• বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন

দৈনিক অধিকার ঈদ সংখ্যা-১৯

চিতার ঘাসগুলো কেন বড্ড সবুজ

  গিরীশ গৈরিক

০১ জুন ২০১৯, ১৪:২৬
কবিতা
ছবি : চিতার ঘাসগুলো কেন বড্ড সবুজ

অভিঘাত

 

পশ্চিম দিক থেকে একটি মিছিল পূর্বদিকে ধেয়ে আসছে
এই মিছিলের কোনো শব্দ নেই
কোনো পদযাত্রা নেই
এমনকি মিছিলের কাউকে দেখতেও পাওয়া যায় না।
তবুও টের পাই মিছিলটি ধেয়ে আসছে
যেভাবে পশ্চিম দিগন্তের অস্তগামী সূর্য-
রাতের অন্ধকারে নীরবে নিভৃতে পূর্ব দিগন্তে উদিত হয়।

কবিতা যেভাবে পবিত্র হয়ে ওঠে
সেভাবে মিছিলটিও ছড়িয়ে যাচ্ছে
তোমার হৃদয় থেকে আমার হৃদয়ে
আমাদের হৃদয় থেকে তোমাদের হৃদয়ে।

 

সন্ধান


প্রার্থনা সঙ্গীতের সাথে ভেসে আসে-মৃত্যু চিৎকার
আমি শিশুর নরম হাত ধরে বসে থাকি
আর বামকানে শুনি প্রার্থনা সঙ্গীত, ডানকানে মৃত্যু চিৎকার।

ঘাসের গন্ধ প্রাণভরে নিয়ে ভাবি-
চিতার ঘাসগুলো কেন বড্ড সবুজ?

রাতের নির্জনতায় পাখপাখালির শব্দ
এখনও শুনতে পাই।
তাই প্রতিভোরে ঘুম থেকে জেগে
একজন মানুষের ভেতর আরেকজন মানুষকে খুঁজি।


সেতার


ধীরে ধীরে জলকণা পাথর হয়ে যাচ্ছে
আর পাথরগুলো ধীরে ধীরে মেঘ হয়ে যাচ্ছে
তবুও তুমি বললে না-তোমার চোখের জলের গোপন রহস্য!

আমি একটি গোপন কথা ভেতরে জমা রেখে বৃদ্ধ হয়ে যাচ্ছি
তবুও তুমি জানতে চাইলে না-আমার গোপন কথার অভিঘাত।

একদিন আমার গোপন কথার মৃত্যু হবে
একদিন তোমার চোখের জল শুকিয়ে যাবে
তবুও এই আলো এই অন্ধকার এই জল এই বাতাস
অবিনশ্বর হয়ে রইবে ভালোবাসার অতলে।

 

বেদনা


সম্মুখে ক্যানভাস রেখে নত হয়ে বসে আছি
বসে আছি এই ভেবে-
ক্যানভাসে কীভাবে আঁকতে পারি আগরবাতির গন্ধ
কিংবা মোমবাতির কান্নার শব্দ।

নিজের স্মৃতি দিয়ে নিজেকে লিখতে গিয়ে মনে হয়
এই শব্দ এই গন্ধ জীবনের শিল্প আলোড়নকে নিষ্প্রভ করেছে।

হয়তো-বা এই ব্যর্থতা শিল্পকে মহৎ করে।

 

সত্তা

 

একদিন নিজেকে ঘুম পাড়িয়ে দেখলাম
তারপর বুঝলাম ঘুমন্ত গৈরিক কতটা নিঃস্ব কতটা অসহায়!
সেই থেকে আমার শরীরে মৃত মানুষের ঘ্রাণ
সেই থেকে আমাকে যে স্পর্শ করে সে মৃত হয়ে যায়
কিংবা আমি কোনো মৃতকে স্পর্শ করলে সে জীবিত হয়ে যায়।

আমি এখন জন্ম ও মৃত্যুর অতীত।

 

কবিতাকবি : গিরীশ গৈরিক 

লেখক পরিচিতি : 

জাগতিক জীবনে বাস্তবতার সাথে বোধ কতটা সূক্ষ্মভাবে জড়িত তা কবি গিরীশ গৈরিকের কবিতা পড়লে অনুধাবন করা যায়। প্রতিটি কবিতায় তিনি নিপুণ শৈল্পিকতায় উপস্থাপন করেছেন বোধ এবং বাস্তবতা। তিনি ১৯৮৭ সালের ১৫ আগস্ট গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গীপাড়া উপজেলার গোপালপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি পেশায় একজন সাংবাদিক।

এই পর্যন্ত গিরীশ গৈরিকের প্রকাশিত হয়েছে তিনটি কাবিতাগ্রন্থ: ‘ক্ষুধার্ত ধানের নামতা-২০১৬’, ‘মা : আদিপর্ব-২০১৭’ও ‘ডোম-২০১৮’।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড