• বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮  |   ২৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

জাবিতে শীতের আগমনী বার্তা নিয়ে হাজির কুয়াশা মাখা ভোর

  ইমন ইসলাম

২৩ অক্টোবর ২০২১, ১০:৫০
জাবি
কুয়াশামাখা ভোর জানান দিচ্ছে শীত আসছে (ছবি : মোমেন্টওয়ালা)

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অনন্য লীলাভূমি খ্যাত জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) ক্যাম্পাস। ঋতু পালাবদলের সঙ্গে সঙ্গে ক্যাম্পাস প্রকৃতিও সাজে ভিন্ন রূপে। শরতের শেষ বিকেলে পাতাঝরা হেমন্ত কড়া নাড়ছে ক্যাম্পাস প্রকৃতিতে। হেমন্তের মিষ্টি বিকালে কুয়াশার চাদর জড়িয়ে ক্যাম্পাস জমিনে নেমেছে হালকা শীত। অন্যান্য ঋতুর মতো জাবি ক্যাম্পাসে শীত ঋতু আসছে উৎসবের আমেজ নিয়ে।

দূর্বা ঘাসে কিংবা গাছের কচি পাতায় মুক্তার মতো আলো ছড়িয়ে ভোরের শিশির জানান দিচ্ছে শীত আসছে। ঘন কুয়াশা ভেদ করে পূর্ব দিগন্তে সূর্যের উদয়। ক্যাম্পাসের দিগন্ত জোড়া মাঠ ও পিচঢালা পথে শীতের আমেজ বিরাজ করছে। ভোরে ক্যাম্পাস অঙ্গনে পড়তে শুরু করেছে হালকা কুয়াশা। সেই সঙ্গে অনুভূত হচ্ছে মৃদু ঠান্ডা। প্রতিবারের মতো এবারও বর্ষার ঘনঘটা শেষ করে কার্তিকের কোল জুড়ে শীতের আগমন ঘটেছে।

শীত যেন ক্যাম্পাস প্রকৃতিতে আনে ভিন্নমাত্রা

এ দিকে, শীতের আমেজ শুরু হতে না হতেই ক্যাম্পাস অঙ্গনে পাখিদের পদচারণা বেড়েছে। পাখিদের কিচিরমিচির শব্দে ভরে উঠেছে ক্যাম্পাস প্রকৃতি। ঘন গাছপালার মধ্যে দিয়ে কুয়াশার লুকোচুরি খেলা বেশ শোভা ছড়াচ্ছে। ভোর হলেই শীতের সকাল দেখতে বেরিয়ে পড়ছেন শিক্ষক শিক্ষার্থীরা। ক্যাম্পাসের গাছগুলো পাতাশুন্য হতে শুরু করেছে। শিশিরস্নাত সকাল, রোদমাখা দুপুর, পাখিদের কিচিরমিচির শব্দ ভেজা সন্ধ্যা আর মেঘমুক্ত আকাশে জোছনা ডুবানো আলোকিত রাতের প্রকৃতি আরও রহস্যময় হয়ে ওঠে ক্যাম্পাস প্রেমীদের কাছে।

শীতের কুয়াশামাখা ভোরের সৌন্দর্য উপভোগ করতে শিক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে ওঠে চৌরঙ্গী মোড় ও লেক‌পাড়। কুয়াশা ভেদ করে সূর্যের মিটমিট আলোতে যেন চারপাশ আচ্ছাদিত হয়। শীতের সকালে ক্যাম্পাসের চারপাশ ঘন কুয়াশায় ঢাকা থাকে। কুয়াশা ভেদ করে স্বাভাবিক জীবন যাত্রার ঝাপসা ছবিগুলো যেন এক কল্পকাহিনীর সৃষ্টি করে।

ক্যাম্পাসের লেকে সমাগম ঘটে অতিথি পাখির

জাহাঙ্গীরনগরের শীত মানেই গায়ে চাদর জড়িয়ে ঠকঠক করে কাঁপতে কাঁপতে চায়ের আড্ডায় মেতে ওঠা। বাহারি ভর্তা আর গরম ভাত খাবার ধুম। শীত আসলে ক্যাম্পাস যেন নতুন রূপে সাজে। ক্যাম্পাসের লেকে লেকে অতিথি পাখির সমাগম ঘটে। রঙ বেরঙের পাখিদের কলতানে মুখর হয়ে ওঠে লেক পাড়গুলো।

শীত আসলে শিক্ষার্থীদের মধ্যে যেন আনন্দ উৎসবের সঞ্চার ঘটে। ক্যাম্পাসে গড়ে ওঠা চত্ত্বরগুলো চায়ের কাপের টুং টাং শব্দে ভরে ওঠে। হাঁসি ঠাট্টা আর গানের তালে তালে সৃষ্টি হয় শতশত গল্প ও কবিতা।

আরও পড়ুন : জাবিতে ভর্তি পরীক্ষার চুড়ান্ত সময়সূচি প্রকাশ

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগের শিক্ষার্থী নাহরাইন জান্নাত বলেন, শীতের আগমনে প্রকৃতি সেজে ওঠে ভিন্ন এক আমেজে। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়েও ছড়িয়ে পড়তে শুরু করেছে শীতের আগমনী বার্তা। এখানে শীতের আগমন ঘটে একটু ভিন্নভাবে। দূর-দূরান্ত থেকে ছুটে আসে অতিথি পাখিরা। জমে ওঠে পিঠে-পুলির আড্ডা। ইতোমধ্যেই প্রকৃতি সেজে উঠছে এক অপরূপ রূপে। সবুজ ঘাসের ওপর মুক্তোর দানার মতো ছড়িয়ে থাকা শিশির বিন্দু আর চারদিকে অতিথি পাখির কিচিরমিচির শব্দ জানান দিচ্ছে শীত এসে গেছে।

বাংলা বিভাগের আরেক শিক্ষার্থী আরাফাত ইব্রাহিম বলেন, আসলে গ্রামের শীতের যে আমেজ তার সঙ্গে জাবি ক্যাম্পাসের শীতের আমেজের কোনো পার্থক্য নেই। তবে অতিথি পাখির কলতান শীতের আমেজটাকে আরও বাড়িয়ে তোলে। দীর্ঘদিন পর কুয়াশামাখা ভোর দেখতে পেরে বেশ আনন্দিত।

লেখক- শিক্ষার্থী, সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড