• শনিবার, ০৪ এপ্রিল ২০২০, ২১ চৈত্র ১৪২৬  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ড্রাইভারের উদাসীনতায় গুরুতর আহত ববি ছাত্রী

  ববি প্রতিনিধি

১৩ মার্চ ২০২০, ১৪:৪৪
ববি
ববিশাল বিশ্ববিদ্যালয় অ্যাকাডেমিক ভবন (ছবি : সংগৃহীত)

চালকের উদাসীনতা ও বেপরোয়া গতিতে বাস চালানোর সময় ‘বিষখালী’ পরিবহন বাস থেকে পড়ে গিয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (ববি) এক ছাত্রী। এতে ওই ছাত্রী ডান পা এবং হাতে চোট পান।

বৃহস্পতিবার (১২ মার্চ) বিকালে রূপাতলি স্টপেজে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী ছাত্রী মারিয়া বিনতে আমিন ববির রসায়ন বিভাগে দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।

এ ব্যাপারে ওই ছাত্রী নিজেই ‘Linkers in Barishal University’ নামক ফেসবুক গ্রুপে একটি পোস্ট দিয়ে বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যদের অবগত করেন। ওই ছাত্রীর পোস্টে পূর্বে এরূপ ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ও শিকার শিক্ষার্থীরা নিজেদের অভিজ্ঞতার কথা কমেন্ট করে জানান। 

ফেসবুক পোস্ট সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (১২ মার্চ) বিকাল আনুমানিক ৪টায় রূপাতলী স্টপেজে বাসে ওঠার জন্য দাঁড়ান মারিয়া। বাসটি কিছুটা থামলে তিনি বাসে ওঠার চেষ্টা করেন। কিন্তু বাসটি পুরোপুরিভাবে না থেমে পুনরায় চলতে শুরু করে, এর মধ্যে বাসে উঠে পড়েন মারিয়া। বাসটি এমনভাবে চলছিল যে মারিয়া না পারছিলেন বাসে উঠতে, না পারছিলেন বাস থেকে নামতে। কিছুটা ঝুলন্ত অবস্থায় থাকার পর বাসের গতি ক্রমেই বাড়তে থাকে। এতে করে বাস থেকে নিচে পড়ে যান মারিয়া। বাস থেকে পড়ে গিয়ে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাতসহ পায়ে মারাত্মক চোট পান তিনি। 

আরও জানা যায়, এ ঘটনায় এগিয়ে আসেন এক অটোচালক। তিনি মারিয়াকে এসে উদ্ধার করে তার অটোতে তোলেন। পরে মারিয়া তাকে জানায় প্রয়োজনীয় কিছু জিনিসপত্রসহ তার ব্যাগ বাসে রয়ে গেছে। পরে অটোচালকের সহায়তায় ব্যাগ উদ্ধার করেন তিনি। এছাড়া প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের হল পর্যন্ত পৌঁছে দেন ওই অটোচালক।  

এ ঘটনার পর মারিয়ার পায়ের অবস্থার অবনতি হয়। পরে রুমমেটদের সহায়তায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাম্বুলেন্স কল করা হয়। পরে হাসপাতালে পৌঁছালে সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ১৪ দিনের বেডরেস্টে থাকার পরামর্শ দেন। 

এ ব্যাপারে মুঠোফোনে ভুক্তভোগী মারিয়া দৈনিক অধিকারকে জানান, পায়ে এবং হাতে অনেক আঘাত পেয়েছি। এক্সরে রিপোর্ট আগামীকাল (শনিবার) দেবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ফোন দিয়ে খোঁজ নিয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয় খুললে এ বিষয়ে অভিযোগ দেব।

আরও পড়ুন : ইউল্যাবে ‘বঙ্গবন্ধু কর্নার’ উদ্বোধন 

এ বিষয়ে প্রক্টর ড. সুব্রত কুমার দাস দৈনিক অধিকারকে বলেন, আহত শিক্ষার্থীর সঙ্গে কথা বলেছি, তার খোঁজ নিয়েছি। পরিবহন পুলের ম্যানেজারের সঙ্গে কথা বলা হবে যাতে ড্রাইভাররা স্টপেজ থেকে নির্দিষ্ট সময় গ্যাপ দিয়ে যাতে শিক্ষার্থীদের তোলে এবং শিক্ষার্থীরা ওঠার পর যাতে বাসগুলো চালু করা হয়।

শিক্ষার্থীদের সূত্রে জানা যায়, এর আগে বিভিন্ন ঘটনায় শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে ড্রাইভারদের বিরুদ্ধে একাধিকবার অভিযোগ দিলেও বিশ্ববিদ্যালয় পরিবহন পুল দৃশ্যমান কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। এছাড়া বাসে বহিরাগতদের তোলা, স্টপেজে বাস না থামানো, দ্রুত বাস ছেড়ে দেওয়া, বাসে সিট খালি থাকা সত্ত্বেও শিক্ষার্থীদের না তোলা, শিক্ষার্থীদের সাথে দুর্ব্যবহার করাসহ ড্রাইভারদের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ রয়েছে। 

ওডি/এমআরকে

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড