• বুধবার, ০৮ জুলাই ২০২০, ২৪ আষাঢ় ১৪২৭  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

স্ত্রীসহ নোবিপ্রবি অধ্যাপক করোনায় আক্রান্ত

  ক্যাম্পাস ডেস্ক

০৫ জুন ২০২০, ১৭:২১
অধ্যাপক ড. ফিরোজ আহমেদ
ছবি : সংগৃহীত

স্ত্রীসহ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (নোবিপ্রবি) অনুজীববিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. ফিরোজ আহমেদ। 

বৃহস্পতিবার (৪ জুন) নিজেই বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের র‍্যাপিড টেস্ট কিট উদ্ভাবক দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন।

ফিরোজ আহমেদ ভাইরাস সংক্রমিত হয়ে আজ ৯ম দিন এবং তার স্ত্রী সামিনা সুলতানা ৭ম দিন পার করছেন। তারা উভয়েই ঢাকা মেডিকেল কলেজের অধ্যাপক তারেক আলম এবং বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজের অধ্যাপক রেদোয়ানুর রহমানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে নিজ বাসায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

গণস্বাস্থ্যের কিটে পজিটিভ ধরা পড়লে পরবর্তী সময়ে পিসিআর ল্যাবে দুজনেই নমুনা পরীক্ষা করেন। ড. ফিরোজ বলেন, ‘করোনা উপসর্গ দেখা দিলে ২৬ মে গণস্বাস্থ্যের র‍্যাপিড টেস্টিং কিটে নমুনা পরীক্ষা করে করোনা পজেটিভ রেজাল্ট আসে। পরবর্তী সময়ে পিসিআর ল্যাবে পরীক্ষাতেও আমি ও আমার স্ত্রী করোনা পজেটিভ আসে।’

সর্বশেষ অবস্থা সম্পর্কে ড. ফিরোজ আহমেদ বলেন, ‘শারীরিক ও মানসিকভাবে আমি ও আমার স্ত্রী শক্ত আছি। জটিল কোনো উপসর্গ নেই এখনো। হালকা জ্বর এবং ডায়রিয়া আছে। তবে কাশি নেই। সবাই আমাদের সুস্থ্যতার জন্য দোয়া করবেন।’

আরও পড়ুন : ত্রুটিপূর্ণ কিট, বন্ধ হয়ে গেল চবির করোনা পরীক্ষা

প্রসঙ্গত, ড. ফিরোজ আহমেদ গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবিত র‍্যাপিড টেস্টিং কিটের অন্যতম উদ্ভাবক। ড. বিজন শীলের নেতৃত্বে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে স্বল্প সময় ও স্বল্প মূল্যে করোনা শনাক্তকরণ কিট উদ্ভাবন কাজের সাথে প্রথম থেকেই যুক্ত ছিলেন তিনি।

এছাড়াও তিনি নোবিপ্রবির মালেক উকিল হলের প্রাধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। বাংলাদেশ গ্র্যাজুয়েট মাইক্রোবায়োলজি সোসাইটির সভাপতি হিসেবেও কাজ করেছেন তিনি। ড. ফিরোজ আহমেদের স্ত্রী ডা. সামিনা সুলতানা একজন বিশেষজ্ঞ গাইনী ডাক্তার হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড