• বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

চুয়েট শিক্ষার্থীর মৃত্যুতে ঘাতক চালকের শাস্তির দাবি

  চুয়েট প্রতিনিধি

১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৯:১৫
মানববন্ধন
চুয়েটে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন (ছবি : দৈনিক অধিকার)

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) শিক্ষার্থী কামরুল হাসান সানির সড়ক দুর্ঘটনায় অকাল মৃত্যুতে শোকে মুহ্যমান চুয়েট পরিবার।

গত বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৭টায় ঢাকার ডেমরায় মাইক্রোবাসের চাপায় সানির মৃত্যু হয়। এই অবেলায় তার চলে যাওয়া চুয়েটের শিক্ষক-শিক্ষার্থী কেউ মেনে নিতে পারছে না।

বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) দুপুর ২টায় চুয়েটের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা কালো ব্যাজ ধারণ করে ঘাতক চালকের শাস্তির জোর দাবি জানান। তার মৃত্যুতে সকল ধরনের ক্লাসল্যাব-পরীক্ষা বন্ধ রেখেছে শিক্ষার্থীরা। দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের নিচতলায় ব্যানার ও দাবিদাওয়া নিয়ে ভিড় জমায় শিক্ষার্থীরা।

এ সময় শাস্তির দাবিতে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে একাত্মতা পোষণ করে মানববন্ধনে যোগ দেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. রফিকুল আলম। এ সময় অন্যান্যের মতো উপস্থিত ছিলেন- ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. মশিউল হক, যন্ত্রকৌশল বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. জামাল উদ্দিন আহমেদ, শেখ রাসেল হলের প্রভোস্ট ড. কামরুল হাসান, ছাত্র কল্যাণ উপপরিচালক হুমায়ুন কবির প্রমুখ।

ঘাতক চালকের শাস্তি চেয়ে মানববন্ধনে উপাচার্য অধ্যাপক ড. রফিকুল আলম বলেন- ‘চুয়েট পরিবারের একজন শিক্ষার্থীর সড়ক দুর্ঘটনার মতো অস্বাভাবিক মৃত্যুতে আমি গভীরভাবে মর্মাহত। সরকারের কাছে জোর দাবি জানাই তরুণ প্রকৌশলীর মৃত্যুতে দায়ী চালকের সুষ্ঠু তদন্ত করে যেন দ্রুত শাস্তির আওতায় আনা হয়। পাশাপাশি চলাচলে সবাইকে সচেতনতা অবলম্বন করার অনুরোধ জানাই, যেন সড়ক দুর্ঘটনার মতো অস্বাভাবিক মৃত্যুর পুনরাবৃত্তি না ঘটে।’

মানববন্ধনে উপস্থিত ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. মশিউল হক নিহত শিক্ষার্থীর পরিবারের প্রতি গভীর শোক ও সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। এছাড়া তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে শুক্রবার বাদ জুমা দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে বলে জানান ছাত্রকল্যাণ পরিচালক ।

মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারী চতুর্থ বর্ষের ফরহাদ শাহী আফিন্দী জানান, ‘সড়কে মৃত্যুর মিছিলে চুয়েটের শিক্ষার্থীর সংখ্যাটা অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বেশি। শহর থেকে দূরত্ব বেশি হওয়ায় চার বছরের ক্যাম্পাস জীবনে অনেক সিনিয়র-বন্ধুকে সড়ক দুর্ঘটনায় হারিয়েছি। পড়াশোনা শেষে তার এই অস্বাভাবিক মৃত্যুটা কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছি না। আমরা ঘাতক চালকের যথোপযুক্ত শাস্তি দাবি জানাচ্ছি।’

ওডি/এসএসকে

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড