• মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ব্যানারে সাইনবোর্ডে সরকারি কলেজ হলেও বাস্তবায়ন নেই

  বালিয়াকান্দি প্রতিনিধি, রাজবাড়ী

১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৫:১৬
বালিয়াকান্দি সরকারি কলেজ
বালিয়াকান্দি সরকারি কলেজ (ছবি : দৈনিক অধিকার)

কলেজ জাতীয়করণ হওয়ার পরও সকল সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত বালিয়াকান্দি সরকারি কলেজ।

১৯৬৭ সালে স্থাপিত এই ঐতিহ্যবাহী কলেজটি ২০১৮ সালের ২৫ আগস্ট জাতীয়করণ হয়। জাতীয়করণের ১ বছরেরও অধিক সময় অতিবাহিত হলেও নীতিমালার অভাবে সকল সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত কলেজের ২ হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থী। 

কলেজটিতে রয়েছে ব্যবস্থাপনা, সমাজবিজ্ঞান, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, ভূগোলের মতো ৪টি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে অনার্স অধ্যয়নের সুযোগ। কিন্তু ২ হাজার শিক্ষার্থীর অধ্যয়নের জন্য ক্লাস রুম আছে মাত্র ১২টি। সম্প্রতি কলেজের একটি ভবনকে পরিত্যক্ত ঘোষণা করায় সৃষ্টি হয়েছে সংকটের। এতে করে সময়মতো সব বিভাগের শিক্ষার্থীদের ক্লাস না নিতে পারায় ভেঙে পড়ছে শিক্ষা ব্যবস্থা। রয়েছে শিক্ষক সংকটও। সকল বিষয়ের জন্য পর্যাপ্ত শিক্ষক না থাকায় ক্লাস নেওয়ার ক্ষেত্রে হিমশিম খেতে হচ্ছে কলেজ কর্তৃপক্ষকে। রয়েছে অফিস স্টাফের কমতি। ৩ জন চুক্তিভিত্তিক অফিস স্টাফ দিয়ে চালাতে হচ্ছে অফিস ব্যবস্থাপনা। এতে করে যেমন দুর্ভোগে পড়েছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা তেমনি দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে কলেজ কর্তৃপক্ষকে।

অন্য দিকে কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ মো. গোলাম মোস্তফা ২০১৮ সালের ১৩ আগস্ট অবসরে যাওয়ার পর নতুন কোনো অধ্যক্ষ পায়নি কলেজটি। ফলে কলেজের কর্মকাণ্ডও তেমন অগ্রগতি হয়নি। ১ বছরের বেশি সময় ধরে কলেজের কর্মকাণ্ড চলছে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ দ্বারা। বর্তমানে ব্যবস্থাপনা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান দ্বারা চলছে কলেজের অধ্যক্ষের কার্যক্রম। এতে করে তিনিও তার বিভাগীয় ক্লাসসমূহ নিতে পারেন না।

বালিয়াকান্দি সরকারি কলেজের অনার্স ২য় বর্ষের ছাত্র সুজন মিত্র বলেন, ‘আমরা সময়মতো ক্লাস করতে পারি না। যদি ক্লাস করতে পারি সেক্ষেত্রে শিক্ষক কম থাকার জন্য একজন শিক্ষক ২ বা তার অধিক ক্লাস নিতে বাধ্য হন। সরকারি কলেজ হওয়া সত্ত্বেও রেজিস্ট্রেশন ফি, ফরম ফিলাপ, পরীক্ষার ফি দিতে হয় অতিরিক্ত যা আমাদের জন্য খুবই কষ্টকর হয়ে দাড়ায়।’

এ ব্যাপারে বালিয়াকান্দি সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ অমরেশ চন্দ্র রায় বলেন, ‘দীর্ঘ ১ বছরের বেশি সময় পার হলেও আমরা এখনও সরকারি নীতিমালা পাইনি। যার কারণে কলেজের বিভিন্ন সমস্যা থাকা সত্ত্বেও আমরা সিদ্ধান্ত নিতে পারছি না। পরিসংখ্যান, ইসলামের ইতিহাসসহ বেশ কিছু বিষয়ে ক্লাস নিতে সমস্যা হচ্ছে। নতুন করে শিক্ষক নিয়োগ দেওয়ার ক্ষমতা এখন আমাদের নেই, যাতে করে শিক্ষক সংকট নিয়েই আমাদের শিক্ষা কার্যক্রম চালাতে হচ্ছে। আবার একটি ভবন পরিত্যক্ত হওয়ায় ক্লাস রুমের সংকটে আছি, ২ হাজার শিক্ষার্থীর বিপরীতে ক্লাস রুম রয়েছে মাত্র ১২টি। এতে করে সময়মত ক্লাস নেওয়া ব্যাহত হচ্ছে। সচেতন মহলের দাবি দ্রুত এ সকল সমস্যা কাটিয়ে পঞ্চাশোর্ধ্ব ঐতিহ্যবাহী এই কলেজকে পূর্ণরূপে ফিরিয়ে আনতে হবে।’

ওডি/এসএসকে

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড