• সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৩ আশ্বিন ১৪২৭  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

গবেষণায় বরাদ্দ কমানোর সংবাদের প্রেক্ষিতে ববি কর্তৃপক্ষের বক্তব্য

  ক্যাম্পাস ডেস্ক

২১ জুন ২০২০, ২০:২১
ববি
ছবি : সংগৃহীত

সাম্প্রতিক সময়ে কিছু গণমাধ্যমে “গবেষণায় বরাদ্দ কমিয়েছে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। প্রকাশিত সংবাদে উল্লেখ করা হয় ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেটে গবেষণায় বরাদ্দ কমিয়েছে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়।

যদিও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) থেকে বরাদ্দ বেড়েছে। এমনকি বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব খাত থেকে আয় বৃদ্ধিও দেখানো হয়েছে। তবুও চলতি অর্থবছরের তুলনায় নতুন অর্থবছরের বাজেটে গবেষণায় ৩ লাখ টাকা কম বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

উপরোক্ত বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের বক্তব্য নিম্নরুপ:

প্রকৃতপক্ষে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের বাজেটে গবেষণা খাত, মূলধন অনুদান খাত, পণ্য ও সেবা খাতসহ সামগ্রিক বাজেট বৃদ্ধি পেয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের বাজেট পর্যালোচনা অনুযায়ি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০-২১ অর্থবছরের মূল বাজেটে গবেষণা অনুদান খাতে (নিয়মিত ও বিশেষ) ৫০ লাখ টাকা অনুমোদন করেছে। যা ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের মূল বাজেটে ৪৫ লাখ টাকা ছিল এবং সংশোধিত বাজেটে ৫৩ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

২০১৯-২০ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেট বরাদ্দ ৪১ কোটি ৬৭ লাখ টাকা, যা ২০২০-২১ অর্থবছরের মূল বাজেটে ৪৫ কোটি ৩ লাখ টাকা (ইউজিসি) কর্তৃক অনুদান পাওয়া গিয়েছে। অর্থাৎ ইউজিসি কর্তৃক সামগ্রিক বাজেট বরাদ্দ বৃদ্ধি পেয়েছে।

আরও পড়ুন : হুট করে আজকে বলব না যে কালকে পরীক্ষা : শিক্ষামন্ত্রী

২০২০-২১ অর্থবছরের মূল বাজেটে গবেষণা খাতে বরাদ্দকৃত অর্থ সংশোধিত বাজেটে বিশ্ববিদ্যালয়ের চাহিদার প্রেক্ষিতে পূর্বের ন্যায় বৃদ্ধি পাবে। প্রকৃতপক্ষে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা খাতে বরাদ্দ কমেনি আরও বৃদ্ধি পেয়েছে। উপরন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ের বাজেটে সকল খাতে বিগত অর্থবছরের তুলনায় বাজেট বরাদ্দ বৃদ্ধি পেয়েছে। কাজেই গবেষণা খাতে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের বাজেটে অর্থ বরাদ্দ কমেছে বিষয়টি সঠিক নহে।

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: +8801721978664

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড