• বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন

র‌্যাগিংয়ের অভিযোগে ৪ মাসে ৩৯ শিক্ষার্থী বহিষ্কার

  রেহেনা আক্তার রেখা ২১ মে ২০১৯, ১৩:৩১

র‌্যাগিং
ছবি : প্রতীকী

র‌্যাগিংয়ের অভিযোগে গেল চার মাসে ৩৯ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করেছে দেশের শীর্ষ পাঁচ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হলো- জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি), বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বশেমুরবিপ্রবি), যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (যবিপ্রবি), ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) ও মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (মাভাবিপ্রবি)।

বহিষ্কার হওয়া এ শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৩১ জনকে সাময়িক ও ৮ জনকে স্থায়ী বহিষ্কার করা হয়েছে।

গেল ৪ ফেব্রুয়ারি র‍্যাগিংয়ের অভিযোগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) ছয় শিক্ষার্থীকে আজীবন বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বহিষ্কার হওয়া ওই শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইটিই বিভাগের ২০১৭-১৮ সেশনের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী শিপন (কেরানিগঞ্জ, ঢাকা), শাহিন মিয়া (নারায়ণগঞ্জ), নাদিম ইসলাম (টাঙ্গাইল), হৃদয় কুমার ধর (শেরপুর), তুর্জয় হাওলাদার (ভোলা), আশিকুজ্জামান লিমন (মধুখালি, ফরিদপুর)।

র‌্যাগিংয়ের অভিযোগে গেল ৩ মার্চ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের পাবলিক হেলথ অ্যান্ড ইনফরমেটিক্স বিভাগের সাত শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়। বহিষ্কার হওয়া শিক্ষার্থীরা হলেন- জাহানারা ইমাম হলের শিক্ষার্থী কিফায়াত সাদমান ইশাদি ও রুবাইয়া বিনতে হাশেম, বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হলের শিক্ষার্থী অংকন ভদ্র, সাইফুর রহমান সরকার, নাজ্জাশি সুলতান এবং মওলানা ভাসানী হলের শিক্ষার্থী রাকিব হোসেন ও তানভীর আহমেদ শুভ।

এর আগে ২৯ জানুয়ারি যৌন হয়রানি ও র‌্যাগিংয়ের অভিযোগে নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের আজগর হোসেন নামে এক শিক্ষার্থীকে তিন মাসের জন্য বহিষ্কার করে জাবি প্রশাসন।

হলে ডেকে নিয়ে র‍্যাগিংয়ের অভিযোগে গেল ১০ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদকসহ মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (মাভাবিপ্রবি) ছয় শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়। বহিষ্কার হওয়া শিক্ষার্থীরা হলেন- ৪র্থ বর্ষ ২য় সেমিস্টারের শিক্ষার্থী ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সায়েম আলী সানি এবং ২য় বর্ষ ১ম সেমিস্টারের এস এম রাশেদুল ইসলাম, জিল্লুর রহমান, মো. আবু হেনা মোস্তফা কামাল, মো. আতিকুজ্জামান ও অনিন্দ রায়। তারা সবাই বায়োকেমিস্ট্রি অ্যান্ড মলিকুলার বায়োলজি বিভাগের শিক্ষার্থী।

অন্যদিকে, গেল ১২ মার্চ র‌্যাগিং ও যৌন নিপীড়নের দায়ে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) দুই শিক্ষার্থীকে আজীবন, একজনকে দুই বছর এবং অপর ছয়জনকে এক বছরের জন্য বহিষ্কার করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। জানা যায়, এর আগে র‌্যাগিং, যৌন নিপীড়ন এবং বিকৃত যৌনাচারে বাধ্যকরণের বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের গঠিত তদন্ত কমিটি ভুক্তভোগী ১২ জনসহ মোট ৪০ জন শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে ঘটনার সত্যতা পায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এ ঘটনায় জড়িত ও ভুক্তভোগী সকলেই যবিপ্রবির পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের বিভিন্ন বর্ষের ছাত্র।

গেল ১৯ মার্চ র‍্যাগিংয়ের অভিযোগে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ফলিত পুষ্টি ও খাদ্য প্রযুক্তি বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের পাঁচ শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়।

বহিষ্কৃার হওয়া ওই শিক্ষার্থীরা হলেন- ওই বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের আদর বিশ্বাস, মাহফুজ আহমেদ নাবিল, মৃদুল পাল লিটন, তানজিলা পারভীন মীম, এসএম আবুল বাশার। একই বিভাগের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের ছাত্রী আরফিন তানজিদকে র‍্যাগিং করার কারণে বিভাগীয় অ্যাকাডেমিক কমিটির সুপারিশ মোতাবেক  তাদের সাময়িক বহিষ্কার করে ইবি প্রশাসন।

এর আগে ২০ ফেব্রুয়ারি র‌্যাগিংয়ের অভিযোগে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) সমাজকল্যাণ বিভাগের পাঁচ শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। বহিষ্কার হওয়া ওই পাঁচ শিক্ষার্থী হলেন- মো. মেহেদি হাসান, রোল-১৭২৮০০৩, মো. মেহেদি হাসান রোমান, রোল-১৭২৮০১৪, সুমাইয়া খাতুন, রোল-১৭২৮০৭৪, আহমেদ জুবাইয়ের সিদ্দিকী, রোল-১৭২৮০২০, মুহিদ হাসান, রোল- ১৭২৮০১০।

ওডি/আরএআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড