• সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন

সর্বশেষ :

নিজ দেশে ফিরে যেতে রোহিঙ্গাদের দুই শর্ত||এ পি জে আব্দুল কালামের স্মৃতিতে ভূষিত প্রধানমন্ত্রী  ||উদ্বেগ থাকলেও ভারতের ওপর বিশ্বাস রাখতে চাই : পররাষ্ট্রমন্ত্রী ||ছাত্রলীগের চাঁদাবাজি ঢাকতেই ছাত্রদলের কাউন্সিল বন্ধ : রিজভী ||কাশ্মীরে জঙ্গি অনুপ্রবেশের অভিযোগে সীমান্তে‌ হাই অ্যালার্ট||ভারতের পর এবার বিশ্বকে পরমাণু যুদ্ধের হুঁশিয়ারি পাকিস্তানের||সোমবার আনুষ্ঠানিক দায়িত্ব নেবেন ভারপ্রাপ্ত সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক||মেক্সিকোয় কুয়া থেকে ৪৪ মরদেহ উদ্ধার করল বিজ্ঞানীরা||অন্যায় করলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না : কাদের    ||সৌদির তেল স্থাপনাতে হামলায় ইরানকে দায়ী করল যুক্তরাষ্ট্র

শহীদ মসিয়ূর রহমান হল

ছাত্রদের একমাত্র হলে বহুমাত্রিক সমস্যা!

  ফয়সাল আহমেদ ইমন

১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৬:৫৭
যবিপ্রবি
যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (ছবি : দৈনিক অধিকার)

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (যবিপ্রবি) ছাত্রদের একমাত্র আবাসিক হল শহীদ মসিয়ূর রহমান হল। একমাত্র হল হলেও এখানে সমস্যা বহুবিধ। আর এসব সমস্যা প্রতিনিয়ত বাড়ছে শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি। হলের ডাইনিং, রিডিং রুম থেকে শুরু করে বাথরুম সব জায়গাতেই অন্তহীন সমস্যা। 

হলের প্রধান সমস্যা খাবারের মান। ডাইনিং ও হলের একমাত্র ক্যান্টিনে নিম্নমানের খাবার হওয়ার কারণে বেশিরভাগ শিক্ষার্থীই ক্যাম্পাসের প্রধান ফটকের বাইরের হোটেলগুলোর ওপর নির্ভরশীল। 

হলের সামনের সম্প্রসারিত অংশে বেসিন, বাথরুম ও গোসল খানায় কোন সমস্যা না থাকলেও পুরনো ভবনের প্রায় প্রতিটি তলায় অধিকাংশ বেসিন দিয়ে পানি আসে না, গোসলের ঝর্ণা ব্যবহার করা যায় না, গোসলখানা ও বেসিনের মাঝে প্রায়ই পানি জমে থাকে যা থেকে মুহূর্তেই দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

টয়লেটের নোংরা পরিবেশ ও ভাঙ্গা বেসিন (ছবি : দৈনিক অধিকার)

সম্পূর্ণ হলে ওয়াইফাই সেবা দেওয়ার জন্য হলে রাউটার স্থাপন করে ওয়াইফাই সংযোগ দিলেও রাউটার থেকে দূরের রুমগুলো সংযোগ পায় না, কিছু সময় পর পর সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় এবং সংযোগ খুবই ধীরগতি সম্পন্ন। হলে নিরবিচ্ছিন্ন সংযোগ দেওয়ার কথা থাকলেও নামমাত্র নামে সেগুলো চলে যা শিক্ষার্থীদের কোন কাজে আসে না।

হলে রিডিং রুম থাকলেও নেই কোনো লাইব্রেরি। এছাড়া এসি রিডিং রুমে বহুদিনের আলোর সমস্যা সমাধান হলেও রিডিং রুমের পাশেই কমনরুমের হৈ-হুল্লোড়ের কারণে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার মনোযোগ বিচ্ছিন্ন হয়। সম্প্রতি হলের প্রাধ্যক্ষ কিছু প্রশংসনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করলেও হলের প্রধান সমস্যাগুলো রয়েই গেছে। সাধারণ শিক্ষার্থীবৃন্দ ভোগান্তি থেকে রেহাই পেতে সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার অনুরোধ জানান।

এসব ব্যাপারে জানতে চাইলে শহীদ মসিয়ূর রহমান হলের প্রাধ্যক্ষ মো. আমজাদ হোসেন ড. ইঞ্জিনিয়ার বলেন, ‘কাজের সীমাবদ্ধতা থাকার কারণে সমস্ত সমস্যা আমার একার দ্বারা সমাধান করা সম্ভব না।’

ফ্লোরে জমে থাকা পানি (ছবি : দৈনিক অধিকার)

ওয়াইফাইয়ের সমস্যার ব্যাপারে তিনি বলেন এটার যাবতীয় কাজ সম্পূর্ণভাবে বিডি রেন নিয়ন্ত্রণ করে এটা তাদেরই দায়িত্ব। রিডিং রুমের পাশেই কমনরুমের ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কমনরুম হলের নতুন অংশে স্থানান্তর করা হবে। এছাড়াও ডাইনিং, রিডিং রুম, লাইব্রেরি সহ সমস্ত সমস্যার দ্রুত কার্যকরী পদক্ষেপ নেওয়ার আশ্বাস দেন। এছাড়াও এ সময় তিনি বহিরাগতদের প্রবেশ ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ, ফগিং মেশিনের ব্যবহার, ড্রেনেজ ব্যবস্থার সহ হলের বিভিন্ন উন্নয়ন ও সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার লক্ষে গৃহীত পদক্ষেপগুলো তুলে ধরেন।

ওডি/এমএ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড