• মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন

যাদের ছাত্রত্ব আছে তারাই যেন নেতা নির্বাচিত হয় : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  জয়নুল হক, জবি প্রতিনিধি

২০ জুলাই ২০১৯, ২০:৪৭
জবি ছাত্রলীগের সম্মেলন
সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল (ছবি : দৈনিক অধিকার)

যাদের ছাত্রত্ব আছে তাদের যেন নেতা নির্বাচন করা হয় এবং যাদের নামে কোন কলঙ্ক নাই তাদের নেতৃত্বে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ যেন এক উত্তম জায়গায় পৌঁছাতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

শনিবার (২০ জুলাই) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা করেন।  বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান অনুষ‌দে বিকাল ৩ টায় সম্মেলনের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন। 

এতে সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক জামাল উদ্দিনের সঞ্চালনায় ও সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির আহ্বায়ক আশরাফুল ইসলাম টিটনের সভাপতিত্বে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য প্রদান করেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী।
 
এ সময় সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল এবং  বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কাযনির্বাহী সদস্য অ্যাডভোকেট কাজী নজীবুল্লাহ হিরু, নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবুসহ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক নেতারা। 

প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘যাদেরকে সম্মেলনে নেতা নির্বাচিত করা হবে তাদের নেতৃত্ব সবাইকে মেনে নিয়ে একযোগে কাজ করতে হবে। ঢাকা শহরের মধ্যে অন্যতম ইউনিট জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়। যা খুবই স্বনামধন্য। ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে মহান স্বাধীনতা সংগ্রামে তৎকালীন জগন্নাথ কলেজের ভূমিকা অবিস্মরণীয়। জগন্নাথের মিছিল বের না হলে ঢাবিতে কোন মিছিল বের হত না।’

স‌ম্মেল‌নে উপলক্ষে সকাল থে‌কেই নেতাক‌র্মীরা বি‌ভিন্ন র‌ঙের টি-শার্ট প‌রে ক্যাম্পাসের শান্তচত্বর, কাঠাঁল তলা সহ বি‌ভিন্ন যায়গা‌য় গ্রুপ আকা‌রে অবস্থান করে এবং স্লোগান দিতে থাকে। 

এদিকে সম্মেলনকে ঘিরে কঠোর নিরাপত্তার জন্য সতর্ক অবস্থানে ছিলো পুলিশ বাহিনী। এ বিষয়ে কোতোয়ালী থানার সহকারী পুলিশ কমিশনার সাইফুল আলম মুজাহিদ বলেন, ‘জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সম্মেলনকে ঘিরে আমরা অতিরিক্ত ফোর্স সংযুক্ত করেছি। ক্যাম্পাসে যাতে কোন প্রকার বিশৃঙ্খলা না ঘটে সেদিকে আমাদের কড়া নজর আছে। আমরা সতর্ক অবস্থানে আছি।’ 

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ৩০ মার্চ সম্মেলনের পর ১৭ অক্টোবর জবি শাখা ছাত্রলীগের ৩৯ সদস্যের কমিটি দেয় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। এতে তরিকুল ইসলামকে সভাপতি ও শেখ জয়নাল আবেদীন রাসেলকে সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দেওয়া হয়। কমিটির মেয়াদ ছিল এক বছর। কিন্তু শীর্ষ দুই নেতার পক্ষের লোকজনের মধ্যে কয়েক দফা মারামারি ও সংঘর্ষের পর কমিটি ঘোষণার চার মাসের মাথায় ১৯ ফেব্রুয়ারি কমিটি বিলুপ্ত করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। কমিটি বিলুপ্তির প্রায় ৬ মাস পরে সম্মেলন হচ্ছে।

ওডি/এমএ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড