• শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

জাককানইবিতে ভর্তি জালিয়াতিতে দুই শিক্ষার্থীসহ আটক ৩

  জাককানইবি প্রতিনিধি

১৮ নভেম্বর ২০১৯, ২২:১৯
জাককানইবি
ডিজিটাল ডিভাইসসহ আটক এক, ইনসেটে ডিজিটাল ডিভাইস (ছবি : দৈনিক অধিকার)

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাককানইবি) ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষে ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির ‘বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ভর্তি পরীক্ষায় ডিজিটাল ডিভাইস ব্যবহার ও জালিয়াতির অভিযোগে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) ও মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (মাভাবিপ্রবি) শিক্ষার্থী সহ মোট ৩ জনকে আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালতের কাছে সোপর্দ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

সোমবার (১৮ নভেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ে ১ম শিফটে সকাল ১১টা থেকে বেলা ১২টা ৩০ মিনিট এবং ২য় শিফটে বেলা ২টা থেকে ৩টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ‘বি’ ইউনিটে ৪টি বিভাগ রয়েছে। বিভাগগুলো হলো- কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ, ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ, এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ এবং পরিসংখ্যান বিভাগ। 

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ১৬০টি আসনের বিপরীতে মোট ৮ হাজার ৯০৭টি আবেদন জমা পড়ে। তন্মধ্যে ৬ হাজার ৯০১ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছে, উপস্থিতির হার ছিল শতকরা প্রায় ৭৮ ভাগ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমানের নেতৃত্বে ভিজিলেন্স টিম বিভিন্ন পরীক্ষা কেন্দ্র ঘুরে দেখেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন- কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. জালাল উদ্দিন, ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সুব্রত কুমার দে, অধ্যাপক ড. আহমেদুল বারী, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) কৃষিবিদ ড. মো. হুমায়ুন কবীর, অধ্যাপক ড. মুশাররাত শবনম, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ড. নির্মল চন্দ্র সাহা ও বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি জনাব শফিকুল ইসলাম প্রমুখ। উপাচার্য পরীক্ষা কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীদের উপস্থিতির হার এবং শান্তিপূর্ণ পরিবেশ দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন।

ভর্তি জালিয়াতিতে জড়িতদের কাছ থেকে উদ্ধারকৃত কাগজ, ছবি ও মোবাইল (ছবি : দৈনিক অধিকার)

অন্যদিকে সকাল শিফটে পরীক্ষা শুরুর আগে ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস বহন করার অভিযোগে এহসান আহমেদ, পিতা : বছির আহমেদ, বাড়ি : ময়মনসিংহ জেলার ফুলবাড়িয়া উপজেলা,  পরীক্ষার রোল : ১০৪৫৭; বিকাল শিফটে একজন ভুয়া পরীক্ষার্থীকে আটক করা হয়। তার দেয়া স্বীকারোক্তি অনুযায়ী সে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের ৫২তম ব্যাচের শিক্ষার্থী নওশিন সাইয়ারা অদ্রি, তার বাসা ময়মনসিংহ শহরের আকুয়ায়, পিতার নাম সাইফুল ইসলাম। সে ফারহানা তাজমিম কণার পরিবর্তে পরীক্ষা দিচ্ছিল, যার পরীক্ষার রোল ১৮৬৭৭। অদ্রিকে নিয়ে আসে মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (মাভাবিপ্রবি) আইসিটি বিভাগের ২য় বর্ষের ২য় সেমিস্টারের শিক্ষার্থী মো. হিল্লোল বিশ্বাস, পিতা : হারুনুর রশিদ, যার বাড়ি মাগুরা জেলায়। জানা যায়, র‍্যাগিং এর অভিযোগে সে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কৃত।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. উজ্জ্বল কুমার প্রধান জানান, ‘বি ইউনিটের সকালের শিফটের পরীক্ষা শুরুর কিছুক্ষণ আগেই ডিজিটাল ডিভাইস বহন করায় একজনকে এবং বিকালের শিফটে অন্য জনের পরীক্ষায় অংশগ্রহণের দায়ে এবং আরেকজনের পরীক্ষা দেওয়ায় মোট তিনজনকে আটক করা হয়। আটককৃত তিনজনকেই ভ্রাম্যমাণ আদালতের নিকট সোপর্দ করা হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ত্রিশাল উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. এরশাদ উদ্দিন।

আগামীকাল ১৯ নভেম্বর থেকে ২১ নভেম্বর পর্যন্ত যথাক্রমে ‘সি’, ‘ডি’ ও ‘ই’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত যে কোনো তথ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

ওডি/এমএ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন সজীব 

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড