• মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ৬ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সরকারি নির্দেশ মানছে না কোচিং সেন্টারের শিক্ষকরা  

  ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৬:৫৪
শিক্ষার্থী
কোচিং করছেন শিক্ষার্থীরা ( ছবি : দৈনিক অধিকার )

ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলায় সরকারি নির্দেশনা মানছে না কোচিং সেন্টারগুলো শিক্ষকরা। চলতি এসএসসি পরীক্ষা শুরু আগে মাইকিং করে সকল প্রকার কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেয় উপজেলা প্রশাসন। কিন্তু সরকারি নিয়ম নীতিমালাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে অবাধে চলছে পীরগঞ্জের কোচিং সেন্টারগুলো। 

পৌর শহরের বিভিন্ন কোচিং সেন্টারে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বাহির থেকে দরজা জানালা বন্ধ করে শিক্ষার্থীদের কোচিং করাচ্ছে শিক্ষকরা। একই অবস্থা দেখা যায় আইডিয়াল, উইনার, সাকসেস, ইউরেকা, উন্মেষ, মেধাবিকাশ, অ্যাবাকাস, প্যাকেজ প্রোগ্রাম, প্রতিভাসহ নামে-বেনামে গড়ে উঠা কোচিং সেন্টার গুলোতে। তবে কোচিং সেন্টার বন্ধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোন প্রকার উদ্যোগ না নেওয়ায় অবাধে এসব কোচিং বাণিজ্য চলছে বলে জানায় কোচিং সেন্টারের শিক্ষকরা। 

মেধাবিকাশ কোচিং সেন্টারের পরিচালক এসএম জনি জানান, কোচিং সেন্টার বন্ধের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে আমি মোবাইল ফোনে কয়েকবার অবগত করি। কিন্তু তিনি এ বিষয়ে কোন প্রকার ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় সকল শিক্ষকরাই কোচিং করাচ্ছেন। যেহেতু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছেন না তাই আমিও কোচিং করাচ্ছি এতে দোষের কি? 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন কোচিং শিক্ষক জানান, সরকারি নির্দেশনা তোয়াক্কা না করে স্কুল কলেজের শিক্ষরা আড়লে অবৈধ ভাবে কোচিং সেন্টারের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এতে করে শিক্ষার্থীরা আমাদের কাছ থেকে সরে গিয়ে তাদের কাছে গিয়ে কোচিং করছে। তাই এক প্রকার বাধ্য হয়েই আমরা কোচিং করাচ্ছি। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন সচেতন অভিভাবক জানান, কোচিং সেন্টারের শিক্ষকরা এখন অভিনব কায়দায় কোচিং করাচ্ছে। সময় সূচি ও স্থান পরিবর্তন করে সকাল ৬টা থেকে সকাল সাড়ে ৮টা পর্যন্ত এবং দুপুর ১টা থেকে সাড়ে ৩টা পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের কোচিং করাচ্ছে। অনেকেই আবার বাসা ভাড়া নিয়ে গোপনে একসাথে শতাধিক শিক্ষার্থীকে পাঠদান করাচ্ছেন। 

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ ডব্লিউ এম রায়হান শাহ্ জানান, কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার জন্য ইতিমধ্যে কয়েকটি কোচিং সেন্টারে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে জরিমানা করা হয়েছে। তারপরেও যদি কেউ কোচিং সেন্টারে পাঠদান অব্যাহত রাখে তাহলে খোঁজ নিয়ে তা বন্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এছাড়াও বাকি উপজেলাগুলোতে প্রশাসনের লোকজন মাইকিং করে কোচিং বন্ধ রাখার নির্দেশনা দিলেও কোচিং সেন্টারগুলো গোপনে পরিচালনা করছে। 

আপনার ক্যাম্পাসের নানা ঘটনা, আয়োজন/ অসন্তোষ সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড