• সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ৩ পৌষ ১৪২৬  |   ২১ °সে
  • বেটা ভার্সন

দেশসেরা পদার্থবিজ্ঞানী জাবির আব্দুল্লাহ আল মামুন

  জাবি প্রতিনিধি ০৯ নভেম্বর ২০১৮, ১৫:৫০

অধ্যাপক
অধ্যাপক ড. আব্দুল্লাহ আল মামুন (ছবি : সংগৃহীত)

আরজি-স্কোর অনুযায়ী দেশসেরা পদার্থবিজ্ঞানী নির্বাচিত হয়েছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. আব্দুল্লাহ আল মামুন ( ড. এ এ মামুন)।

গবেষকদের র‍্যাংকিং করার কোনো সর্বসম্মত পন্থা বাংলাদেশে নেই। বাংলাদেশে পদার্থবিজ্ঞানে সেরা শিক্ষক কারা এটা বের করা খুবই কষ্টসাধ্য বিষয়। তবে মোটামুটি গ্রহণযোগ্য রিসার্চ গেট ও আরজি স্কোর- এর মাধ্যমে এক ধরনের রেটিং করা হয়ে থাকে গবেষকদের। যদিও ওই রেটিং নিয়ে প্রশ্ন আছে। তবুও এটি গ্রহণযোগ্য একটি পন্থা। এতে একটি রেডিমেড স্কোর পাওয়া যায়। এই স্কোর থেকে মোটা দাগে হলেও একটা ধারণা পাওয়া যায়।

আর এই আরজি স্কোর অনুযায়ী ৪৪ দশমিক ৯৭ পয়েন্ট নিয়ে দেশসেরা পদার্থবিজ্ঞানীর অবস্থানে রয়েছেন জাবির এই অধ্যাপক।

অধ্যাপক ড. এ এ মামুন ১৯৬৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন। এসএসসি, এইচএসসিতে প্রথম বিভাগ পেয়ে ভর্তি হন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগে। এখানে বিএসসি এবং এমএসসিতে প্রথম শ্রেণিতে প্রথম হন। এমএসসিতে সব বিভাগের মধ্যে সবচেয়ে বেশি নম্বর পেয়েছিলেন তিনি। এরপর ১৯৯৩ সালে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগে প্রভাষক পদে যোগ দেন। 

সে বছরের সেপ্টেম্বরে কমনওয়েলথ স্কলারশিপ নিয়ে ব্রিটেনের সেন্ট অ্যান্ডুজ ইউনিভার্সিটিতে পিএইচডি করতে চলে যান। এখান থেকে তিনি প্লাজমা পদার্থবিজ্ঞানের ওপর পিএইচডি লাভ করেন। মামুন পরবর্তী সময়ে জার্মানি এবং যুক্তরাজ্য থেকে পোস্ট ডক্টরাল অধ্যয়ন করেন। দেশে ফিরে তিনি নিজ বিভাগে যোগ দেন। 

তিনি দুই শতাধিক গবেষণামূলক নিবন্ধ প্রকাশ করেন। ইনস্টিটিউট অব ফিজিক্স (লন্ডন) ডাস্টি 'প্লাজমা'র ওপর তার পাঠ্য বইকে প্রকাশ করে। ২০১৩ সালে ৩৯টি, ২০১৪ সালে ৩৮টি ও পরের বছর আন্তর্জাতিক জার্নালগুলোয় তার ৪৪টি গবেষণা প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়। দেশের সবচেয়ে বেশি গবেষণা প্রবন্ধ প্রকাশের স্বীকৃতি হিসেবে ড. এ এ মামুন ২০১৩, ২০১৪ ও ২০১৫ সালে সায়েন্টিফিক বাংলাদেশের ‘সায়েন্টিফিক পাবলিকেশন উইথ বাংলাদেশ অ্যাফিলেশন ইন ২০১৫’ জরিপে পর পর তিন বছর ‘বর্ষসেরা গবেষক’ নির্বাচিত হন।

২০০৪ সালে বাংলাদেশ বিজ্ঞান একাডেমি থেকে তিনি পদার্থবিজ্ঞানে স্বর্ণপদক (জুনিয়র), ২০১১ সালে বাংলাদেশ বিজ্ঞান একাডেমি কর্তৃক স্বর্ণপদক (সিনিয়র) এবং ২০০৯ সালে আলেকজান্ডার ভন হামবোল্ডট ফাউন্ডেশন থেকে ফ্রেডরিখ উইলহেম বিসেল রিসার্চ সম্মাননা লাভ করেন। 

আরজি স্কোর অনুযায়ী প্রথম দশ পদার্থবিজ্ঞানীর মধ্যে ৩৭ দশমিক ৬১ পয়েন্ট নিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সালেহ হাসান নকীব ২য়, ৩৬ দশমিক ৬১ পয়েন্ট নিয়ে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের এমিরেটাস অধ্যাপক অরুন কুমার বসাক ৩য়, ৩৫ দশমিক ১৯ পয়েন্ট নিয়ে বুয়েটের অধ্যাপক একেএম আখতার হুসাইন ৪র্থ, ৩৫ দশমিক ১৭ পয়েন্ট নিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক একেএম আজহারুল ইসলাম ৫ম, ৩৪ দশমিক ৫১ পয়েন্ট নিয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এম ইদ্রিস মিয়া ৬ষ্ঠ, ৩১ দশমিক ১২ পয়েন্ট নিয়ে বুয়েটের অধ্যাপক জীবন পোদ্দার ৭ম, ৩০ দশমিক ০৯ পয়েন্ট নিয়ে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ফরহাদ মিনা ৮ম, ২৯ দশমিক ৯৮ পয়েন্ট নিয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক একেএম মইনুল হক মিয়াজ ৯ম এবং ২৯ দশমিক ৯৩ পয়েন্ট নিয়ে বুয়েটের অধ্যাপক আবু হাসান ভূঁইয়া ১০ম অবস্থানে রয়েছেন।

এছাড়া তরুণ গবেষকদের মধ্যে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়য়ের ড. শারমিন সুলতানার স্কোর ২৯ দশমিক ১৬, বুয়েটের প্রফেসর মোহাম্মদ আব্দুল বাসিতের স্কোর ২৮ দশমিক ০৬ এবং নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. মাহদি রহমান চৌধুরীর স্কোর ২৭ দশমিক ০৭।

আপনার ক্যাম্পাসের নানা ঘটনা, আয়োজন/ অসন্তোষ সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
SELECT id,hl2,parent_cat_id,entry_time,tmp_photo FROM news WHERE ((spc_tags REGEXP '.*"location";s:[0-9]+:"জাবি".*')) AND id<>27412 ORDER BY id DESC LIMIT 0,5

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড