• সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫  |   ১৯ °সে
  • বেটা ভার্সন

কুবিতে নির্বাচনী হাওয়া, তরুণ ভোটারদের চাওয়া অবাধ সুষ্ঠু এবং নিরপেক্ষ নির্বাচন

  আহমাদ ইউসুফ ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৮:৪৮

কুবি
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় (ছবি : সংগৃহীত)

সর্বত্রই নির্বাচনী আমেজ বিরাজ করছে। টং দোকানের আড্ডা থেকে শুরু করে টিভি সংলাপ সর্বত্রই একাদশ জাতীয় সংসদের নির্বাচন নিয়ে কথা হচ্ছে। কে ক্ষমতায় আসবে কিংবা নির্বাচনী আমেজ কেমন হবে! ক্ষমতায় কে? আওয়ামী লীগ নাকি বিএনপি! এসবই কথা হচ্ছে সর্বত্র।

এরই মধ্যে নির্বাচনী প্রার্থীর মনোনয়ন দাখিলসহ সমগ্র বাংলাদেশ এখন একাদশ জাতীয় সংসদের নির্বাচনের দিকে তাকিয়ে। এসব নিয়ে দৈনিক অধিকারের সঙ্গে একান্তে বিস্তারিত কথা বলেছেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ইলিয়াস হোসেন সবুজ এবং সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম মাজেদ।

শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ইলিয়াস হোসেন সবুজ অধিকারে সঙ্গে আলাপচারিতায় খুঁটিনাটি নানান তথ্য তুলে ধরেন....... 

অধিকার : আপনি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি হিসেবে নির্বাচন নিয়ে আপনার ভাবনা কি?

ইলিয়াস হোসেন সবুজ : কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ইলিয়াস হোসেন সবুজ বলেন, বর্তমান তরুণ এবং শিক্ষিত প্রজন্মের কাছে জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন কর্মকাণ্ডগুলো তুলে ধরার মাধ্যমে ইতিবাচক মনোভাব জাগিয়ে তোলা। এবং তাদেরকে বুঝানো যে উন্নয়নের ধারা ধরে রাখার জন্য আওয়ামী লীগই যোগ্য।

অধিকার : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি জোট গঠন করে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছে, বিষয়টি কীভাবে মোকাবিলা করবেন আপনারা?

ইলিয়াস হোসেন সবুজ : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন একটু কঠিন হবে। কিন্তু সেক্ষেত্রে আওয়ামী লীগকে মাঠে পরিশ্রম করতে হবে এবং বিএনপি-জামাতের সহিংস তাণ্ডবকে রুখে দিতে সর্বদা প্রস্তত থেকে মোকাবিলা করলে আওয়ামী লীগ আবারও তৃতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আসবে।

অধিকার : নির্বাচনকে ঘিরে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কোনো নির্দেশনা আছে কিনা? 

ইলিয়াস হোসেন সবুজ : নির্বচনকে ঘিরে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নির্দেশনা হলো বিএনপির জনপ্রিয়তা তলানিতে থাকা সত্ত্বেও এবং তারা যখন নিশ্চিত পরাজয় মেনে নিয়েও নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছে, তার মানে তারা নাশকতা করতে পারে। এ ব্যপারে ছাত্রলীগ ৩০ তারিখ ভোট গ্রহণ থেকে শুরু করে গণনা শেষ হওয়া পর্যন্ত ভোট কেন্দ্রে অবস্থান করে সুষ্ঠুভাবে ভোট গ্রহণে সহায়তা এবং বিএনপি জামায়াতের নাশকতাকে রুখে দেওয়ার জন্য সর্বদা প্রস্তুত থাকবে।

অধিকার : ড. কামালের ঐক্যফ্রন্ট এবং বিএনপি জোট গঠন করেছে, একজন ছাত্র নেতা হিসাবে বিষয়টি আপনি কীভাবে দেখছেন? 

ইলিয়াস হোসেন সবুজ : ড. কামাল হোসেন, আ.স.ম. আব্দুর রব, মাহমুদুর রহমান মান্না, উনাদের আসলে নামে মাত্রই একটা দল আছে, কিন্তু মাঠে পাঁচজন কর্মী পাওয়া কষ্টসাধ্য হবে। আর জোট গঠন যখন হয়েছে এটা মূলত আন্তর্জাতিক মহলে দেখানের জন্যই যে অনেক বড় জোট গঠন হয়েছে। এছাড়া বস্তত এই জোটের মূল্যায়ন করা কঠিন এবং ভালো ফলাফল পাওয়া দুষ্কর হবে।

অধিকার : নির্বাচনকালীন সময়ে আপনার শাখার কর্মীরা কীভাবে আওয়ামী লীগকে সহযোগিতা করবে?

ইলিয়াস হোসেন সবুজ : আমরা বিশ্ববিদ্যালয় যতদিন খোলা থাকবে ততদিন বিশ্ববদ্যালয়ের আশে পাশে আওয়ামী লীগ থেকে মননয়নপ্রাপ্ত নেতাদের পক্ষে তাদের এলাকায় গিয়ে উন্নয়নের কর্মচিত্র ভোটারদের নিকট তুলে ধরব। এবং তার পরবর্তী বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ হয়ে গেলে নেতাকর্মীরা তাদের নিজ নিজ এলাকায় গিয়ে স্থানী আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রাপ্ত নেতাদের পক্ষে কাজ করবেন এবং নির্বাচনে জেতার জন্য সর্বাত্বক সহযোগিতা করার নির্দেশ থাকবে।

সভাপতি

 সভাপতি ইলায়াস হোসেন সবুজ

 

শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম মাজেদের সঙ্গে কথা বলতে গেলে তিনি নির্বাচন নিয়ে একান্তে আলাপচারিতায় তার ভাবনার কথা তুলে ধরেন.....

অধিকার : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আপনি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আপনার ভাবনা কি?

রেজাউল ইসলাম মাজেদ : আমি তরুণ হিসেবে দেশরত্ন শেখ হাসিনা টানা দুইবার প্রধানমন্ত্রী হিসাবে নির্বাচিত হয়ে দেশকে উন্নয়নের যে মহাসড়কে নিয়ে গেছেন, এটা তরুণদের উপলব্ধি করাতে হবে। তাহলে অবশ্যই আমরা তৃতীয় মেয়াদে আওয়ামী লীগ সরকারকে নির্বাচিত করতে পারব। আর সেই জন্য আমরা কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ তরুণদের মাঝে আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডগুলো তুলে ধরব এবং তাদের বুঝাব যে, দেশের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে আওয়ামী লীগ সরকারকে নির্বাচিত করা জরুরি।

অধিকার : নির্বাচন কেন্দ্রীক সকল দলই মিছিল মিটিং করে ভোট আদায় করতে চায়, সেক্ষেত্রে কুবি ছাত্রলীগের ভিন্ন কোনো পদক্ষেপ আছে কিনা?

রেজাউল ইসলাম মাজেদ : আমরা সবসময় শিক্ষার্থীদের পাশে ছিলাম, আশা করি নতুন ভোটাররা তথা কুবির শিক্ষার্থীরা আমাদের পছন্দ করতে ভুল করবে না। তবে তারপরেও আমাদের আরও কিছু পদক্ষেপ আছে। যেমন আমরা কয়েকদিনের মধ্যেই একটা শিক্ষার্থী সংলাপের ব্যবস্থা করব এবং শিক্ষার্থীদের সুবিধা অসুবিধার কথাগুলো শুনে সে ব্যাপারে কাজ করার জোর চেষ্টা করব।

অধিকার : নির্বাচনে কুবি শাখা ছাত্রলীগের কর্মীরা কী ধরনের ভুমিকা রাখবে?

রেজাউল ইসলাম মাজেদ : আমাদের হচ্ছে কুমিল্লা ১০ আসন, যেখানে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামালের নির্বাচনী এলাকা। আমরা অতীতে কামাল ভাই এর সাথে সফলতার সঙ্গে কাজ করে আসছি। ইউপি, পৌর নির্বাচনসহ সব নির্বাচনে আমরা প্রতিটি ঘরে গিয়েছি। এবার ও আমরা লিফলেট বিতরণসহ প্রতিটি ঘরে যাব, এবং নৌকাকে বিজয়ী করার জন্য সর্বাত্বক চেষ্টা করে যাব।

সাধারণ সম্পাদক

 সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম মাজেদ

 

এ দিকে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের তরুণ ভোটারদের সঙ্গে কথা বলতে গেলে তারা তাদের অনুভূতির কথা অধিকারকে ব্যক্ত করেন।

প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী জান্নাতুল ফেরদৌসি বলেন, ‘আমি এবার নতুন ভোটার, আশা করছি ভোট কেন্দ্রে গিয়ে নিজের ভোটটি পছন্দের দলকে দিতে পারব, তবে নির্বাচন কমিশনের কাছে চাওয়া থাকবে, আমরা যেন ভোট কেন্দ্রে যেতে পারি এবং সুষ্ঠুভাবে ভোট প্রদান করতে পারি।’

আইন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের আরেক শিক্ষার্থী আব্দুল হান্নান বলেন, ‘একজন ভোটার হিসেবে চাওয়া হলো অবাধ এবং সুষ্ঠু নির্বাচনী আবহাওয়া বজায় থাকবে। পাশাপাশি ভোট কেন্দ্রে গিয়ে পছন্দের প্রার্থীকে নিজের মূল্যবান ভোট দিতে পারব। এটুকু নিশ্চয়তা নির্বাচন কমিশনের কাছে চাওয়া থাকল।’

অর্থনীতি বিভাগের প্রথম বর্ষের আরেক শিক্ষার্থী সিফাত আহমেদ বলেন, ‘একজন তরুণ ভোটার হিসেবে পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে চাই, তবে নির্বাচন যেন অবাধ এবং নিরপেক্ষ হয় সে ব্যাপারে ইসির কাছে আবেদন থাকল।’ 

আপনার ক্যাম্পাসের নানা ঘটনা, আয়োজন/ অসন্তোষ সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
SELECT id,hl2,parent_cat_id,entry_time,tmp_photo FROM news WHERE ((spc_tags REGEXP '.*"location";s:[0-9]+:"কুবি".*')) AND id<>32653 ORDER BY id DESC LIMIT 0,5

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড