• রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বটগাছ ও পুকুর নিয়ে জাককানইবিতে মিশ্র প্রতিক্রিয়া

  জাককানইবি প্রতিনিধি

২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২০:২১
জাককানইবি
মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টিকারী পুকুর ও বটগাছ (ছবি : দৈনিক অধিকার)

উন্নয়ন প্রকল্পে অ্যাকাডেমিক ভবন নির্মাণের জন্যে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাককানইবি) একটি বটগাছ কাটা ও পুকুর ভরাটকে কেন্দ্র করে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও প্রশাসনের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

জানা যায়, চারুদ্বীপ সংলগ্ন একটি বটগাছ কাটা ও পুকুর ভরাটের পরিকল্পনা নিয়ে কাজ শুরু করলে প্রাণ প্রকৃতি রক্ষার সংগঠন ‘গ্রীন ক্যাম্পাস’ সহ বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রিয়াশীল সংগঠন গুলোর দাবির প্রেক্ষিতে বটগাছটি না কাটার সিদ্ধান্ত নিলেও পুকুর ভরাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে
বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

গত সোমবার (২৩ সেপ্টেম্বর) পরিকল্পনা দপ্তর থেকে ভবন নির্মাণের জায়গা পরিদর্শনে গেলে শিক্ষার্থীদের বাঁধার মুখে ফিরে যায় তারা। এর পূর্বেও এ বিষয়ে পরিকল্পনা নিয়েও বাধার সম্মুখীন হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘উন্নয়নের স্বার্থে ডোবা ভরাট করতে হবে। তবে বটগাছটি থাকবে। আমাদের পরবর্তী পরিকল্পনায় ৪/৫ টি পুকুর রয়েছে। তাই উন্নয়নের স্বার্থে আমাদের কাজ করতে হবে।’

পুকুর পরিষ্কার করছে শিক্ষার্থীরা (ছবি : দৈনিক অধিকার)

এদিকে গাছ ও পুকুর রেখে পরিকল্পনা পরিবর্তন করে ভবন নির্মাণের দাবি জানিয়েছে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। সচেতন শিক্ষার্থী-শিক্ষকদের দাবি, পুকুরটি ভরাট করা হলে পরবর্তীতে বটগাছটি হুমকির মাঝে পড়বে। যা প্রকৃতির প্রতি বিরুদ্ধাচরণ করা হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষক জানান, ‘বটগাছ ও পুকুর রেখেই পরিকল্পনা সাজানো সম্ভব তবু কেন করা হচ্ছেনা সেটা কেবল পরিকল্পনা দপ্তরের লোকেরাই বলতে পারবে। বস্তির মতো পাশাপাশি এমন বিল্ডিং করে অপরিকল্পনার কাজই করছে এই দপ্তর। সেই সঙ্গে জমি অধিগ্রহণের জোর দাবি জানান ওই শিক্ষক।’

এরই প্রেক্ষিতে মৌন আন্দোলনের অংশ হিসেবে সম্প্রতি শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে পুকুরটি পরিষ্কার করতে দেখা গেছে।

গ্রীন ক্যাম্পাসের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) আশরাফ শুভ বলেন, ‘আমরা চাই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণ প্রকৃতি রক্ষা পাবার সাথে সাথে পরিকল্পনা মাফিক উন্নয়নও হোক। আমরা উন্নয়নের বিরুদ্ধে নই।’ 

সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক সাকিব আহমেদ বলেন, ‘ক্যাম্পাসের উন্নয়ন আমরাও চাই তবে প্রাকৃতিক সম্পদ ধ্বংস করে নয়। আমাদের দাবি, পুকুর ও গাছ রেখে পুরো প্ল্যান সাজাক প্রশাসন।’

ওডি/এমএ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড