• সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

অনার্সের শেষ দিন

  সাদিকুর রহমান, হাবিপ্রবি প্রতিনিধি

২০ জুলাই ২০১৯, ১১:০১
হাবিপ্রবি
র‌্যাগ ডে উদযাপন (ছবি : দৈনিক অধিকার)

‘হয়তো আর কোনো দিন বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস করার সুযোগ হবে না; বঞ্চিত হব স্যারদের অনুপ্রেরণামূলক কথার শ্রবণ থেকে, বন্ধুদের সঙ্গে শ্রেণিকক্ষে বসে হয়তো আর আড্ডা হবে না।’ বলছিলেন হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) শেষ সেমিস্টারের ফলপ্রার্থী শিক্ষার্থী জীবন রায়। তিনি ইংরেজি বিভাগের ছাত্র। স্নাতক পর্যায়ের শেষ ক্লাসের দিন এভাবেই অনুভূতি ব্যক্ত করছিলেন তিনি।

শিক্ষা জীবনে স্নাতক পর্যায়ের শেষ দিনকে স্মরণীয় রাখার জন্য র‌্যাগ ডে উদযাপিত হয়ে থাকে। এই অনুষ্ঠান সাধারণত বড় পরিসরে উদযাপিত হয়, আবার কোথাও ছোট পরিসরে উদযাপিত হয়। হাবিপ্রবিতে এ বছর বড় পরিসরে র‌্যাগ ডে উদযাপিত হয়নি। তবে বিভিন্ন বিভিগের শিক্ষার্থীরা নিজ নিজ বিভাগের উদ্যোগে র‌্যাগ ডে উদযাপন করেছে।

সম্প্রতি ইংরেজি, কৃষি, অর্থনীতিসহ কয়েকটি বিভাগ পৃথকভাবে র‌্যাগ ডে উদযাপন করে। এছাড়াও ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিমেল সায়েন্স অনুষদের শিক্ষার্থীরা পৃথক র‌্যাগ ডে উদযাপন করে।

কৃষি অনুষদের ছাত্রের জাহিদ শিহাব। তিনি বলেন, র‌্যাগ ডে এমন একটি দিন বা মুহূর্ত যা আমাদের ব্যক্তিসত্তার শত-সহস্র স্মৃতির অব্যক্ত কান্নাকে আবিরের রঙে অঙ্কিত শিল্পীর নিপুণ কারুকার্যের শেষ অধ্যায়।

সোশ্যাল সায়েন্স অ্যান্ড হিউম্যানিটিস অনুষদের শিক্ষার্থী আব্দুর রউফ তিনি র‌্যাগ ডে সম্পর্কে বলেন, ২০১৫ সাল থেকে একসঙ্গে-এক বেঞ্চে বসে ক্লাস করেছি; কখনো ভুলে বাসায় খাতা রেখে ক্লাসে চলে আসলে বন্ধুর কাছ থেকে খাতা ধার করে নিয়ে ক্লাস করেছি। চারটি বছরের সুখ-দুঃখ, আনন্দ-বেদনা, হাসি-কান্না কখনো ভুলবার নয়। শিক্ষা জীবনের উৎকৃষ্ট সময়ে বন্ধুদের সঙ্গে কখনো গল্পে কখনো বা গানের আড্ডায় মেতেছি, বৃষ্টির দিনে ক্লাসের ফাঁকে বন্ধুদের সঙ্গে গল্পে মজেছি। এই চার বছরের সর্বশেষ দিনটিকে স্মরণীয়  রাখার জন্য সাদা টি-শার্টে বিভিন্ন রঙের কলম দিয়ে স্মৃতিময় কথা লিখে রেখেছি।

শিক্ষা জীবনের শেষ এই দিনটিতে সবাই সাদা টি-শার্ট পরেন, সাদা টিশার্টে বিভিন্ন রঙের কলম দিয়ে স্মৃতিময় বাক্য লেখা হয় বিভিন্ন রঙের কলম দিয়ে লেখার কারণে সাদা টি-শার্ট আর সাদা থাকে না। একে অপরের টি-শার্টে রং মেখে, নেচে-গেয়ে দিনটিকে স্মরণীয় রাখতে চান।

অর্থনীতি বিভাগের প্রথম ব্যাচের শিক্ষার্থী মো. রশিদুল ইসলাম। তিনি বলেন, আজ অনার্স জীবনের শেষ দিন, একদিকে অনাগত ভবিষ্যতের কথা ভেবে যেমন অনেক খুশি লাগছে তেমনিভাবে দেখতে দেখতে স্বপ্নের মতো চারটি বছর কেটে গেছে, ভাবতে অবাক লাগছে-চারটি বছর অতিক্রম করে ফেলেছি।

চার বছরের বন্ধুত্ব টিকে থাকুক আজীবন। কর্মজীবন এবং পারিবারিক ব্যস্ততার মাঝেও যেন বন্ধুত্বের বন্ধন ছিন্ন না হয় এমনটিই প্রত্যাশা স্নাতক সম্পন্ন করা এই শিক্ষার্থীদের।

ওডি/আরএআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড