• বুধবার, ২২ মে ২০১৯, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬  |   ৩১ °সে
  • বেটা ভার্সন

মে ফুলে ছেয়ে গেছে ঢাকা কলেজের আঙিনা

  মো. রাকিবুল হাসান তামিম ০৯ মে ২০১৯, ১৩:৩০

ঢাকা কলেজ
নয়নাভিরাম দৃষ্টিনন্দন মে ফুল (ছবি : দৈনিক অধিকার)

জুন মাস থেকে মে মাস পর্যন্ত দেখে বুঝার উপায় নেই এখানে কোনো গাছ আছে, কিন্তু মার্চ মাস শেষ হতেই মাটি ফুঁড়ে নতুন করে মাথা তুলে দাঁড়ায় এই গাছ। আর মাস ঘুরে এপ্রিল হতেই গাছে যেন নতুন প্রাণের সঞ্চার হয়। পাতা আর কলির সঞ্জীবনে নতুন রূপের পসরা সাজিয়ে নিজেকে মেলে ধরে মুক্ত আকাশের পানে। আর মে মাসের শুরুতেই ফুটে যায় ফুল। নয়নাভিরাম দৃষ্টিনন্দন মে ফুলের কথাই বলছি!

ঢাকা কলেজের বাগানে দেখা মিলল এই মনোমুগ্ধকর ফুলের। কলেজের প্রশাসনিক ভবনের সামনের বাগানে শোভা পাচ্ছে দৃষ্টিনন্দন এই মে ফুল।

মে ফুল

কলেজের বাগানে দেখা মিলল এই মনোমুগ্ধকর ফুলের (ছবি : দৈনিক অধিকার)

কলেজের বাগানের পরিচর্যায় দীর্ঘ প্রায় ২৭ বছর ধরে কাজ করেন মুন্না। বাগানের মালি মুন্না জানান, আজ হতে প্রায় ১১ বছর আগে অর্থাৎ ২০০৮ সালে কলেজের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের জনৈক সহযোগী অধ্যাপক তার বাসা থেকে মে ফুলের দুটি কন্দ এনে তাকে দেন বাগানে লাগানোর জন্য। তার পরবর্তী বছর থেকে পর্যায়ক্রমিকভাবে আজ অবধি দীর্ঘ প্রায় ১১ বছর ধরে এই বাগানে ফুটছে মে ফুল।

ঢাকা কলেজের উদ্ভিদবিদ্যা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জিল্লুর রহমান বললেন, মে ফুলের অস্তিত্ব প্রথম চোখে পড়ে আফ্রিকা মহাদেশে। এর বৈজ্ঞানিক নাম ক্যাশিয়া জাভানিকা।