• রোববার, ০৯ আগস্ট ২০২০, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বেরোবি সাংবাদিকদের নিয়ে মনগড়া বিবৃতি : ব্যাপক সমালোচনা

  বেরোবি প্রতিনিধি

২৫ জুলাই ২০২০, ২০:০০
বেরোবি
বেরোবিসাস (ছবি : সংগৃহীত)

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) কর্মরত সাংবাদিকদের নিয়ে মনগড়া, উদ্ভট ও আপত্তিকর বিবৃতি দিয়েছে ‘নব প্রজন্ম শিক্ষক পরিষদ’। এতে ফেসবুকসহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে।

শুক্রবার (২৪ জুলাই) রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যপন্থী হিসেবে পরিচিত শিক্ষকদের সংগঠন নব প্রজন্ম শিক্ষক পরিষদের আহ্বায়ক সুমাইয়া তাহসিন হামিদা এবং সদস্য সচিব খালিদ হাসান রিয়েল সাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এমন মনগড়া কথা বলেন সংগঠনটি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন রিপোর্টার হিসেবে কোন নিউজ করা যাবে, কোন নিউজ করা যাবে না এমন স্পর্শকাতর বিষয় নিয়ে নানা উদ্ভট বিবৃতি প্রদান করেন তারা। বিবৃতিতে বলা হয়-

বাংলানিউজ২৪.কম এর ক্যাম্পাস সংবাদদাতা মাহফুজুল ইসলাম বকুল, যুগান্তরের ক্যাম্পাস সংবাদদাতা রাব্বী হাসান সবুজ, ইত্তেফাক এর ক্যাম্পাস সংবাদদাতা মোবাশ্বের আহমেদ ও মানবজমিনের ক্যাম্পাস সংবাদদাতা ইভান চৌধুরী পড়াশোনার পাশাপাশি পার্ট টাইম জব করছে। কিন্তু এরা সকল সংবাদ কেন্দ্রীয় অফিসকে অবহিত করে না এবং এদের কাছ থেকে কোনো গঠনমূলক রিপোর্ট পাওয়া যায় না বরং এরা এই দায়িত্বের অপব্যবহার করছে। এতে করে তারা কেবল বিশ্ববিদ্যালয়ের নয়, নিজেদের ক্ষতিই করছে।

শিক্ষকদের বিবৃতি সম্প্রতি বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন কর্মকর্তা যারা কিনা দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) এর মামলার আসামি, তাদেরকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে বেগম রোকিয়া বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। দৃশ্যত এরকম একটা স্পর্শকাতর' বিষয় নিয়ে সংশ্লিষ্ট পত্রিকাগুলোর ক্যাম্পাস প্রতিনিধি হিসেবে কেন্দ্রীয় অফিসে অবহিত করেনি। এ ব্যাপারে তাদের কোনো ভ্রুক্ষেপই নেই যা অনভিপ্রেত একটি ঘটনা এবং উদ্দেশ্যমূলক। তাই নব প্রজন্ম শিক্ষক পরিষদ এরকম ব্যক্তিদের ক্যাম্পাস সংবাদদাতার দায়িত্ব থেকে বিরত রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট পত্রিকার সম্পাদকমণ্ডলীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছে। নব প্রজন্ম শিক্ষক পরিষদ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনেরও দৃষ্টি আকর্ষণ করছে এদেরকে ও এদের আসল মদদদাতাদের যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য।

নবপ্রজন্ম শিক্ষক পরিষদের বিবৃতি (ছবি : সংগৃহীত)

এ বিষয়ে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সাবেক সভাপতি সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘আপনাদের কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদ জানানোর ভাষা আমার জানা নেই। শুধু বলে রাখি একদিন নিশ্চয়ই লজ্জিত হবেন। সেদিন আর নিজের দিকে তাকাতে পারবেন না। ক্যাম্পাস যাদের আসার বয়স দুই বছর হয়নি তারা আবার সাংবাদিকদের জ্ঞান দেয়। এই জ্ঞানীদের বয়কট করলাম। এত বড় স্পর্ধা! শুনে রাখুন ক্যাম্পাসের সাংবাদিকরা আপনাদের মতো চাকরির ভয় করে না। এটা তাদের রুটি-রুজিও নয়। তাই নিজেদের কর্মফল চিন্তা করুন।

তিনি আরও বলেন, ‘আপনাদের মতো শিক্ষকরা বিশ্ববিদ্যালয় অঙ্গনকে কলঙ্কিত করছে। যদি নিঃশর্ত ক্ষমা না চান তাহলে বেরোবি সাংবাদিক সমিতি ও রংপুরের সাংবাদিক সমাজ আপনাদের কৃতকর্মের ফল সুদে আসলে ফিরিয়ে দেবে।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি পোমেল বড়ুয়া জানান, একজন শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের শোভা যতটুকু বৃদ্ধি করে, আপনাদের (শিক্ষক) দ্বারা বোধহয় ততটুকুও সম্ভব নয়। একজন সাংবাদিক কোন নিউজ করবে বা করবে না তা বলার অধিকার আপনার নাই। সাংবাদিকতা পেশা নিয়ে কথা বলার আগে দশবার ভাববেন!

আরও পড়ুন : আইইউবিএটির ফল সেমিস্টারের ভর্তি কার্যক্রম শুরু

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিক সমিতির বর্তমান সভাপতি মোবাশ্বের আহমেদ বলেন, ‘বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় নব প্রজন্ম শিক্ষক পরিষদের বিবৃতি নিঃসন্দেহে স্বাধীন সাংবাদিকতা ও মতপ্রকাশের পরিপন্থী, অন্যায় এবং অপরাধ। তাদের এই বিবৃতি ক্যাম্পাস সাংবাদিকদের জন্য হুমকি স্বরূপ।’

উল্লেখ্য, বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহর আমলে নিয়োগ পাওয়া শিক্ষকদের এই সংগঠন বিভিন্ন সময়ে এমন উদ্ভট বিবৃতি আর প্রেস রিলিজে সমালোচনার কেন্দ্রবিন্দু হয়েছিলো। এই সংগঠনের অধিকাংশ শিক্ষক বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগদান করার সময়কাল এক থেকে দুই বছর।

jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড