• মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭  |   ২০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মাউশির একমুখী টিউশন ফি নির্দেশনা অনৈতিক

  শিক্ষা ডেস্ক

২২ নভেম্বর ২০২০, ১২:০১
মাউশি
মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)। (ছবি : সংগৃহীত)

অভিভাবকদের থেকে মাউশির একমুখী টিউশন ফি আদায়ের নির্দেশনা অনৈতিক ও অমানবিক বলে দাবি করেছে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ অভিভাবক ফোরাম। একই সঙ্গে শিক্ষক প্রতিনিধি ফাতেমা যাহেরা হকের দুর্নীতি ও অয়িমের বিচার দাবি করেছে সংগঠনটি।

শনিবার (২১ নভেম্বর) ফোরামের পক্ষ থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মাসের পর মাস স্কুল ও কলেজে না পড়িয়ে এই করোনা ভাইরাসের মধ্যে টিউশন ফি ও অতিরিক্ত ফি আদায় করছিল ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ কর্তৃপক্ষ। আগের অতিরিক্ত টাকা এখনো ফেরত দেয়নি। এ ব্যাপারে তদারকি করেও কোনো অভিভাবক টাকা ফেরত পাননি।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে এক লাখ টাকার ওপর উন্নয়নকাজে টেন্ডারের নিয়ম ও নির্দেশনা থাকলেও তা মানছে না কলেজ কর্তৃপক্ষ। বিনা টেন্ডারের মাধ্যমে উন্নয়নের নামে সদস্যদের মধ্যে কাজ ভাগাভাগি করে লাখ লাখ টাকা লুটপাট করছে। এ ব্যাপারে সঠিক তদন্ত দাবি করেছে অভিভাবক ফোরাম।

এতে তারা কয়েকটি দাবি তুলে ধরেন। দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে- টিউশন ফি বিষয়ে মাউশি থেকে নির্দেশনা পুনর্বিবেচনা করতে হবে। ক্ষতিগ্রস্ত ছাত্রীদের ফুল ফি অথবা হাফ ফি দিতে হবে। করোনাকালীন অতিরিক্ত ফি ফেরত না দিলে অধ্যক্ষকে যথাযথ বিচার-বিশ্লেষণ করে বিচারের আওতায় আনতে হবে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে সব বিষয়ে মনিটরিংয়ের ব্যবস্থা করতে হবে।

আরও পড়ুন : বাঘায় পাখির বাসা ভাড়া তিন লাখ টাকা

বিজ্ঞপ্তিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রশাসনিক কর্মকর্তা নিয়োগ পরীক্ষার খাতা টেম্পারিংয়ের বিচার দাবি করে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অভিভাবক ফোরাম। এ ঘটনায় বর্তমান অধ্যক্ষ অধ্যাপক ফৌজিয়া ও শিক্ষক প্রতিনিধি ফাতেমা যোহরা হকের অনিয়ম প্রমাণিত হওয়ায় কি ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে তা অভিভাবকদের কাছে তুলে ধরার দাবি জানানো হয়েছে।

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: +8801703790747, +8801721978664, 02-9110584 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড