• শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২১ °সে
  • বেটা ভার্সন

সদ্যোজাত কন্যা সন্তানকে বিয়ে দেওয়ার রীতি যাদের!

  অধিকার ডেস্ক    ০৫ নভেম্বর ২০১৮, ১২:০৫

বিয়ে
ছবি : সংগৃহীত

বিয়ের ক্ষেত্রে নারীর বয়স কমপক্ষে ১৮ আর পুরুষের বয়স কমপক্ষে ২১ হওয়া আবশ্যিক আমাদের সমাজে। কোনো কোনো দেশে এর একটু কম-বেশি হতে পারে। কিন্তু কখনো কি সদ্যজাত শিশুর বিয়ের কথা শুনেছেন? সম্প্রতি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি’র করা এক প্রতিবেদনে উঠে এসেছে এমনই এক সম্প্রদায়ের কথা, যেখানে সদ্যোজাত কন্যা সন্তানের বিয়ে দেওয়া হয়। 

চলছে বিয়ের অনুষ্ঠান। বর ইব্রাহিমের বয়স ১৩ বছর। অন্যদিকে কনের বয়স ১৩ ঘণ্টাও হয়নি। সদ্যোজাত কন্যা শিশুটির হাতে লতা-পাতা পরিয়ে দিচ্ছেন ইব্রাহিমের বাবা। এভাবেই অনুষ্ঠিত হয়ে গেল বিয়ে। শত শত বছর ধরে এমনই প্রথা চলে আসছে কেনিয়ার ওরোমা সম্প্রদায়ের সমাজে। প্রাচীন এ প্রথাটির নাম ‘দারারা’। 

সদ্যোজাত কন্যা শিশুর বাবার নাম আব্দি আদোনা। তিনি মেয়ের বিয়ে দেওয়া সম্পর্কে বলেন, ‘এখন থেকে আমার মেয়ে বড় হতে থাকবে আর অপেক্ষা করবে ইব্রাহিমের জন্য। তার বিয়ে ইব্রাহিমের সঙ্গে হয়েছে। আমি মরে গেলেও ইব্রাহিম ছাড়া অন্য কেউ তাকে বিয়ে করতে পারবে না। এমনটাই আমাদের নিয়ম।’

তিনি আরও জানান, ‘সদ্যোজাত কন্যা শিশুর বিয়ে দেওয়ার কারণে তার দিকে কেউ আর অন্য দৃষ্টিতে তাকাবে না। এভাবে তার মেয়ের ভবিষ্যৎ সুরক্ষিত হলো। তার কোনো বিপদ হলে দুই পরিবারই এগিয়ে আসবে। এতে করে দুই পরিবারের বন্ধনও দৃঢ় হবে। বাবার ইচ্ছাই মেয়ের ইচ্ছা। মেয়ের কিসে ভালো হবে সেটা বাবাই ভালো বোঝেন।’

উল্লেখ্য, কেনিয়ার দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের তানা নদীর তীরে ওরোমা সম্প্রদায় বসবাস করে। এ সম্প্রদায়ের একটি বড় অংশ ইসলাম ধর্মের অনুসারী। সদ্যোজাত কন্যা সন্তানের বিয়ে দেওয়া তাদের বহু বছরের রীতি। 

আপনার চোখে পড়া অথবা জানা অন্যরকম অথবা ভিন্ন স্বাদের খবরগুলোও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। তাই সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড