• সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন

জাবিতে সাংবাদিককে লাঞ্ছনায় ববি সাংবাদিকদের নিন্দা

  ববি প্রতিনিধি

২৫ আগস্ট ২০১৯, ১৯:৩৬
বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়
বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় (ছবি : সংগৃহীত)

পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) উপাচার্য ফারজানা ইসলাম কর্তৃক বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত দুই সাংবাদিক লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনায় বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (ববি) কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট ও অনলাইন পত্রিকার সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।

রবিবার (২৫ আগস্ট) এক বিবৃতিতে ববি সাংবাদিকবৃন্দ বলেন, ‘আমরা গণমাধ্যম সূত্রে জানতে পেরেছি যে, গত ২২ আগস্ট জাবি উপাচার্য কার্যালয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম আলোর প্রতিনিধি মাইদুল ইসলাম ও বাংলাদেশ প্রতিদিনের প্রতিনিধি শরীফুল ইসলাম সীমান্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন প্রকল্পের দুই কোটি টাকা ছাত্রলীগের মধ্যে বণ্টনের অভিযোগ সম্পর্কে উপাচার্যের বক্তব্য জানতে চাইলে উপাচার্য তাদের ওপর ক্ষিপ্ত হন। এ সময় তিনি ‘এমন প্রশ্ন করার সাহস কোথায় পেলে’ বলে সাংবাদিকদের ধমকাতে থাকেন। এছারাও উপাচার্য প্রক্টরকে ওই দুইজন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে ছাত্র-শৃঙ্খলা বিধিতে ব্যবস্থা নিতে বলেন এবং তাদের বিভাগীয় সভাপতিকে ডেকে পাঠান। এক পর্যায়ে উপাচার্য সাংবাদিক দুজনের ছবি তুলে রাখার নির্দেশ দিলে পরিসংখ্যান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মো. আশরাফুল আলম তাদের ছবি তুলে রাখেন। দীর্ঘ দুই ঘণ্টা ধরে বকাঝকা করেন এবং নানা হুমকি দেন।’

বিবৃতিতে ববি সাংবাদিকবৃন্দ আরও বলেন, ‘একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ প্রশাসনিক পদে থেকে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে এহেন অপেশাদার ও অশোভনমূলক আচরণ কোনোভাবেই কাম্য নয়। বিভাগীয় সভাপতিকে ডেকে আনা ও সাংবাদিকদের ছবি তুলে রাখা চরম অশোভন ও তাদের শিক্ষাজীবনের জন্য হুমকি স্বরূপ। এ অবস্থায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ফারজানা ইসলাম দ্রুত সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের সঙ্গে বসে ন্যক্কারজনক এ ঘটনার ব্যাখ্যা দিয়ে ক্যাম্পাসে সাংবাদিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করে এ ধরনের আচরণ থেকে বেরিয়ে আসবেন বলে আহ্বান জানান বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল সাংবাদিকবৃন্দ।’

ওডি/এসএসকে

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড