• বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

দুদকের মামলায় পবিপ্রবির তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী গ্রেফতার

  পবিপ্রবি প্রতিনিধি

০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৯:০৮
পবিপ্রবি
পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ছবি : সংগৃহীত)

দুদকের অর্থ আত্মসাতের মামলায় পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (পবিপ্রবি) তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. ইউনুছ শরীফকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) বেলা ৩ টার দিকে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনের দুমকি বাজার এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে দুদক। দুদকের জনসংযোগ বিভাগের উপপরিচালক প্রণব কুমার ভট্টাচার্য আটকের তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

মামলা সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘ইউনুছের বিরুদ্ধে ৫৩ লাখ ৫০ হাজার ৩৯০ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে। ২০১৬ সালের ২১ জুন থেকে ২০১৭ সালের ৩০ জুনের মধ্যে এই টাকা আত্মসাতের ঘটনা ঘটেছে। দণ্ডবিধির ৪০৯, ৪২০, ৪৭৭(ক) ধারাসহ ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় মামলা হয়েছে।’ 

দুদক জানায়, আজই ইউনুছের বিরুদ্ধে দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়, পটুয়াখালীতে মামলা হয়। এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সমন্বিত জেলা কার্যালয়, পটুয়াখালীর উপপরিচালক মো. মোজাহার আলী সরদার। মামলার এজাহারে ইউনুছের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬টি প্রকল্পের দরপত্র নিয়ে জালিয়াতি, প্রতারণা ও ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ আনা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, এর আগেও পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. ইউনুছ শরীফ ও আ. মোতালেব খানের বিরুদ্ধে জাল-জালিয়াতি ও ক্ষমতার অপব্যবহার করে সরকারের ২ কোটি ৭১ লাখ ৭২ হাজার ৬০৮ টাকা ৯টি কার্যাদেশের মাধ্যমে আত্মসাৎ করার অভিযোগে দক্ষিণ মুরাদিয়া গ্রামের গাজী মতিউর পটুয়াখালীর সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার বিবরণে জানা যায়, ২১/০৬/১৬ তারিখ থেকে ৩১/১২/১৬ তারিখ পর্যন্ত পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২ তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. ইউনুছ শরীফ ও আ. মোতালেব খান ৯টি দরপত্র বিজ্ঞপ্তির আহ্বান করেন। 

৯টি দরপত্রের কাজের মধ্যে রয়েছে- টিএসসির ২য় ও ৩য় তলা নির্মাণ, কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ১ম ও ২য় তলা নির্মাণ, এনএসভিএম ভবনের ৩য় তলা নির্মাণ, ছাত্রাবাস নির্মাণ, ছাত্রীনিবাস নির্মাণ, কালভার্ট ও রাস্তা নির্মাণ, আসবাবপত্র সরবরাহ (কাঠ), আসবাবপত্র সরবরাহ (স্টিল) ও পিকআপ গাড়ি সরবরাহ। এসব দরপত্রে আসামিরা পারস্পরিক যোগসাজশে অবৈধভাবে লাভবান হওয়ার জন্য বিধি-বহির্ভূতভাবে ঠিকাদারকে জাল-জালিয়াতি ও ক্ষমতার অপব্যবহার করে ৯টি দরপত্রে বিভিন্ন সময় দুর্নীতি ও অনিয়মের মাধ্যমে সরকারের ২ কোটি ৭১ লাখ ৭২ হাজার ৬০৮ টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

ওডি/এমএ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড