• বুধবার, ০৩ জুন ২০২০, ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী ভর্তিতে বড় ধসের আশঙ্কা

  ক্যাম্পাস ডেস্ক

৩১ মার্চ ২০২০, ১৮:৪৪
বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়
ভর্তিতে করোনার প্রভাব (ছবি : সংগৃহীত)

চলতি মার্চে দেশের প্রায় সব বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়েই সামার সেমিস্টারে ভর্তি ফরম বিক্রি শুরু হয়। এপ্রিলের মাঝামাঝি পর্যন্ত এই ফরম বিক্রির সময়সীমা ধরা হয়। এর মধ্যেই করোনাভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে অন্যান্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মতো বন্ধ রয়েছে সব বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়। 

কিছু বিশ্ববিদ্যালয় অনলাইনে ভর্তি কার্যক্রম চালালেও শিক্ষার্থীদের তেমন সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না। আর বেশির ভাগ বিশ্ববিদ্যালয়ই তাদের ভর্তি কার্যক্রম বন্ধ রাখতে বাধ্য হয়েছে। এমন অবস্থায় এ বছর করোনা সংকটের কারণে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সামার সেমিস্টারের শিক্ষার্থী ভর্তিতে বড় ধসের আশঙ্কা করছেন এই খাত সংশ্লিষ্টরা।

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো বলছে, অনলাইনের মাধ্যমে অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম কিছুটা এগিয়ে নিতে পারলেও স্থবির হয়ে পড়েছে ভর্তি কার্যক্রম। সামার সেমিস্টারে ভর্তি ফরমের বেশির ভাগই এখনও অবিক্রিত। করোনার বন্ধ কবে শেষ হয়, সে বিষয়েও অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। আবার করোনার পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেও ঈদের পর ছাড়া শিক্ষার্থীদের ঢাকায় ফেরার সম্ভাবনা অনেক কম। সবমিলিয়ে সামার সেমিস্টারের ভর্তি নিয়ে বেশ বেকায়দায় পড়েছেন তারা।

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে সামার সেমিস্টারে ভর্তি ফরম বিক্রি শুরু হয়েছে মার্চের মাঝামাঝি সময়ে। আবেদন করা যাবে আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত। সে হিসেবে ফরম বিক্রির অর্ধেক সময় শেষ। করোনার ছুটির মধ্যে অনলাইনে ভর্তি আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার সুযোগ থাকলেও শিক্ষার্থীদের দিক থেকে তেমন সাড়া পাচ্ছে না বিশ্ববিদ্যালয়টি। এজন্য বিশ্ববিদ্যালয়টির সামার সেমিস্টারে ভর্তি প্রক্রিয়া পিছিয়ে যাওয়ার শঙ্কা তৈরি হয়েছে। 

বেসরকারি খাতের শীর্ষস্থানীয় আরেক উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয়টির ২০২০ সালের সেমিস্টারে স্নাতকোত্তর প্রোগ্রামে ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ছিল আগামী ৩ এপ্রিল। আর স্নাতক প্রোগ্রামে ভর্তির তারিখ ছিল ১৭ এপ্রিল। যদিও করোনা নিয়ে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর উভয় ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

এ ব্যাপারে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি কার্যক্রম ব্যতীত সবকিছুই অনলাইনে সচল রয়েছে। ভর্তিচ্ছু অনেক শিক্ষার্থী পরিবারের সঙ্গে ঢাকার বাইরে অবস্থান করছে। আসলে মানুষ যেখানে জীবন নিয়ে শঙ্কায়, সেখানে এ মুহূর্তে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি নিয়ে ভাবার সুযোগ কম। আর করোনা নিয়ে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থী ভর্তি প্রক্রিয়া পেছাবে এটাই স্বাভাবিক।’

একইভাবে ভর্তি কার্যক্রম সম্পূর্ণ বন্ধ রাখতে বাধ্য হয়েছে সাউথইস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ও। করোনার ছুটিতে বিশ্ববিদ্যালয়টির অন্যান্য বিভাগের মতো ভর্তি অফিসও তাদের কার্যক্রম বন্ধ রেখেছে।

আরও পড়ুন : বিশেষ বিসিএস থেকে আরও ৯২ চিকিৎসক নিয়োগ

সার্বিক বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতির সভাপতি ও ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান শেখ কবির হোসেন বলেন, ‘দেশের অন্য সব প্রতিষ্ঠানের মতো বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোও এর প্রভাবমুক্ত নয়। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে দুই ধরনের প্রভাব পড়বে। একটি হচ্ছে অ্যাকাডেমিক কার্যক্রমে ক্লাস-পরীক্ষার জট। এ প্রভাব মোকাবেলায় আমরা সমিতির পক্ষ থেকে অনলাইনে ক্লাস নেওয়ার জন্য একটি সেল করে দিয়েছি। তবে বেশির ভাগ বিশ্ববিদ্যালয়ই সক্ষমতার অভাবে এ সেবা নিতে পারছে না। আর শঙ্কা সবচেয়ে বেশি দ্বিতীয় প্রভাবটি নিয়ে। সেটি হচ্ছে শিক্ষার্থী ভর্তি। প্রথম সারির বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর হয়তো তেমন কোনো সমস্যাই হবে না। তবে বেশির ভাগ বিশ্ববিদ্যালয়ই শিক্ষার্থী ভর্তি নিয়ে বড় সংকটে পড়ে গিয়েছে।’

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড