• বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৮ আশ্বিন ১৪২৮  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সেপ্টেম্বরেই ক্যাম্পাস-হল খোলার দাবি ঢাবি ছাত্রনেতাদের

  ক্যাম্পাস ডেস্ক

০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৩২
ঢাবি
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ফাইল ছবি)

চলতি মাসেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ক্যাম্পাস ও আবাসিক হলগুলো খুলে দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘পরিবেশ পরিষদের’ অন্তর্ভুক্ত ১৩টি ক্রিয়াশীল ছাত্রসংগঠনের নেতারা। মঙ্গলবার (৭ সেপ্টেম্বর) রাত ১০টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার বিষয়ে এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় তারা এ দাবি জানান।

এ সভায় ছাত্রলীগ-ছাত্রদলসহ ১৩টি ছাত্রসংগঠনের ২১ জন ছাত্রনেতা অংশ নিয়েছিলেন। এছাড়াও যুক্ত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, প্রো-ভিসি (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী এবং বিভিন্ন হলের প্রভোস্টসহ মোট ৬৯ জন।

একধিক সূত্রে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, সভায় ছাত্রলীগসহ উপস্থিত সকল ছাত্র সংগঠনের পক্ষ থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবি জানানো হয়।

এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের গণরুম বাতিলের সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়ে তা শতভাগ বাস্তবায়নের জোর দাবি জানিয়েছেন ছাত্র সংগঠনগুলো। এর পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয় খোলার পর শিক্ষার্থীদের মানসিক স্বাস্থ্যের দিকে নজর রেখে অ্যাসাইনমেন্ট ও পরীক্ষার মাঝে সামঞ্জস্যতা বিধান ও হলগুলোতে মেডিকেল সেন্টার উদ্ভোধনের আহবানও জানান তারা।

ছাত্রনেতাদের এ দাবির ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কমিটি একটি মিটিং করে পরবর্তীতে তাদের সিদ্ধান্ত জানাবেন বলে সভায় জানানো হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্যার এ এফ রহমান হলের প্রভোস্ট ড. কে এম সাইফুল ইসলাম খান বলেন, সভায় ছাত্রনেতৃবৃন্দ বিশ্ববিদ্যালয়ের হল খোলার ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের যে কর্মসূচি আছে এ ব্যাপারে তাদের মতামত তুলে ধরেছেন। সেপ্টেম্বরের মধ্যে যেন হল খুলে দেয়া হয় সব ছাত্রসংগঠন এ দাবি তুলেছে। মাননীয় উপাচার্য বলেছেন যে, ১৫ সেপ্টেম্বর প্রভোস্ট কমিটির ও ১৬ সেপ্টেম্বর একাডেমিক কাউন্সিলের মিটিং রয়েছে। মিটিংগুলো করে আমরা একটি তারিখ জানাতে পারবো।

বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের গণরুম সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্তকে আমরা স্বাগত জানিয়েছি এবং প্রথম বর্ষ, দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীদের যেন অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সিট বরাদ্দ নিশ্চিত করা হয় তা বলেছি।

ছাত্রসংগঠনের নেতারা আরও যেসব দাবি তুলেছেন-

ছাত্রসংগঠনের নেতারা ছাত্রদের বেতন মওকুফের জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন, খাবারের মান যেন নিশ্চিত হয়, স্বাস্থ্যসম্মত হয়, আর্থিক সঙ্কটে পড়া ছাত্রদের বিশেষভাবে সহযোগিতা করার অনুরোধ জানিয়েছেন।

ছাত্রনেতারা দলীয় পরিচয়ের বাইরে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র হিসেবে এই সংকটকালে দায়িত্ব পালন করতে চেয়েছেন। শিক্ষার পরিবেশ যাতে নিশ্চিত হয় , গণতান্ত্রিক পরিবেশ যাতে বজায় থাকে। এছাড়াও নিরাপদ ক্যাম্পাসের দাবি জানিয়েছেন। পুলিশ যেন প্রশাসনের কথা ছাড়া কাউকে আটক না করে, আইন-কানুন তৈরি করা সহজ কিন্তু এগুলো মানা কঠিন এ ব্যাপারে যেন সবাই সহযোগিতা করে।

উপাচার্য তাদের দাবিগুলোকে প্রশংসা করেছেন। তিনি স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর (এসওপি) মেনে চলার জন্য ছাত্র সংগঠনের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানিয়েছেন। সরকার ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করা হচ্ছে যেন সেখানে একটি ভ্যাকসিনেশন পয়েন্ট বা কেন্দ্র যেন থাকে। এ ব্যাপারে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

ওডি/নিমি

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড