• সোমবার, ২২ জুলাই ২০১৯, ৭ শ্রাবণ ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন

ট্রেনে করে হাতি নেওয়ার সিদ্ধান্তে ভারতে সমালোচনার ঝড়

  ফিচার ডেস্ক

২১ জুন ২০১৯, ২২:৫৯
হাতি
ছবি : প্রতীকী

চারটি হাতিকে ট্রেন ভ্রমণ করানো হবে এমন খবর প্রকাশ পাওয়ায় ভারতে বইছে সমালোচনার ঝড়। খবরে বলা হয়েছে ধর্মীয় এক অনুষ্ঠানে নিয়ে যেতে চারটি হাতিকে দীর্ঘ পথ ট্রেনে করে নিয়ে যাওয়া হবে। যার দূরত্ব ১৯২৬ মাইলের কিছু বেশি। আসাম রাজ্য সরকার সম্প্রতি এমন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। ফলে সমালোচনার ঝড় বইছে গণমাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে।

জানা গেছে , হাতি চারটাকে আসামের তিনসুকিয়া থেকে নিয়ে যাওয়া হবে আহমেদাবাদে। একটি মন্দিরে পদযাত্রার অনুষ্ঠানে অংশ নেওাতেই হাতিগুলোকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে সেখানে। আসাম থেকে গুজরাটে  এই দীর্ঘ ট্রেন জার্নিতে হাতিগুলো মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়তে পারে।  এমনকি মৃত্যুর মুখেও পড়তে পারে বলে ধারণা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

এত সমালোচনার পরও পিছিয়ে নেই আসাম রেল কতৃপক্ষ। তারা তাদের সর্বাত্মক প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে হাতিগুলো নেওয়ার ব্যাপারে। পুরো একটি বগিতে করে নেওয়া হবে বিশাল আকারের এই চারটি হাতিকে। ধারণা করা হচ্ছে অনুষ্ঠানটিতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী উপস্থিত থাকবেন। আর তাই এমন তোড়জোড় শুরু করেছে আসামের প্রশাসন। 
ট্রেন ভ্রমণের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হলেও কত তারিখ হাতিগুলোকে নিয়ে যাওয়া হবে সে বিষয়ে কিছু জানা যায়নি। তবে ধারণা করা হচ্ছে জুলাই মাসের প্রথম সপ্তাহের আগেই সেখানে পৌঁছুবে হাতিগুলো।

আহমেদাবাদের যেই মন্দিরে এই আয়োজনটি করা হচ্ছে সেখানকার ট্রাস্টি মাহেন্দ্র ঝা এর কাছ থেকে জানা গেছে হাতি নেবার মূল কারণ। গত বছর বয়সের কারণে তিনটি হাতির মৃত্য ঘটেহে মন্দিরটিতে। তাই আপাতত মাস দুইয়ের জন্য চারটি হাতি ধার করে নিয়ে আসা হচ্ছে আসাম সরকারের কাছ থেকে।

তবে মানবাধিকার কর্মীরা এই ঘটনায় ক্ষেপে গেছেন। এত দীর্ঘপথ ট্রেনে করে নিয়ে যাওাকে তারা ‘নিষ্ঠুর’ বলে ঘোষণা দিয়েছেন। তাদের মতে, এটি অত্যন্ত নিম্মশ্রেণীর একটি কাজ। একই সাথে বড় ধরণের অপরাধ। এত গরমের মধ্যে এই অমানবিক কাজটি না করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তারা। তারা বলছেন, এই ভ্রমণে হাতিগুলো হিটস্ট্রোকে আক্রান্ত হতে পারে। এমনকি মৃত্যু হওয়াটাও স্বাভাবিক।

আইনত কোন হাতিকে ৩০ কিলোমিটারের বেশি পথ হাঁটিয়ে নিয়ে যাওয়া যাবে না। এমনকি একটানা ছয় ঘণ্টার বেশি ভ্রমণও করানো যাবেনা কোন হাতিকে।

ওডি/এসএম 

আপনার চোখে পড়া অথবা জানা অন্যরকম অথবা ভিন্ন স্বাদের খবরগুলোও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। তাই সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড