• বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়

লাগাতার কর্মসূচিতে বটগাছ ও পুকুর রক্ষার প্রতিশ্রুতি উপাচার্যের

  জাককানইবি প্রতিনিধি

২৩ অক্টোবর ২০১৯, ০৯:৩৬
জাককানইবি
শিক্ষার্থীদের দাবির প্রেক্ষিতে বটগাছ ও পুকুর রক্ষার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন উপাচার্য (ছবি : সংগৃহীত)

পুকুর ও বটগাছ রক্ষায় শিক্ষার্থীদের লাগাতার কর্মসূচিতে ‌জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় (জাককানইবি) প্রশাসন চারুদ্বীপে বর্তমান নকশায় ভবন নির্মাণ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। শিক্ষার্থীদের দাবির প্রেক্ষিতে পুনরায় নতুন নকশা করে বটগাছ ও পুকুর রক্ষার প্রতিশ্রুতি দেন উপাচার্য।

মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) প্রশাসনিক ভবনের সামনে সকাল ১১টায় এ প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

এর আগে ‘প্রকৃতি ধ্বংস ও অপপরিকল্পনার বিরুদ্ধে প্রতিবাদী চিত্রকর্ম প্রদর্শনী’ স্লোগানে দুই দিনের (২০ ও ২১ অক্টোবর) আর্ট ক্যাম্পে অঙ্কিত চিত্রকর্ম প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমান জানান, পুকুর ও বটবৃক্ষ অক্ষত রেখে ভবন নির্মাণের জন্য তিনি আগামী ২৮ তারিখে ওয়ার্কস কমিটির বৈঠকে বসবেন এবং শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক দাবি বাস্তবায়নের জন্য প্রয়োজনীয় সকল ধরনের পদক্ষেপ নেবেন।

গ্রিন ক্যাম্পাসের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আশরাফ শুভ বলেন, উপাচার্য মহোদয়ের প্রতিশ্রুতির প্রতি যথাযথ সম্মান রেখে আমাদের মাসব্যাপী আন্দোলন আগামী ২৯ তারিখ পর্যন্ত স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে।

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুদ্বীপ সংলগ্ন বটগাছ ও পুকুর ভরাট করার সিদ্ধান্তকে কেন্দ্র করে গেল ১৪ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রিন ক্যাম্পাসের নেতৃত্বে উদীচী, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য ক্রিয়াশীল সংগঠন এবং সাধারণ শিক্ষার্থীরা বটগাছকে হুমকিমুক্ত রেখে এবং পুকুর ভরাট না করে পুকুরের দক্ষিণ পার্শ্বে প্রস্তাবিত সুবিশাল স্থাপনা নির্মাণের দাবিতে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে আসছে।

গেল ১৪ অক্টোবর শতাধিক শিক্ষার্থীর প্রতিবাদের মুখে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠান হয়। এ সময় শিক্ষার্থীরা প্রতিবাদী ব্যানার ও তাদের প্রস্তাবিত স্থানে ভবনের নকশাসহ দাঁড়িয়ে প্রতিবাদ জানান। প্রশাসনের প্রাণ-প্রকৃতি বিরুদ্ধ ও প্রকৃত উন্নয়ন বিরোধী আচরণে শিক্ষার্থীরা কর্মসূচি অব্যাহত রাখেন।

গ্রিন ক্যাম্পাস ও বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য ক্রিয়াশীল সংগঠনের ব্যানারে মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল, গাছে কালো কাপড় বাঁধা, সঙ্গীতানুষ্ঠান ও প্রতিবাদী চিত্রকর্ম অঙ্কনসহ বিভিন্ন শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করে আসছিল শিক্ষার্থীরা। যার ধারাবাহিকতায় সাংস্কৃতিক পরিবেশ ধ্বংসের বিরুদ্ধে প্রতিবাদস্বরূপ তিন দিনব্যাপী (১৫-১৭ অক্টোবর) লালন স্মরণোৎসব ২০১৯ অনুষ্ঠিত হয় চারুদ্বীপের বটতলায়। এছাড়াও গেল ২০ ও ২১ অক্টোবর চারুদ্বীপে দুই দিনব্যাপী আর্ট ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হয়।

ওডি/আরএআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড