূল্য প্রায় ৭ লাখ টাকা। 

শখের আর বিশেষ আংটিখানা হারিয়ে এমিলি হয়ে যান মনমরা। বিমর্ষ স্ত্রীর মুখে ফের হাসি ফোটাতে প্রায় ৮ মাস পর কাউকে কিছু না জানিয়ে কানাডা চলে যান হাস্কি। এরপর যে স্থানে আংটিটি হারিয়েছিল সেখানে এক ধাতু শনাক্তকারী বিশেষজ্ঞের সাহায্য নিয়ে খুঁজে বের করলেন সেই হারিয়ে যাওয়া আংটি। আর ফিরে এসে তা উপহার দিলেন স্ত্রীকে। 

হাস্কি বলেন, ‘আংটি হারানোর পর এমিলি চিৎকার করে কান্নাকাটি করে। ওর কান্না আমি সহ্য করতে পারিনি। সেদিনই প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়েছিলেন, এই আংটি আমি খুঁজে বের করবোই। সেসময় আমরা দুজন প্রায় ঘণ্টা তিনেক ধরে আংটিটি খুঁজেছিলাম কিন্তু পাইনি। 

আমি জানতাম ওই অঞ্চলে মে মাসে বরফ গলতে শুরু করে। আমার কয়েকজন বন্ধুর সঙ্গে পরামর্শ করার পর রিং ফাইন্ডার নামে ওয়েবসাইটির কথা জানতে পারি। 

তিনি আরও জানান, "এই ওয়েবসাইটে আমি একজন ধাতু শনাক্তকারী বিশেষজ্ঞ, সাইড কন্টেনের খোঁজ পাই। তিনি ও তার ছেলে টাইলাম আমাকে আংটিটি উদ্ধার করে দেন।’

বাড়ি ফিরে স্ত্রীকে আংটিটি নতুন করে উপহার দেন হাস্কি। সেটি দেখে এমিলির অভিব্যক্তি কেমন ছিল? 

হাস্কি জানান, ‘আংটিটি দেওয়ার পর ওর মুখের ওই অভিব্যক্তি দেখেই আমার প্রাণ জুড়িয়ে যায়। ওই হাসিটা দেখব বলেন আংটিটা খুঁজে আনতে গিয়েছিলাম।’

ওডি/এনএম 

আপনার চোখে পড়া অথবা জানা অন্যরকম অথবা ভিন্ন স্বাদের খবরগুলোও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। তাই সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড