• সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯, ৫ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

চবিতে মার্চ ফর ক্লাইমেট শীর্ষক মানববন্ধন

  চবি প্রতিনিধি

২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৬:০২
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়
মার্চ ফর ক্লাইমেট শীর্ষক মানববন্ধন (ছবি : দৈনিক অধিকার)

চিটাগং ইউনিভার্সিটি সাইন্টিফিক সোসাইটি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সমুদ্রবিজ্ঞান বিভাগের যৌথ উদ্যোগে ‘মার্চ ফর ক্লাইমেট’ শীর্ষক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ‘মুভমেন্ট ফর ক্লাইমেট, জাস্টিস বেটার ফর ওয়ার্ল্ড’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে জলবায়ু পরিবর্তন জনিত সংকট মোকাবেলায় নিরাপদ ভবিষ্যৎ ও প্যারিস চুক্তি বাস্তবায়নের দাবিতে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

রবিবার (২২ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার চত্বরে এ কর্মসূচি পালিত হয়। পাশাপাশি সমুদ্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বুদ্ধিজীবী চত্বরে একটি আলোচনা সভার আয়োজন করেন তারা। এবং মঞ্চ নাটক সহ সচেতনতামূলক বিভিন্ন ইভেন্টের আয়োজনও ছিল।

সমুদ্র বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী দিবস দেবের সঞ্চালনায় এতে সভাপতিত্ব করেন সহকারী অধ্যাপক এনামুল হক নীল। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড.শিরীণ আখতার। 

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. শিরীন আখতার বলেন, ‘আজকের এই আন্দোলনে সকলের সম্পৃক্ততা আমাদের উজ্জীবিত করে। সকলকে অভিনন্দন জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশে ময়লা ফেলার কোনো নিয়মকানুন না থাকাতে খাল বিল নদীনালা সবকিছু ভরাট হয়ে যাচ্ছে। এর ফলে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ কমে যাচ্ছে। বর্তমানে বিশ্বব্যাপী যে শঙ্কা তৈরি হয়েছে সেটা সবার টনক নেড়েছে। তাই খাল ভরাট, বৃক্ষ নিধন, যত্রতত্র পাহাড় কাটা এসব আর করা যাবে না।’ 

তিনি আরও বলেন, ‘ভূমিকম্প প্রবণ এলাকাগুলো ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। সুইডেনের স্কুল ছাত্রী গ্রেটা থুনবার্গের (১৬) ছোট্ট মেয়েটির ধারণায় অনুপ্রাণিত হয়ে বাংলাদেশ সহ সারা বিশ্বের ১৫০টির বেশি দেশের স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা গ্লোবাল ক্লাইমেট স্ট্রাইকে একাত্মতা পোষণ করে রাজপথে নেমেছে শিক্ষার্থীরা। তাই আমাদের সকলকে নিয়ে পরিচ্ছন্ন আন্দোলনে অংশগ্রহণ করতে হবে।’ 

আরও বক্তব্য রাখেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর প্রণব মিত্র চৌধুরী, সামছুন্নাহার হল প্রাধ্যক্ষ লায়লা খালেদা আখি এবং সমুদ্র বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মো. মোসলেম উদ্দিন মুন্না।

উল্লেখ্য, বৈশ্বিক উষ্ণায়নের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ ৫টি দিক হলো - মরুকরণ, ঝড়, বন্যা, সমুদ্রে পৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধি ও কৃষিক্ষেত্রে অধিকতর অনিশ্চয়তা। যার তিনটিতে বাংলাদেশ অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ তালিকায় রয়েছে। উষ্ণায়নের বর্তমান ধারা ২০৫০ সাল পর্যন্ত অব্যাহত থাকলে সমুদ্রের পৃষ্ঠের উচ্চতা ৩ ফুট বেড়ে যেতে পারে। এবং প্লাবিত হতে পারে ১৭ শতাংশ ভূমি।

ওডি/এমএ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড