• রবিবার, ২৬ মে ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন

কম খরচ, বৃত্তি প্রদান

উচ্চশিক্ষায় শিক্ষার্থীদের পছন্দের শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র

  অধিকার ডেস্ক ০৫ জানুয়ারি ২০১৯, ১৬:৪৯

প্রতীকী
ছবি : প্রতীকী

উচ্চশিক্ষা গ্রহণে দেশের বাইরে পড়াশোনার ক্ষেত্রে সবারই লক্ষ্য থাকে স্কলারশিপ। বর্তমান সময়ে দেশের গণ্ডি পেরিয়ে শিক্ষার্থীরা যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, তুরস্ক, জাপানসহ বিভিন্ন দেশে পাড়ি জমাচ্ছেন। তবে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিগ্রি অর্জনের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের পছন্দের বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় যুক্তরাষ্ট্রের বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যাই বেশী।

এর পেছনে রয়েছে শিক্ষাব্যবস্থার আন্তর্জাতিক খ্যাতি এবং গ্রহণযোগ্যতা। কলা, সামাজিক বিজ্ঞান, ব্যবসায় শিক্ষা অথবা বিজ্ঞান সব ক্ষেত্রেই এখানকার বিশ্ববিদ্যালয়গুলো তাদের নিজ নিজ সুখ্যাতি ধরে রেখেছে। সেই সাথে রয়েছে বৃত্তি প্রদান ও অন্যান্য আর্থিক সহযোগিতা।

যারা দেশের বাইরে যেয়ে স্নাতক কিংবা স্নাতকোত্তর অর্জনের কথা ভাবছেন তাদের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য তুলে ধরা হলও।

শিকাগো স্টেট ইউনিভার্সিটি বিশ্বের বিভিন্ন দেশের শিক্ষার্থীদের অন্যতম একটি বিদ্যাপীঠ এই বিশ্ববিদ্যালয়। পছন্দের কোর্স সম্পন্নে শিকাগো স্টেট ইউনিভার্সিটির বৃত্তি ও আর্থিক সহায়তার বিভিন্ন উৎস রয়েছে। তবে এক্ষেত্রে যেসব শিক্ষার্থীর আর্থিক সমস্যা রয়েছে, তাদেরকে অগ্রাধিকারে রাখা হয়।

ইউনিভার্সিটি অব মেইন যুক্তরাষ্ট্রের যেসকল বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক বৃত্তি প্রদান করা হয় সেগুলোর মধ্যে ইউনিভার্সিটি অব মেইন অন্যতম। এ বৃত্তি পেতে হলে শুরুতে শিক্ষার্থীদের স্নাতক ডিগ্রি কোর্সের জন্য আবেদন করতে হয়। আর এ বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক বৃত্তি নীতি সম্পর্কে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য বিষয় হলও, নির্ধারিত সময়সীমার পর যদি আপনি আবেদনপত্র জমা দেন, তাহলেও আপনার প্রাপ্য অনুযায়ী তহবিল পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। যার ফলে শিক্ষার্থীদের পছন্দের তালিকায় এ বিশ্ববিদ্যালয় এখনও শীর্ষে।

অ্যারিজোনা স্টেট ইউনিভার্সিটি অ্যারিজোনা স্টেট ইউনিভার্সিটিতে মেধাবী এবং প্রতিভাধর শিক্ষার্থীরা ৩ হাজার থেকে ৮ হাজার ডলার পরিমাণ বৃত্তি পেয়ে থাকেন। স্কলারশিপে বিদেশে পাড়ি জমানো একজন শিক্ষার্থীর জন্য এই বৃত্তি খুবই উপকারী।

ইস্ট টেনেসি স্টেট ইউনিভার্সিটি বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা শিক্ষার্থীদের মোট টিউশন ফি ও রক্ষণাবেক্ষণ ফির ৫০ শতাংশ বৃত্তি দিয়ে থাকে ইস্ট টেনেসি স্টেট ইউনিভার্সিটি। রাষ্ট্রের ভেতর ও বাইরের যেকোনো ক্যাম্পাসেই শিক্ষার্থীরা এই ফি ব্যবহার করতে পারেন। স্নাতক সম্পন্ন করবেন এমন শিক্ষার্থীদের জন্য এ বৃত্তি অষ্টম সেমিস্টার পর্যন্ত ও স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থীদের জন্য পঞ্চম সেমিস্টার পর্যন্ত বরাদ্দ থাকে।

ভর্তির যোগ্যতা এবং কোর্সের মেয়াদ :

অ্যাসোসিয়েট ডিগ্রি কোর্সটি সম্পন্ন করতে কমপক্ষে ১২ বছরের শিক্ষা সমাপন এর যোগ্যতা অর্জন করতে হবে। ভাষাগত দক্ষতার ক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয় ভেদে টোফেল, স্যাট, জিআরই অথবা জিম্যাট এর প্রয়োজন হতে পারে। কোর্সের মেয়াদ - দুই বছর।

ব্যাচেলর ডিগ্রি কোর্সটি সম্পন্ন করতে কমপক্ষে ১২ বছরের শিক্ষা সমাপন এর যোগ্যতা থাকতে হবে। ভাষাগত দক্ষতার ক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয় ভেদে টোফেল, স্যাট, জিআরই অথবা জিম্যাট এর প্রয়োজন হতে পারে। কোর্সটির মেয়াদ -চার বছর।

মাস্টার্স ডিগ্রি কোর্স সম্পন্নে ১৬ বছরের শিক্ষা সমাপন যোগ্যতা লাগবে। ভাষাগত দক্ষতার ক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয় ভেদে টোফেল, স্যাট, জিআরই অথবা জিম্যাট এর প্রয়োজন হতে পারে। কোর্সটির মেয়াদ -দুই বছর।

ডক্টরেট ডিগ্রি কোর্সটি সম্পন্ন করতে মাস্টার্স/এমফিল পর্যায়ের শিক্ষাগত যোগ্যতার প্রয়োজন হবে। ভাষাগত যোগ্যতার প্রয়োজন হবে টোফেল এক্ষেত্রেও কিছু কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ে স্যাট, জিআরই অথবা জিম্যাট প্রয়োজন হতে পারে। কোর্সটির মেয়াদ- তিন-ছয় বছর।

কোর্সের অন্তর্গত পঠিতব্য বিষয় : শিল্প ও শিল্প ইতিহাস, জীববিদ্যা, রসায়ন, কম্পিউটার বিজ্ঞান, ভূমণ্ডল ও পরিবেশ বিজ্ঞান, অর্থনীতি, ফিল্ম ও মিডিয়া স্টাডিজ, ইতিহাস, ভাষাবিদ্যা, গণিত, ফলিত গণিত, পরিসংখ্যান, আধুনিক ভাষা ও সংস্কৃতি, সঙ্গীত, দর্শন, পদার্থ বিজ্ঞান ও জ্যোতির্বিদ্যা, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, রাসায়নিক প্রকৌশল, প্রাণরসায়ন, যন্ত্রকৌশল, তড়িৎ প্রকৌশল, বংশগতিবিদ্যা, এমবিএ, খাদ্য ও পুষ্টিবিজ্ঞান, আইনসহ অনেক বিষয়।

টিউশন ফি : পাবলিক এবং প্রাইভেট কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয় ভেদে টিউশন ফি’র তারতম্য দেখা যায়। এ ক্ষেত্রে যে বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করা হবে তার নিজস্ব ওয়েবসাইটে বিস্তারিত জানা যাবে।

প্রয়োজনীয় কাগজপত্র: রিকমেন্ডেশন লেটার, নিজ সম্পর্কে প্রবন্ধ, সহশিক্ষা কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করে থাকলে তার বিবরণ। এটি শিক্ষার্থীদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পূরণ কৃত আবেদনপত্র, আবেদন ফি পরিশোধের প্রমাণপত্র, পূর্বতন শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদের ইংরেজি সংস্করণ, স্কুল/কলেজের ছাড়পত্র, টোফেল পরীক্ষার ফলের সনদ, প্রয়োজন সাপেক্ষে জিআরই, স্যাট বা জিম্যাটের ফলের সনদ, পাসপোর্টের ফটোকপি।

আপনার ক্যাম্পাসের নানা ঘটনা, আয়োজন/ অসন্তোষ সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড