• রোববার, ০৯ আগস্ট ২০২০, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ইবিতে আইসিএসডিএপি আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু কাল

  ইবি প্রতিনিধি

১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৫:২২
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়
ইবি প্রশাসনের সংবাদ সম্মেলন (ছবি : দৈনিক অধিকার)

বাংলাদেশে এবারই প্রথম সপ্তম ইন্টারন্যাশনাল কনসোর্টিয়াম ফর সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট এশিয়া প্যাসিফিক (আইসিএসডিএপি) দ্বিবার্ষিক আন্তর্জাতিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

ইন্টারন্যাশনাল কনসোর্টিয়াম ফর সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট এশিয়া প্যাসিফিক (আইসিএসডিএপি) ব্রাঞ্চ ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার বিভাগের যৌথ আয়োজনে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে দুই দিনব্যাপী সামাজিক অস্থিরতা, শান্তি ও উন্নয়ন শীর্ষক এ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে।

আগামী ১৪ ও ১৫ সেপ্টেম্বর ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকটি ভেন্যুতে একযোগে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এতে অংশ নেবে এশিয়া, ইউরোপ ও অস্ট্রেলিয়া মহাদেশের ৮ দেশের শতাধিক সামাজিক উন্নয়ন বিশেষজ্ঞ ও গবেষক। দেশের বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে সামাজিক উন্নয়ন বিষয়ে এ ধরনের সর্ববৃহৎ আয়োজন এটিই প্রথম। আন্তর্জাতিক এ সম্মেলন সফল করতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার থেকে শুরু করে ব্যাপক প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

এ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে আন্তর্জাতিকভাবে কূটনৈতিক সুসম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হবে বলে আশাবাদী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

এ সম্মেলন উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবনের তৃতীয় তলায় সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এ সময় ড. মিঠুন মোস্তাফিজের সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন- উপাচার্য অধ্যাপক ড. রাশিদ আসকারী, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. শাহীনুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. সেলিম তোহা, ড. মামুনুর রহমান, আইসিএসডির সভাপতি ও চার্লস স্টুয়ার্ট ইউনিভার্সিটি, অস্ট্রেলিয়া এর সমাজকর্ম বিভাগের অধ্যাপক মনোহর পাওয়ার।

সম্মেলন পৃষ্ঠপোষক হিসেবে রয়েছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. হারুন উর রশীদ আসকারী, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. শাহিনুর রহমান ও সভাপতি আইসিএসডির সভাপতি ও চার্লস স্টুয়ার্ট ইউনিভার্সিটি, অস্ট্রেলিয়া এর সমাজকর্ম বিভাগের অধ্যাপক মনোহর পাওয়ার।

বিশ্বব্যাপী ক্রমবর্ধমান সামাজিক অসন্তোষের কারণে অর্থনৈতিক উন্নয়নের গতি শ্লথ হবার পাশাপাশি সামাজিক উন্নয়ন ও শান্তির পথ বাঁধাগ্রস্ত হচ্ছে। অনেক দেশেই জাতিগত নিধন এবং গণহত্যার শিকার হয়ে শান্তি ও নিরাপত্তার খোঁজে দিগ্বিদিক জ্ঞানশূন্য মানুষ প্রতিবেশী ভিন্ন দেশে আশ্রয় নিচ্ছে। আবার উন্নয়নশীল দেশের মানুষ উন্নত দেশে প্রবেশ করছে। ঐচ্ছিক ও বলপ্রয়োগের এমন অভিবাসন প্রক্রিয়া বিশ্বের জাতীয়তাবাদ মুখী রাজনৈতিক দল ও সরকারসহ, সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে আদর্শ ও মূল্য বোধগত প্রশ্ন এবং উত্তপ্ত বিতর্কের চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিচ্ছে। আবার নিজ দেশের ভেতরে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি, জনসংখ্যা বৃদ্ধি, নির্বাচন পদ্ধতি নিয়ে প্রশ্ন, সহিংসতার মাধ্যমে শ্রেণি, লিঙ্গ, অঞ্চল এবং ধর্মের মধ্যে সামাজিক অস্থিরতার বীজ রোপিত হচ্ছে। একই সময়ে দ্বন্দ্ব নিরসন করে শান্তি আনয়নের লক্ষ্যে প্রচেষ্টা চলমান রয়েছে।

বিশ্বায়নের যুগে শান্তির পথ হিসেবে দ্বন্দ্ব নিরসনের চেষ্টাকেই গুরুত্বের সাথে অগ্রাধিকার দিয়ে বিবেচনা করা হয়। কেননা এ প্রক্রিয়ার মাধ্যমেই সামাজিক স্থিতিশীলতা অর্জন করে টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করা সম্ভব। সামাজিক অস্থিরতার মাধ্যমে সৃষ্ট পরিস্থিতি মোকাবেলা করে শান্তির পথনির্দেশ করা এবং শান্তি ও উন্নয়নের জন্য ভবিষ্যৎ সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচন করাই আন্তর্জাতিক এই সম্মেলনের লক্ষ্য। এজন্য সম্মেলনে আগত সমাজতত্ত্ববিদ, উন্নয়ন বিশেষজ্ঞ ও গবেষকগণ বেশ কিছু বিষয়ের ওপর আলোকপাত করবেন।

বিষয়গুলো হলো- ১. গৃহযুদ্ধ, শরণার্থী ও সামাজিক অস্থিরতা, ২. অর্থনৈতিক বৈষম্য এবং শান্তি ও উন্নয়নের ওপর প্রভাব, ৩. জনসংখ্যা বৃদ্ধি এবং সামাজিক অস্থিরতা, ৪. বিশ্বায়ন, অভিবাসন এবং শান্তি ও উন্নয়নের পথে চ্যালেঞ্জ, ৫. লিঙ্গ বৈষম্য, সহিংসতা, শান্তি এবং উন্নয়ন, ৬. দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা এবং শান্তি ও উন্নয়নের প্রতিবেশ, ৭. শান্তি, শিক্ষা, সামাজিক উদ্যোগ ও টেকসই উন্নয়ন, ৮. সামাজিক অস্থিরতা, শান্তি এবং রাজনৈতিক প্রক্রিয়া ৯. দ্বন্দ্ব নিরসন, শান্তি ও উন্নয়নে এনজিও, ১০. সামাজিক অস্থিরতা দূরীকরণ, স্থানীয় ও জাতীয় উন্নয়নের মাধ্যমে শান্তি প্রতিষ্ঠায় যুব সমাজের ভূমিকা, ১১. জাতি-ধার্মিকতা, সামাজিক অস্থিরতা, শান্তি ও উন্নয়ন, ১২. আন্তর্জাতিক আদালতে দ্বন্দ্ব নিরসন, শান্তি ও উন্নয়ন, ১৩. টেকসই উন্নয়ন অর্জনে ব্যবসায়িক-সামাজিক দায়িত্ববোধ

ওডি/এমএ

jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড