• রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২১ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বশেমুরবিপ্রবির সাংবাদিক বহিষ্কারে নোবিপ্রবিসাসের হুঁশিয়ারি

  নোবিপ্রবি প্রতিনিধি

১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৬:১৮
নোবিপ্রবি
নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (ছবি : সম্পাদিত)

দ্য ডেইলি সান পত্রিকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) প্রতিনিধি ফাতেমা-তুজ-জিনিয়াকে সাময়িক বহিষ্কারের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (নোবিপ্রবিসাস)। দ্রুত সময়ের মধ্যে তার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করা না হলে সারা দেশের ক্যাম্পাস সাংবাদিকদের নিয়ে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলার হুঁশিয়ারি দিয়েছে সংগঠনটি। 

বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) নোবিপ্রবি সাংবাদিক সমিতির সভাপতি নাজমুস সাকিব সাদী ও সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসান শাকিম স্বাক্ষরিত এক যৌথ বিবৃতিতে এমন প্রতিক্রিয়া জানানো হয়। 

বিবৃতিতে সাংবাদিক নেতারা বলেন, ‘বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবরে আমরা জানতে পেরেছি, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়কে নিয়ে আপত্তিকর স্ট্যাটাস এবং উপ-উপাচার্যসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের ফেসবুক আইডি হ্যাক করে বিশ্ববিদ্যালয়ে অচলাবস্থা সৃষ্টির হুমকির অভিযোগ এনে গত বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) দ্য ডেইলি সানের প্রতিনিধি ফাতেমা-তুজ-জিনিয়াকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। কিন্তু কর্তৃপক্ষ অভিযোগের বিষয়ে সুস্পষ্ট ব্যাখ্যা দিতে পারেনি। শুধু এই সাংবাদিকের ক্ষেত্রে নয়, গত ছয় মাসে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ট্যাটাস দেওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২১ জন শিক্ষার্থীকে শোকজ নোটিশ এবং সাতজন শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। বাকস্বাধীনতা ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা আর দশটা গণতান্ত্রিক অধিকারের মতো নয়, এটি গণতন্ত্রের মৌল ভিত্তি। এটি খুবই মৌলিকভাবে গণতন্ত্রের সবচেয়ে মৌলিক উপাদান। ফলে এই অধিকারের সুরক্ষা, সংরক্ষণ ও তাকে বিকশিত হতে দিতে হবে। নয়তো তা হবে সংবিধান মতে মৌলিক অধিকার হরণ। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন উক্ত সাংবাদিককে সাময়িক বহিষ্কারাদেশ দেয়ার মাধ্যমে শুধু ঐ সাংবাদিক ও শিক্ষার্থীদের মৌলিক অধিকারই হরণ করেননি বরং বর্তমান বাংলাদেশের জন্য একটি লজ্জাজনক নজির স্থাপন করেছে।’

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অনিয়ম রুখতে ও সুশাসন প্রতিষ্ঠায় ক্যাম্পাস সাংবাদিকরা কাজ করে যাচ্ছেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ড স্বাধীন গণমাধ্যম ও মত প্রকাশের স্বাধীনতার পরিপন্থি। এ ধরনের ঘটনা ক্যাম্পাস সাংবাদিকতাকে হুমকির মুখোমুখি করছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রতি আহ্বান, দ্রুত সময়ের মধ্যে ফাতেমা-তুজ-জিনিয়ার সাময়িক বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করে তার ছাত্রত্ব ফিরিয়ে দিতে হবে। অন্যথায় সারাদেশের সাংবাদিকদের নিয়ে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।’

ওডি/এমএ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন সজীব 

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড