• সোমবার, ২৭ মে ২০১৯, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬  |   ৩৬ °সে
  • বেটা ভার্সন

সুইডেনে উচ্চশিক্ষার সুযোগ

  মো. খালিদ হাসান মিলু ২৩ এপ্রিল ২০১৯, ১৫:২৮

স্কলারশিপ
ছবি : প্রতীকী

সুইডেনে সাধারণত ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্টদের অ্যাডমিশন সেশনটা হয় অটাম (অগাস্ট) সেশন থেকে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম আছে, কিন্তু অধিকাংশ ক্ষেত্রে সেশন শুরু হয় অটাম/ অগাস্ট থেকে। এই সেশনে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হয় সেপ্টেম্বর-অক্টোবর ও জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যে বিষয়টা মাথায় রাখতে হবে তা হলো আপনার আগ্রহ।

আপনি কী পড়তে চান, কিসে আপনি আগ্রহী এটার ওপর ভিত্তি করে আপনি ইউনিভার্সিটিগুলো চূড়ান্ত করবেন। প্রতিটা ইউনিভার্সিটি নিয়ে আলাদাভাবে রিসার্চ করবেন, কোন ইউনিভার্সিটিতে কী কী প্রোগ্রাম আছে, প্রোগ্রামের কনটেন্ট কী, ইউনিভার্সিটির র‌্যাঙ্কিং কেমন ইত্যাদি।

আপনি কী চান অথবা কী বিষয়ে পড়তে চান এটি আপনাকেই নির্ধারণ করতে হবে। সুইডেনের অ্যাপ্লিকেশন প্রসেস খুবই সহজ, আমেরিকা, কানাডার মতো জটিল প্রসেস না, শুধু একটু ধৈর্য থাকতে হবে। যে কোনো জায়গায় যে কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি প্রক্রিয়া একটু দীর্ঘমেয়াদী। ধৈর্যহারা হলে চলবে না।

একটি অনলাইন পোর্টাল থেকে আপনি সর্বোচ্চ চারটি প্রোগ্রাম সিলেক্ট করতে পারবেন। সেটা হতে পারে আপনার পছন্দের র‌্যাঙ্কিং অনুযায়ী চারটি আলাদা ইউনিভার্সিটি অথবা একটি ইউনিভার্সিটির একসঙ্গে চারটি আলাদা প্রোগ্রামে অ্যাপ্লিকেশন করতে পারবেন। সুইডিশ সরকার একটা স্কলারশিপ দিয়ে থাকে যা হলো সুইডিশ ইনস্টিটিউট স্কলারশিপস ফর গ্লোবাল প্রফেশনালস (এসআইএসজিপি)।

এই ওয়েবসাইটে গেলেই দেখবেন সব ধরনের ইন্সট্রাকশন দেওয়া আছে। কীভাবে অ্যাপ্লিকেশন করতে হবে, কী কী লাগবে ইত্যাদি। এছাড়াও প্রতিটা ইউনিভার্সিটির নিজস্ব ফান্ডিং থেকে স্কলারশিপ দেওয়া হয় এবং ইউনিভার্সিটির স্কলারশিপগুলো মূলত রেজাল্টের ভিত্তিতে দেওয়া হয়ে থাকে এবং রেজাল্টের ওপর ভিত্তি করেই আপনি স্কলারশিপ পাবেন। সুইডিশ ইনস্টিটিউশনের স্কলারশিপ পেতে হলে রেজাল্ট, মোটিভেশন লেটার পাশাপাশি জব এক্সপেরিয়েন্স ও জরুরি।

ওয়েবসাইটে গিয়ে আপনার নামে একটি অ্যাকাউন্ট খুলবেন নিজের সব তথ্য দিয়ে এবং আপনার অ্যাপ্লিকেশন, পেমেন্ট সব কিছু এই অ্যাকাউন্ট থেকেই করতে হবে।

এই ইনফরমেশনগুলো হচ্ছে বেসিক। এগুলোর পাশাপাশি আপনি আপনার প্রোগ্রামের ওয়েবসাইট এ গিয়ে দেখবেন অনেক সময় প্রোগ্রাম স্পেসিফিক কিছু ডকুমেন্টস চায়। যেমন- আপনার পড়াশোনার উদ্দেশ্য অথবা প্রোগ্রাম স্পিসিফিক মোটিভেশন লেটার। তবে সবচেয়ে জরুরি বিষয় হলো আপনাকে আইএলটিএস দিতে হবে। যে কোনো ইংলিশ এক্সাম হলেই হয়, কিন্তু এখানে আইএলটিএস বেশি গ্রহণযোগ্য।

এগুলো হচ্ছে অ্যাডমিশনের প্রাথমিক ধাপ। অ্যাডমিশন হওয়ার পর স্কলারশিপের জন্য অ্যাপ্লিকেশন করা, প্রোগ্রাম কোঅর্ডিনেটর কাছ থেকে ইনফরমেশন নেওয়াসহ আরও বিভিন্ন ছোট ছোট ধাপ আছে।

ওডি/আরএআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড