• বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

নন ক্যাডারে মৎস্যবিজ্ঞানে স্নাতকদের আবেদনের সুযোগ দাবিতে বশেফমুবিপ্রবিতে মানববন্ধন

  বশেফমুবিপ্রবি প্রতিনিধি

১২ জানুয়ারি ২০২২, ১৫:১৬
বশেমুরবিপ্রবি
এতে প্রায় দুই শতাধিক শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন (ছবি : অধিকার)

মৎস্য অধিদফতরের নন ক্যাডার নিয়োগ বিধিমালা ২০২০ সংশোধনের দাবিতে মানববন্ধন করেছে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বশেফমুবিপ্রবি) মৎস্যবিজ্ঞান বিভাগের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) দুপুর ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রায় দুই শতাধিক শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন।

জানা যায়, গত ৩০ ডিসেম্বর মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অধীনে, মৎস্য অধিদফতরের নন-ক্যাডারের দশম গ্রেডের বিভিন্ন পদের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে তত্ত্বাবধায়ক পরিদর্শক, সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা ও মৎস্য জরিপ কর্মকর্তা পদসমূহে মোট ২০১টি শূন্য পদের নিয়োগে শুধু প্রাণিবিদ্যা ও মৎস্য ডিপ্লোমাধারীদের আবেদন করার যোগ্যতা দেওয়া হয়েছে। মৎস্যবিজ্ঞান স্নাতক শিক্ষার্থীদের কোনো সুযোগ রাখা হয়নি।

অন্য দিকে, বিসিএস সহ নবম গ্রেডের চাকরির আবেদনে মৎস্যবিজ্ঞান স্নাতক শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি প্রাণিবিদ্যা স্নাতকদের আবেদনের সুযোগ রাখা হয়েছে।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বর্তমানে ১৪টি বিশ্ববিদ্যালয়ে মাৎস্যবিজ্ঞানে স্নাতক ডিগ্রি প্রদান করা হচ্ছে। এসব বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রতিবছর হাজারের অধিক মৎস্য গ্রাজুয়েট পাশ করে বের হলেও গত চার বছরে বিসিএস এবং সরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠানে মিলিয়ে মাত্র শতাধিক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি হয়েছে। চাকরির ক্ষেত্র সীমিত হওয়ায় মৎস্য গ্রাজুয়েটরা বিভিন্ন সরকারী দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণির চাকুরিতে আবেদন করছে। সেখানে মৎস্য বিষয়ক সরকারি দ্বিতীয় শ্রেণির চাকুরিতে আবেদনের সুযোগ না রাখা খুবই দুঃখজনক।

মানববন্ধনে ফিশারিজ বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আবদুস ছাত্তার বলেন, বাংলাদেশে মৎস্য সেক্টরে অভূতপূর্ব সাফল্য অর্জন করেছে। স্বাদু পানির মাছ উৎপাদনে আমারা বিশ্বে ৩য়, ইলিশ উৎপাদনে বিশ্বে ১ম, তেলাপিয়া উৎপাদনে ৪র্থ। এই অবদানের পিছনে রয়েছে ফিশারিজ গ্রাজুয়েটদের অবদান। যে সব সেক্টরে মৎস্য বিজ্ঞানের গ্রাজুয়েটরা চাকরির সুযোগ পাচ্ছে সেখানে প্রণিবিজ্ঞানের গ্রাজুয়েটরা চাকরির সুযোগ পেলেও মৎস্য বিজ্ঞানের গ্রাজুয়েটরা সব জায়গায় আবেদন করতে পারছে না।

ফিশারিজ বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সাদীকুর রহমান ইমন বলেন, আমাদের গ্রাজুয়েটরা বিভিন্ন ষড়যন্ত্রের শিকার হচ্ছে। টেকনিকাল সেক্টরে যেখানে মৎস্য গ্রাজুয়েট চাকরি পাবার কথা সেখানে প্রাণিবিজ্ঞান গ্রাজুয়েটরা চাকরি পাচ্ছে। ফলে প্রাণিবিজ্ঞান গ্রাজুয়েটদের বেশি আসন দেওয়া হচ্ছে। আমাদের দাবি পূরণের প্রয়োজনে আমরা আন্দোলন ঢাকা পর্যন্ত নিয়ে যাব। এই আন্দোলন সারাদেশের সকল মৎস্য গ্রাজুয়েটদের আন্দোলন।

মানববন্ধনে ফিশারিজ বিভাগের শিক্ষার্থী ফকির আহসানুল ইরফানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন ফিশারিজ বিভাগের চেয়ারম্যান ড. আবদুস ছাত্তার, ফিশারিজ বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সাদীকুর রহমান ইমন, ড. মো. ফরহাদ আলী, প্রভাষক ফখরুল ইসলাম চৌধুরী (সুমন) এবং ফিশারিজ বিভাগের শিক্ষার্থীদের মধ্যে সিএম ইমরান, সাদিকুর রহমান,মাহিদুর রহমান জিমি, মোস্তাফিজুর রহমান সোহাগ প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা চলমান নিয়োগ কার্যক্রমে টেকনিকাল পদসমূহে মাৎস্যবিজ্ঞান স্নাতকদের সুযোগ প্রদান এবং নন ক্যাডার নিয়োগ বিধিমালা-২০২০ সংশোধনের জন্য কর্তৃপক্ষকে আহ্বান জানান। সেই সাথে নতুন পদ সৃষ্টি এবং সুগঠিত অর্গানোগ্রাম বাস্তবায়নের দাবি জানানো হয়।

এ সময় আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে দাবিগুলো বাস্তবায়ন না করা হলে কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারি দেন শিক্ষার্থীরা।

ওডি/নিমি

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড