• সোমবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৪ ফাল্গুন ১৪২৬  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

খুবির উন্নয়নে ৩৩৫ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন

  খুবি প্রতিনিধি

১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫:৩৮
খুবির মেগা প্রকল্প
মেগা প্রকল্পের অডিটোরিয়াম ও ভবন (ছবি : সম্পাদিত)

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে (খুবি) ইতিহাসের সবচেয়ে বড় অঙ্কের উন্নয়ন প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি একনেক।

মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারি) সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে একনেকের সভায় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অবকাঠামোগত উন্নয়নে ৩৩৫ কোটি ৩৫ লাখ টাকার এই সংশোধিত উন্নয়ন প্রকল্পের অনুমোদন দেওয়া হয়।

২০২২ সালের জুন পর্যন্ত সংশোধিত এই প্রকল্প বাস্তবায়নের মেয়াদ ধরা হয়েছে। অনুমোদিত এ প্রকল্পে উল্লেখযোগ্য অবকাঠামো সমূহের মধ্যে রয়েছে- ৭৯ কোটি ৬৬ লাখ টাকা ব্যয় সাপেক্ষে ১০ হাজার বর্গমিটার আয়তনের ছাত্র-শিক্ষক মিলনায়তন ভবন এবং অডিটোরিয়াম নির্মাণ, ৭০ কোটি ৯৬ লাখ টাকা ব্যয় সাপেক্ষে ১৬ হাজার ৭শ পঞ্চাশ বর্গমিটার আয়তনের চতুর্থ অ্যাকাডেমিক ভবন নির্মাণ (১০ তলা ভিতে ১০ তলা), ৩৩ কোটি ৩২ লাখ টাকা ব্যয়ে ৭ হাজার ৩৭০ বর্গমিটার আয়তনের শিক্ষক-কর্মকর্তাদের আবাসিক ভবন নির্মাণ (১১ তলা ভিতে ১১ তলা), ২৫ কোটি ৯৫ লাখ টাকা ব্যয় সাপেক্ষে ৩ হাজার ৯৭ বর্গমিটার আয়তনের জিমনেশিয়াম নির্মাণ, ১৩ কোটি ৫৫ লাখ টাকা ব্যয়ে আইইআর ভবন (খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল এবং ইনস্টিটিউট অব এডুকেশন অ্যান্ড রিসার্চসহ) নির্মাণ, ৩ কোটি ৯৪ লাখ টাকা ব্যয়ে মার্বেল পাথর দ্বারা কেন্দ্রীয় মসজিদের ফ্লোর নির্মাণ ও বিশেষ টাইপের গ্রিল তৈরি, বৃহৎ ও সুউচ্চ ভবনসমূহের ছাদে ৪ কোটি ৪২ লাখ টাকা ব্যয় সাপেক্ষে সোলার প্যানেল স্থাপন, ২ কোটি ১৫ লাখ টাকা ব্যয়ে বিদ্যুতের অভ্যন্তরীণ সাব-স্টেশন নির্মাণ এবং ৯ কোটি টাকা ব্যয়ে সীমানা প্রাচীর এবং দৃষ্টিনন্দন প্রধান ফটক নির্মাণ।

১৯৮৭ সালের ৪ জানুয়ারি খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় প্রকল্প শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত গত ৩০ বছরে এটাই সবচেয়ে বড় সংশোধিত উন্নয়ন প্রকল্প। তবে মূল প্রকল্পে তখন যে আয়তন ধরা ছিলো তা ভবিষ্যৎ চাহিদার তুলনায় কম। ফলে চাহিদা পূরণ হতো না। এই সংশোধিত প্রকল্প অনুমোদিত হওয়ায় প্রয়োজনীয় আয়তন বৃদ্ধি পাবে যা সময়ের চাহিদা পূরণ করবে।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের এপ্রিলে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) অধিকতর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ শুরু হলেও সেটি ধীরগতিতে চলছে। এখন পর্যন্ত প্রকল্পের মাত্র ৩৫ শতাংশ কাজ হয়েছে। ২০২১ সালের জুন মাসে প্রকল্পের কাজ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও ধীরগতির কাজে তা সম্ভব হচ্ছিল না। এছাড়া ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে চলমান প্রকল্পের আওতায় বেশকিছু অবকাঠামোর ডিজাইনে পরিবর্তন এনে আয়তনে বাড়ানো হয়েছে। যার ফলে ওই প্রকল্প বাস্তবায়ন ব্যয় ১৮৮ কোটি টাকা থেকে প্রায় দ্বিগুণ বেড়ে ৩৩৫ কোটি হয়।

আরও পড়ুন : খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে পিঠা উৎসব

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসে এ যাবত কালের সবচেয়ে বড় অঙ্কের সংশোধিত উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও গভীর কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান।

এক বার্তায় তিনি বলেন, ‘এই উন্নয়ন বরাদ্দ খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ আনুকূল্যের নিদর্শন। যা বিশ্ববিদ্যালয়ের অতীত বঞ্চনা পুষিয়ে নিয়ে প্রয়োজনীয় অবকাঠামো নির্মাণের মাধ্যমে শিক্ষা-গবেষণার নতুন দ্বার উন্মোচন করবে এবং বিশ্ববিদ্যালয়কে তার অভীষ্ট লক্ষ্যে এগিয়ে নিতে সহায়ক হবে।’

ওডি/এমএ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড