• বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন

বুটেক্সের হলগুলোর ক্যানটিন বয় ২ শিশুশ্রমিক

  মুহাম্মাদ আব্দুল্লাহ আইএআর, বুটেক্স প্রতিনিধি

২৪ আগস্ট ২০১৯, ০৮:৫৯
বুটেক্স
কাজ করছে ক্যানটিন বয় শাহ আলম (ছবি : সম্পাদিত)

বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুটেক্স) সৈয়দ নজরুল ইসলাম হলের ক্যান্টিনে কাজ করে এক শিশুশ্রমিক। এগারো বছর বয়সী এ শিশুর নাম শাহ আলম। তার গ্রামের বাড়ী চাঁদপুর।

গেল এক মাস ধরে ক্যান্টিন বয় হিসেবে কাজ করছে সে। তার সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, দূর সম্পর্কের এক ভাইয়ের সঙ্গে ওই হলে বাস করে সে। তার ভাইও একই হলের ক্যান্টিনবয়। জানা যায়, পারিবারিক দুর্দশার কারণেই এত অল্প বয়সে শ্রমিকের কাজ করে শাহ আলম।

শিশুশ্রমের ব্যাপারে কঠোর আইন থাকা সত্ত্বেও কীভাবে সে নিয়োগ পায়- এ ব্যাপারে জানতে ক্যান্টিন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি। সৈয়দ নজরুল ইসলাম হলের ভারপ্রাপ্ত প্রাধ্যক্ষ প্রভাষক মো. আসওয়াদ উল হক সরকারের কাছে জানতে চাইলে তিনি এ বিষয়ে অবগত নন বলে বুটেক্স সাংবাদিক সমিতিকে জানান।

তিনি আরও বলেন, হলের ক্যান্টিন ইজারা দেওয়ার মতো বিষয়গুলো ছাত্ররাই নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। এ বিষয়ে কর্তৃপক্ষের পদক্ষেপ জানতে চাইলে তিনি নিজের অনাগ্রহ প্রকাশ করেন।

একই অবস্থা শহীদ আজিজ হলের ক্যান্টিনের। জয় নামের আট বছর বয়সী এক শিশু কাজ করে এখানে। খবর নিয়ে জানা যায়, শিশুটির বাবা-মা ও ক্যান্টিনেই কাজ করে। ক্যান্টিন পরিচালক মিজান জানান, ওদেরকে জোর করে কাজ করানো হচ্ছে না। আর্থিকভাবে দূরাবস্থার কারণে বাবা-মাই জয়কে এখানে কাজ দেওয়ার জন্য নানা রকম অনুনয় করেন। ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায় জয়ের বাবা মায়ের বক্তব্যে।

শিশুটি কাজের পাশাপাশি পড়াশোনা করে কী না জানতে চাইলে পড়াশোনা করে না বলে জানায় সে। তবে, পড়াশোনার সুযোগ পেলে করতে চায়। এ জন্য পড়ার সুযোগের পাশাপাশি তার পরিবারের আর্থিক দুর্দশার প্রতি সমাজের সহৃদয়বানদের সুদৃষ্টি কামনা করেন অনেকে।

ওডি/আরএআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড