• সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬  |   ২১ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ডাকসুর ভিপি হয়েও ছাত্রলীগের হামলার বিচার পাইনি : নুর

  ঢাবি প্রতিনিধি

১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১০:৪১
ঢাবি
ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর (ছবি : সম্পাদিত)

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্রসংসদের (ডাকসু) একজন নির্বাচিত ভিপি হওয়ার পরেও ছাত্রলীগের হামলার বিচার পাননি বলে অভিযোগ করেছেন ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর। গণমাধ্যমকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে এসব অভিযোগ করেন তিনি।

ভিপি নুরুল হক নুর বলেন, আমার ওপর ছাত্রলীগ মোট আটবার হামলা করেছে, ডাকসুর ভিপি হওয়ার পরও কয়েকবার হামলা করেছে। কিন্তু, এসব হামলার কোনো বিচার হয়নি। আমাকে গুলি করে হত্যা করার হুমকি দিয়েছে, থানায় জিডি করতে গেলে পুলিশ জিডিও নেয়নি। এ দেশে কোনো আইন নেই, কোনো ন্যায় বিচার নেই।

তিনি বলেন, ছাত্রলীগের নেতারা তাদের আদর্শিক রাজনীতি করে না। তারা এমপি-মন্ত্রীর রাজনীতি করে। ক্ষমতাসীন দল ক্যাম্পাসগুলো নিয়ন্ত্রণ করার জন্য তাদের ছাত্রসংগঠনকে ব্যবহার করে। ফলে অরাজকতা এমনকি হত্যাকাণ্ডের মতো ঘটনা ঘটছে।

তিনি আরও বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ছাত্রলীগের অপরাধীদের বাঁচিয়ে দিতে চায়। বুয়েটের ক্ষেত্রেও এমন হয়েছে। আবরার হত্যাকাণ্ডের ৩৮ ঘণ্টা পর ভিসি সেখানে আসেন। ১৯৭৪ সালের পর ১৫১টি হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটলেও কোনোটিরও বিচার হয়নি। ২০১০ সালে ঢাবিতে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আবু বকর মারা গেছেন, আদালতে কেউ দোষী প্রমাণিত হয়নি। এ ধরনের একটি ঘটনারও বিচার না হওয়ায় মূল দলের নির্দেশে ক্যাম্পাসগুলোতে ছাত্রলীগ বেপরোয়া হয়ে গেছে।

সরকারই ছাত্রলীগকে আশকারা দিচ্ছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, আদালত কাউকে শাস্তি দিলেও রাষ্ট্রপতি কাউকে তাকে ক্ষমা করে দেন। এতে কেউ শাস্তি পায় না। ফলে অভিভাবকরা এ সব বিষয় নিয়ে খুবই উদ্বিগ্ন। তাই তারা ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধের দাবি করছে।

তিনি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সমালোচনা করে বলেন, হলগুলো ছাত্রলীগকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। ফলে তারা হলগুলোতে অরাজকতা সৃষ্টি করেছে। ক্যাম্পাসগুলোতে কেউ মত প্রকাশের সাহস পায় না। ছাত্ররাজনীতি আজ দলীয় দাসত্বের কারণে আদর্শচ্যুত হয়ে দুর্বৃত্তায়নে পরিণত হয়েছে। সকল ক্যাম্পাসে ছাত্র সংসদ নির্বাচন হলে এসব কমে আসবে।

ওডি/আরএআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪, ০১৯০৭৪৮৪৮০০ 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড