• বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০, ১৯ চৈত্র ১৪২৬  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

শিক্ষার্থীদের যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন ইবি কর্মকর্তা!

  ইবি প্রতিনিধি

১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৯:০৫
ইবি
কর্মকর্তাদের অবস্থান কর্মসূচি (ছবি : দৈনিক অধিকার)

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সেকশন অফিসার আরিফুল হক। ‘ইবির শিক্ষার্থীরা সার্টিফিকেট তোলার আবেদনপত্রও লিখতে পারেন না’ বলে জানিয়েছেন তিনি।  

শনিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১টায় কর্মকর্তা সমিতির ২ ঘণ্টার কর্মবিরতি এবং অবস্থান কর্মসূচিতে এ কথা বলেন তিনি।

এর আগে, আরিফুল হক পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অফিসে লিপি কৌঁসলি হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

তিনি বলেন, ‘একটা ছাত্র যে আসলে আবেদন পত্র লিখতে পারে না। আমি তার প্রমাণ। সার্টিফিকেট তোলার সময় আবেদন পত্র লিখতে হয়। তারা আবেদন পত্র লিখতে পারে না। সে ছাত্র ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয় বিশ্ববিদ্যালয়টা কর্মকর্তাদের নামে লিখে দেওয়া হোক।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা এখন পর্যন্ত এক ঘণ্টা, দুই ঘণ্টা কর্মবিরতি পালন করেছি। দাবি আদায়ে যে সংগ্রাম করা দরকার, সেটা এখনো করিনি। কিন্তু এখন করতে বাধ্য হব।’

সম্প্রতি, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ভর্তি পরীক্ষায় আবেদনের যোগ্যতা থাকলেই পোষ্য কোটায় কর্মকর্তাদের সন্তানদের ভর্তির দাবির বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন মন্তব্য করে। এর জবাবে কর্মকর্তা আরিফুল হক এ মন্তব্য করেন।

জানা যায়, ‘পদোন্নতি, ভর্তি পরীক্ষায় আবেদনের যোগ্যতা থাকলেই পোষ্য কোটায় ভর্তিসহ বিভিন্ন দাবিতে সোমবার (১০ ফেব্রুয়ারি) থেকে এক ঘণ্টার কর্মবিরতি এবং অবস্থান কর্মসূচি পালন করে আসছে কর্মকর্তা সমিতি। দাবি আদায় না হওয়ায় শনিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) থেকে দুই ঘণ্টার কর্মবিরতি পালন করেছেন তারা।

এতে কর্মকর্তা সমিতির সভাপতি শামসুল ইসলাম জোহার সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মীর মোরশেদুল আলমের সঞ্চালনায় অবস্থান কর্মসূচিতে আরও উপস্থিত ছিলেন- কর্মকর্তা সমিতির যুগ্ম সম্পাদক মো. রাশিদুজ্জামান খান টুটুল, সদস্য মো. উকিল উদ্দিন, কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সেকশন অফিসার আরিফুল হক প্রমুখ।

এ বিষয়ে ভারপ্রাপ্ত পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক আবুল কালাম আজাদ বলেন, এ বিষয়ে আমার জানা নাই। যিনি এমন মন্তব্য করেছেন, তিনি পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অফিস থেকে স্থানান্তরিত হয়েছেন।

ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. সাইদুর রহমান বলেন, শিক্ষার্থীরা সার্টিফিকেট উত্তোলনের জন্য আবেদন লিখতে পারে না, এটা সত্য নয়।

আরও পড়ুন : বেরোবিতে ক্যারিয়ার বিষয়ক কর্মশালা 

উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন যাবত বিভিন্ন দাবি নিয়ে আন্দোলন করে আসছেন কর্মকর্তারা। ২০১৮ সালের ২২ ডিসেম্বর ৩ দফা দাবিতে মৌনমিছিল, ২০১৯ সালের ৩ মার্চ ৩ দিনব্যাপী কর্মবিরতি ও অবস্থান কর্মসূচি এবং ২ ও ৩ সেপ্টেম্বর দিনব্যাপী কর্মবিরতি পালন করেন তারা।

ওডি/এমআরকে

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড