• রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ব্রোঞ্জের পাত্রের দাম ৪১ কোটি ৭০ লাখ টাকা!

  ভিন্ন খবর ডেস্ক

২৬ জুন ২০১৯, ০৯:৩০
পাত্র
ছবি : সংগৃহীত

ব্রোঞ্জের তৈরি একটি পাত্র, তার শরীরজুড়ে রয়েছে দারুণ কারুকাজ। সপ্তদশ শতাব্দীতে চীনে তৈরি হয়েছিল এই পাত্রটি। এক দম্পতি চীনে বেড়াতে গিয়ে সেই পাত্রটি সংগ্রহ করেছিলেন। তারা কারুকাজ করা এই পাত্রটিতে টেনিস বল রাখতেন। 

সম্প্রতি সেই পাত্রটিই বিক্রি হয়েছে। আর তা প্রায় আকাশছোঁয়া দামে। হ্যাঁ, প্রায় ৪২ কোটি টাকার বিনিময়ে বিক্রি হয়েছে পাত্রটি। জানা যায়, কিছুদিন আগে সুইজারল্যান্ডের এক নিলাম বিশারদের চোখে পড়ে ব্রোঞ্জের সেই পাত্রটি। তিনি পরিবারটিকে বোঝান যে এই পাত্রটি কেন এত অমূল্য। 

এরপর হংকংয়ে আয়োজিত এক নিলামে পাত্রটি প্রদর্শিত হলে ৪৮ মিলিয়ন সুইস ফ্রাঙ্কে বিক্রি হয় পাত্রটি। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা ৪১ কোটি ৭০ লাখ টাকারও বেশি। সুইজারল্যান্ডের ঐ দম্পতি বাড়ির টেবিলে পাত্রটিকে সাজিয়ে রাখতেন আর তাতে রাখতেন ব্যবহার অযোগ্য টেনিস বল। তাদের বিশ্বাস ছিল, সেখানে নষ্ট টেনিস বল রাখলে শুভ কিছু ঘটবে। 

সাধারণ পাত্রটিই নিলাম বিশারদের চোখে অমূল্য করে তোলে। এরপর ওই ব্যক্তি তার প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে সেই পাত্র নিলামের ব্যবস্থা করেন। তারপরই কোটি টাকায় বিক্রি হয় সেটি। পাত্রটি নিলামে এই প্রথম তোলা হয়নি। এর আগেও পাত্রটিকে নিলামে তুলেছিলেন ঐ দম্পতি। কিন্তু জার্মানির মিউজিয়াম ও লন্ডনের একটি নিলাম সংস্থা পাত্রটির ব্যাপারে অতটা উৎসাহী না হয়ে ফিরিয়ে দেয়।

নিলামে পাত্রটি কিনেছে কলার অকশন নামের একটি সংস্থা। অন্যদের মতো ভুল তারা করেনি। এমনটাই তাদের ধারণা। কলার অকশনের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘যখন এটা তৈরি হয়েছিল তখন পৃথিবীর অন্যান্য স্থানে ব্রোঞ্জের ওপর কাজের নিদর্শন খুব একটা দেখা যেত না। আর এই কারণেই এটি এতটা অমূল্য।’

ওডি/এনএম 

আপনার চোখে পড়া অথবা জানা অন্যরকম অথবা ভিন্ন স্বাদের খবরগুলোও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। তাই সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড