• রবিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৬  |   ৩১ °সে
  • বেটা ভার্সন

ছাত্রলীগের দাপটে চলছে ক্লাস প্রতিনিধি বাছাই

অর্থ আত্মসাৎ ও দায়িত্ব অবহেলার অভিযোগ

  আকাশ বাসফোর, শেকৃবি প্রতিনিধি

০৫ আগস্ট ২০১৯, ১১:৫৩
শেকৃবি
শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (ছবি : সম্পাদিত)

শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শেকৃবি) শাখা ছাত্রলীগের দাপটে চলছে ক্লাস প্রতিনিধি বাছাইয়ের কার্যক্রম। বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি (দক্ষিণ বঙ্গ গ্রুপ) কিংবা সাধারণত সম্পাদকের (ময়মনসিংহ বঙ্গ গ্রুপ) এলাকার হলে ক্লাস প্রতিনিধি হওয়া যাবে। অন্য কোনো এলাকার হলে ক্লাস প্রতিনিধি হওয়া যাবে না। শাখা ছাত্রলীগের দুই শীর্ষ নেতা সভাপতি এস. এম মাসুদুর রহমান মিঠু ও সম্পাদক মিজানুর রহমান ক্যাম্পাসে এমনটিই নিয়ম রেখেছেন বলে অভিযোগ শিক্ষার্থীদের। ফলে যোগ্যতা না থাকার সত্ত্বেও অধিকাংশ ক্লাসে প্রতিনিধিত্ব করছেন অযোগ্য ক্লাস প্রতিনিধিরা।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের চারটি অনুষদের চারটি লেভেলের (১৬ ব্যাচ, ১৭ ব্যাচ, ১৮ ব্যাচ, ১৯ ব্যাচ) ক্লাসে প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্বে আছে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের ময়মনসিংহ বঙ্গ গ্রুপের ১১ জন সভাপতির দক্ষিণ বঙ্গ গ্রুপের ১০ জন অনুসারীরা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভাগগুলোর প্রত্যকটি ক্লাসে ছাত্রলীগের সভাপতি মাসুদুর রহমান মিঠু ও সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান তাদের নিজেদের পছন্দ অনুযায়ী ক্লাস প্রতিনিধি বাছাই করেন। পরবর্তীতে বাছাই করা প্রতিনিধিদের নেতৃত্বে পরিচালিত হয় ক্লাস কার্যক্রম। সেখানে সাধারণ শিক্ষার্থীদের মতামত প্রকাশের কোনো সুযোগ থাকে না বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে অভিযোগ করে সাধারণ শিক্ষার্থীরা বলেন, আমরা আমাদের পছন্দ অনুযায়ী ক্লাস প্রতিনিধি বাছাই করতে পারি না। ক্যাম্পাসে রাজনৈতিক সংগঠন ছাত্রলীগের নেতারা তাদের প্রভাব খাটিয়ে নিজ এলাকার শিক্ষার্থীদের ক্লাস প্রতিনিধি হিসেবে বাছাই করছেন। রাজনৈতিক নেতাদের দ্বারা বাছাই করা অধিকাংশ ক্লাস প্রতিনিধিরা পুরাপুরি অযোগ্য। ক্লাসে অনিয়মিত থাকেন তারা। ক্লাস না করেই তারা তাদের ইচ্ছে অনুযায়ী ক্লাস পরিচালনা করেন। এছাড়া নিজের ইচ্ছা অনুযায়ী ক্লাস পরীক্ষা রুটিন করে থাকেন এসব ক্লাস প্রতিনিধিরা।

তারা (অভিযোগকারীরা) আরও বলেন, আমাদের সাধারণ শিক্ষার্থীদের মতামতকে গুরুত্ব দেওয়া হয় না। এছাড়াও ছাত্রলীগ দ্বারা বাছাই করা এসব ক্লাস প্রতিনিধিদের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎ ও দায়িত্ব অবহেলার অভিযোগ রয়েছে।

অভিযোগকারী শিক্ষার্থীরা বলেন, ক্লাস প্রতিনিধিরা সাধারণ শিক্ষার্থীদের কাছে থেকে ১০০ টাকা করে নেয় বিনিময়ে ৬০ পেইজ শিট ফটোকপি দেওয়ার কথা থাকলেও আমাদের দেওয়া হয় মাত্র ৪৫-৫০ পেইজ। বাকি অতিরিক্ত টাকা ক্লাস প্রতিনিধিরা আত্মসাৎ করেন। তারা আরও জানান যে, নেতাদের দ্বারা বাছাই করা ক্লাস প্রতিনিধিরা ক্লাসে নিজ নিজ বঙ্গের (এলাকার) শিক্ষার্থীদের ফ্রিতে শিট দেন কিন্তু অন্যদের কাছ থেকে টাকা আদায় করেন।

জানতে চাইলে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি এস. এম মাসুদুর রহমান মিঠু বলেন, ক্লাসের বেশিভাগ শিক্ষার্থীরা যাকে চাইবে সেই ওই ক্লাসের প্রতিনিধি হবে। সে যে কোনো এলাকা বা গ্রুপের হোক না  কেন। এক্ষেত্রে ছাত্রলীগের কোনো হস্তক্ষেপ থাকে না।

এ প্রসঙ্গে শাখা ছাত্রলীগের সম্পাদক মিজানুর রহমান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্যেকটি ক্লাসে শিক্ষার্থীদের ভোটে নির্বাচিত হওয়া উচিত, কিন্তু আমাদের ক্যাম্পাসে সেই পরিবেশ নেই। তবে আগামীতে সকল ক্লাসে ক্লাস প্রতিনিধি ভোটের মাধ্যমে নির্বাচন করার ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ওডি/আরএআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড